থার্মোমিটারে ৩৭.১ ডিগ্রি, ‘রিয়াল ফিল’ ৪৯ ডিগ্রি, নাজেহাল কলকাতা, ৪৮ ঘণ্টা পর স্বস্তির পূর্বাভাস

0
1198
extreme heat in bengal

কলকাতা: বর্ষা নামার আগে রীতিমতো তুর্কিনাচন নাচাচ্ছে গরম। কলকাতার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা সে ভাবে না বাড়লেও, ছড়ি ঘোরাচ্ছে আর্দ্রতা। শুধু কলকাতাই নয়, আশেপাশের জেলাগুলিতেও অবস্থা এ রকমই। তবে আশার কথা, ৪৮ ঘণ্টা পর থেকে হয়তো কিছুটা বদলাতে পারে পরিস্থিতি।

রবিবার কলকাতায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৭.১ ডিগ্রি। স্বাভাবিকের থেকে মাত্র এক ডিগ্রি বেশি হলেও, আর্দ্রতা এমন চরম ছিল যে ‘রিয়াল ফিল’ অর্থাৎ অনুভুতির তাপমাত্রা পৌঁছে যায় ৪৯ ডিগ্রিতে। কলকাতায় তাপমাত্রা স্বাভাবিকের কাছাকাছি থাকলেও, পশ্চিমাঞ্চলের জেলাগুলিতে শুরু হয়ে গিয়েছে তাপপ্রবাহ। বাঁকুড়ায় রবিবার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৪৩.৩ ডিগ্রি, স্বাভাবিকের থেকে পাঁচ ডিগ্রি বেশি। আসানসোলে তাপমাত্রা ছিল ৪৩ ডিগ্রি। চল্লিশের ওপর ছিল বর্ধমান এবং মেদিনীপুরের তাপমাত্রাও। তবে বর্ষার আগে এ রকম পরিস্থিতি খুব একটা অস্বাভাবিক নয় বলে মত আবহাওয়া বিশেষজ্ঞদের।

বেসরকারি সংস্থা ওয়েদার আল্টিমার কর্ণধার আবহাওয়া বিশেষজ্ঞ রবীন্দ্র গোয়েঙ্কার মতে, “কলকাতা-সহ গোটা রাজ্যে এখন প্রাক-বর্ষার পরিস্থিতি। এই সময়ে দক্ষিণবঙ্গে এ রকম গরম অস্বাভাবিক নয়।” তাঁর মতে, এ রকম গরম চলতে থাকলে স্থলভূমির ওপর একটি নিম্নচাপ বলয় তৈরি হবে। এর ফলে ক্রমে এগিয়ে আসবে বর্ষা।

গরমের পরিস্থিতি বদলাবে কবে?

৪৮ ঘণ্টা পর থেকে স্বস্তির আশা করছে আবহাওয়া দফতর। একই মত আবহাওয়া সংক্রান্ত বিভিন্ন ওয়েবসাইট এবং রবীন্দ্রবাবুরও। সোমবার কলকাতার পরিস্থিতি খুব একটা বদলাবে না, কিন্তু মঙ্গলবার থেকে ঝড়বৃষ্টির পরিস্থিতি অনুকূল হয়ে উঠবে। সর্বোচ্চ তাপমাত্রাও ৩৪-৩৫ ডিগ্রির কাছাকাছি নেমে আসবে বলে মত তাঁদের। দু’তিন দিনের মধ্যে বঙ্গোপসাগরে একটি নিম্নচাপ সৃষ্টি হতে পারে। এর ফলেও দক্ষিণবঙ্গে বৃষ্টির ভাগ্য খুলতে পারে বলে আশাপ্রকাশ করা হচ্ছে।

তবে এখন প্রাক-বর্ষার সময় হওয়ায়, দক্ষিণবঙ্গে স্থানীয় ভাবে বজ্রগর্ভ মেঘের সৃষ্টি হয়েও দু’এক পশলা আকস্মিক বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে সোমবার, এমনকি রবিবার রাতেও। তবে সেই বৃষ্টিতে স্বস্তি মিলবে না।

মঙ্গলবার উত্তরবঙ্গে বর্ষা

আবহাওয়া দফতরের মতে, মঙ্গলবারের মধ্যে উত্তরবঙ্গে পৌঁছে যেতে পারে দক্ষিণ-পশ্চিম মৌসুমি বায়ু। গত দু’একদিন হল উত্তরবঙ্গের দোরগোড়ায় পৌঁছে ঠায় দাঁড়িয়ে রয়েছে বর্ষা। ৪৮ ঘণ্টা পরেই গতিপ্রাপ্ত হবে বর্ষা। উত্তরবঙ্গের পাশাপাশি দক্ষিণ ভারতের আরও কিছু অংশেও বর্ষা পৌঁছে যাবে বলে পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছে।

এক ক্লিকে মনের মানুষ,খবর অনলাইন পাত্রপাত্রীর খোঁজ

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here