কলকাতা: কয়েক মাস আগেই নামখানায় হাতানিয়া-দোয়ানিয়া নদীর ওপরে তৈরি হয়েছে সেতু। তার পরেই কলকাতার সঙ্গে বকখালির সংযোগ আরও সহজ হয়ে গিয়েছে। আগে কলকাতা থেকে বকখালি যেতে কম হ্যাপা পোহাতে হত না! কারণ ভূতল পরিবহণের সরাসরি বাস ছিল মাত্র দুটো। কলকাতা এবং বকখালির মধ্যে তারা দু’বার যাতায়াত করত। আবার নানা কারণে বন্ধ থাকারও অভিযোগ করতেন যাত্রীরা।

হাতানিয়া-দোয়ানিয়া পেরোনোর জন্য ভেসেলের ওপরে ভরসা করতে হত সবাইকে। বাসকেও। কোনো ভাবে সময় মিস হয়ে গেলেই অনেকক্ষণ আটকে থাকা। কিন্তু এখন তো সেতু তৈরি হয়েছে। তাই বাসের সংখ্যাও বাড়ানো হয়েছে।

আরও পড়ুন সুন্দরবনের মুকুটে আরও একটি সংযোজন, উদ্বোধন হল দীর্ঘতম সেতুর

কলকাতা তথা এসপ্ল্যানেড থেকে বকখালির উদ্দেশে বাস ছাড়বে সকাল ৬টা, সকাল ৭টা, সকাল ৮টা, দুপুর ১টা, দুপুর ১:৪৫, দুপুর ২:৩০, বিকেল ৩:১৫, বিকাল ৪:১৫, বিকেল ৫টা এবং বিকেল ৫:৪৫।

অন্য দিকে বকখালি থেকে এসপ্ল্যানেড ফেরার বাস ছাড়বে ভোর ৫টা, সকাল ৬টা, সকাল ১০টা, দুপুর ১২টা, দুপুর ১টা এবং দুপুর ২টো। পাশাপাশি বকখালি থেকে হাওড়ার উদ্দেশে বাস ছাড়বে ভোর ৫টা, সকাল ৬:৩০, সকাল ৭টা, সকাল ৭:৩০টা, সকাল ৮টা। তবে হাওড়ার বাসগুলিও এসপ্ল্যানেড হয়েই যাবে।

সরাসরি বাসের সংখ্যা বাড়ানোয় বকখালিতে পর্যটক সমাগম যে আরও বাড়বে তা বলাই বাহুল্য।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here