winter

কলকাতা: একেই বলে আবহাওয়ার খামখেয়ালিপনা! কিছু দিন আগেই পূর্বাভাসে বলা হয়েছিল সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ক্রমশ বাড়তে পারে দক্ষিণবঙ্গে। সেই পূর্বাভাসকে ভুল প্রমাণিত করে আরও নেমে গেল তাপমাত্রা। বৃহস্পতিবার মরশুমের শীতলতম দিন অনুভূত হল কলকাতায়।

বৃহস্পতিবার কলকাতায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ১৪.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস। স্বাভাবিকের থেকে দু’ডিগ্রি কম। আরও কিছুটা নামলেই গত দশ বছরের নভেম্বরে কলকাতায় শীতলতম দিনের রেকর্ডও করে ফেলতে পারত কলকাতা। তবে কলকাতায় তাপমাত্রা কমলেও স্থিতাবস্থা বজায় রয়েছে দক্ষিণবঙ্গের বাকি জায়গার তাপমাত্রায়।

বৃহস্পতিবার দক্ষিণবঙ্গের শীতলতম জায়গা ছিল পানাগড়। সেখানে তাপমাত্রা ১০.৪ ডিগ্রি রেকর্ড করা হয়েছে। তার পরেই রয়েছে বোলপুর, সেখানে তাপমাত্রা ছিল ১০.৯ ডিগ্রি। এ ছাড়া বারো ডিগ্রির কাছাকাছি রয়েছে বাঁকুড়া, পুরুলিয়া, বহরমপুর এবং কৃষ্ণনগরের তাপমাত্রা। অন্য দিকে উপকূলবর্তী অঞ্চল দিঘা এবং ডায়মন্ড হারবারেও তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে তেরো ডিগ্রির কাছাকাছি।

মনে করা হচ্ছিল তাপমাত্রা কিছুটা বাড়তে চলেছে, কিন্তু এ রকম উলটপুরাণ কী করে হয়ে গেল?

এর পেছনে রয়েছে বঙ্গোপসাগরের খামখেয়ালিপনা। পর পর দু’টি নিম্নচাপ তৈরি হওয়ার কথা ছিল দক্ষিণ বঙ্গোপসাগরে। বেসরকারি আবহাওয়া সংস্থা ওয়েদার আল্টিমার কর্ণধার রবীন্দ্র গোয়েঙ্কা বলেন, “প্রথম নিম্নচাপটি চেন্নাইয়ের কাছে তৈরি না হয়ে, আরও দক্ষিণে অর্থাৎ কন্যকুমারী সংলগ্ন দক্ষিণ শ্রীলঙ্কার কাছাকাছি তৈরি হয়েছে। দ্রুত সেই নিম্নচাপটি শক্তি বাড়িয়ে ঘূর্ণিঝড়েও পরিণত হয়ে গিয়েছে। ঘূর্ণিঝড়টি বঙ্গোপসাগরের যাবতীয় জলীয়বাষ্প নিজের কাছে টেনে নিয়েছে।” অন্য দিকে ডিসেম্বরের ১-২ তারিখ নাগাদ আরও একটি নিম্নচাপের তৈরি হওয়ার কথা ছিল আন্দামান সাগর অঞ্চলে। কিন্তু সেই নিম্নচাপটি তৈরি হবে সামনের সপ্তাহের মাঝামাঝি।

এর ফলে বঙ্গোপসাগরের ওপরে যা জলীয় বাষ্প মজুদ ছিল, সব নিজের কাছে টেনে নিয়েছে এই ঘূর্ণিঝড়টি। দক্ষিণবঙ্গের আকাশ পরিষ্কার থাকায় হুহু করে ঢুকে পড়েছে উত্তুরে হাওয়া। এর পাশাপাশি নেপাল এবং সিকিমের বেশ কিছু অংশে মঙ্গল-বুধবার নাগাদ তুষারপাতও হয়েছে, এই সব কারণেই এক ধাক্কায় নেমে গেল কলকাতার তাপমাত্রা।

আপাতত কলকাতার তাপমাত্রাতেও স্থিতাবস্থা বজায় থাকারই ইঙ্গিত পাওয়া গিয়েছে। আগামী অন্তত দিন পাঁচেক পনেরো ডিগ্রির আশেপাশে ঘোরাঘুরি করবে শহরের তাপমাত্রা। তবে সামনের সপ্তাহের মাঝামাঝি নতুন নিম্নচাপটির প্রভাবে বাড়তে পারে দক্ষিণবঙ্গের তাপমাত্রা। মেঘলা আবহাওয়াকে সঙ্গী করে ১৭-১৮ ডিগ্রিতে উঠে যেতে পারে পারদ। তখন হালকা বৃষ্টির সম্ভাবনাও উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে না।

 

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here