কলকাতার সাপ্তাহিক করোনা সংক্রমণের হারে ইতিবাচক পরিবর্তন, পরিস্থিতি ভালো হওয়ার ইঙ্গিত

0

কলকাতা: শহরের চিকিৎসকমহল ঘনিষ্ঠ মহলে স্বীকার করতে শুরু করেছেন যে গত তিন চার দিনে জ্বর-সর্দিকাশির রোগীর সংখ্যা কিছুটা হলেও কমেছে। ধীরে ধীরে সেটা প্রতিফলিত হচ্ছে কলকাতায় দৈনিক করোনা সংক্রমণের গ্রাফেও। এ বার শহরের সাপ্তাহিল করোনা সংক্রমণের হার সেই ছবিটাই পরিষ্কার করল। টানা বেড়ে ভয়াবহ জায়গায় চলে যাওয়ার পর অবশেষে সামান্য হলেও তা কমল।

প্রতি ১০০ টেস্টে কতজনের রিপোর্ট পজিটিভ হচ্ছে, সেটাকেই বলে সংক্রমণের হার। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার গাইডলাইন বলে এই হারকে ৫ শতাংশের নীচে নামিয়ে রাখার চেষ্টা করতে হবে সব সময়। আর যদি তা দশ শতাংশের ওপরে উঠে যায় তা হলে বুঝতে হবে যে পরিস্থিতি ঘোরাল হয়ে উঠছে।

সেই মাপকাঠি অনুযায়ী বিচার করতে গেলে দেখা যেত কে কলকাতায় ছবি অত্যন্ত ভয়াবহ। শহরে সাপ্তাহিক সংক্রমণের হার উঠে গিয়েছিল ৬০ শতাংশের ওপরে। গত বুধবার ঠিক এই তথ্যই দিয়েছিল কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রক। অর্থাৎ, গত ৬ জানুয়ারি থেকে ১২ জানুয়ারি পর্যন্ত কলকাতায় যত সংখ্যক টেস্ট হচ্ছিল তার ৬০ শতাংশ রিপোর্টই পজিটিভ হচ্ছিল।

ডিসেম্বরের শেষ সপ্তাহ থেকে সংক্রমণের হার টানা বেড়ে গিয়েছে কলকাতায়। একদিনের জন্যও সেটা একটু হলেও কমেনি। বাড়তে বাড়তে বুধবারই তা ৬০ শতাংশের গণ্ডি ছাড়িয়ে যায়। বৃহস্পতিবার তা ছিল ৬১ শতাংশে। কিন্তু শুক্রবার তা কমে হয়েছে ৫৮.৯৯ শতাংশ। এটা এখনও উদ্বেগজনক। কিন্তু কিছুটা স্বস্তিদায়ক তো নিঃসন্দেহে।

উল্লেখ্য, তৃতীয় ঢেউয়ে আপাতত কলকাতায় দৈনিক সর্বোচ্চ সংক্রমণ হয়েছিল গত রবিবার। সে দিন ৮ হাজার ৭১২ জন আক্রান্ত হয়েছিলেন শহরে। তার পর থেকেই শহরের সংক্রমণ কমে। তবে সোমবার অতিরিক্ত কম টেস্ট হওয়ার ফলে পরিস্থিতি আঁচ করা যায়নি সে ভাবে। কিন্তু বৃহস্পতিবার শহরে আক্রান্ত হয়েছেন ৬ হাজার ৭৬৮ জন। অথচ বৃহস্পতিবার কিন্তু রবিবারের থেকে বেশি সংখ্যক নমুমা পরীক্ষা হয়েছে। সে কারণেই মনে করা হচ্ছে যে তৃতীয় ঢেউয়ের সংক্রমণের চূড়া পেরিয়ে এসেছে কলকাতা। যদিও তা বুঝতে আরও কয়েকটা দিন অপেক্ষা করতে হবে।

কলকাতার পাশাপাশি তার পার্শ্ববর্তী জেলাগুলিতেও সাপ্তাহিক সংক্রমণের হার সামান্য কমেছে। যদিও এখন তা বেড়ে চলেছে বীরভূম, পশ্চিম বর্ধমান, দার্জিলিংয়ের মতো জেলাগুলিতে।

আরও পড়তে পারেন:

ধামাকাদার শুক্রবার! উত্তরপ্রদেশের ছয় বিধায়ক এবং বিজেপি-র সদ্যপ্রাক্তন দুই মন্ত্রী যোগ দিলেন সমাজবাদী পার্টিতে

কগনিজ্যান্টকে সরিয়ে শীঘ্রই ভারতের দ্বিতীয় বৃহত্তম তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থায় পরিণত হতে চলেছে ইনফোসিস, বলছে রিপোর্ট

এ বার দু’দফায় সংসদের বাজেট অধিবেশন, শুরু ৩১ জানুয়ারি

কোভিড আবহে পুরভোট পিছনো যায় কি? ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে কমিশনকে সিদ্ধান্ত নিতে বলল হাইকোর্ট

করোনা পরিস্থিতি এবং বৃষ্টির ভ্রূকুটি, গঙ্গাসাগরে নেই সংক্রান্তির চেনা ছবি

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন