subid-ali-h

উজ্জ্বল বন্দোপাধ্যায়,কুলতলি: সোমবার রাতে ভোট দিয়ে বেরিয়ে যাওয়ার পথে গণপিটুনিতে মারা যান সুবিদ আলি মোল্লা (২২) নামে এক তৃণমূল কর্মী। বাড়ি খালদারপাড়া। ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ ২৪ পরগনার কুলতলি থানার চুপড়িঝাড়া গ্রাম পঞ্চায়েতের ৫৪ নম্বর বুথের বাইরে। সুবিদের দেহ একটি মাঠ থেকে ওই দিন রাতে উদ্ধার করে পুলিশ। দেহটিকে জামতলা গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে গেলে মৃত বলে ঘোষণা করেন চিকিৎসক।

স্থানীয় জানা গিয়েছে, এই বুথে তৃণমূল, এসইউসি ও বিজেপির পার্থী ছিল। রাতে ভোট চলাকালীন সুবিদ আলি দলবল নিয়ে বুথ দখল করতে যান। সেই সময় তৃণমূল বিরোধীরা একজোটে তাঁকে তাড়া করে। ভয়ে পালাতে গিয়ে তাদের হাতে গণপিটুনির শিকার হন সুবিদ। ছ’টি মোটর সাইকেলে আগুন লাগিয়ে দেওয়া হয়।

কিন্ত মৃত সুবিদ আলির কাকা চুপড়িঝাড়া তৃণমূল অঞ্চল সভাপতি হামিদ আলি মোল্লা বলেন, “আমার ভাইপো সুবিদের সঙ্গে বিজেপির ছেলেদের একটু বচসা হয়। তারপরেই ৫০০-৬০০ বিজেপির লোক তাড়া করে আমার ভাইপোকে মেরে দিল।গাড়ি জ্বালিয়ে দিল। আমরা কোনো রকমে পালিয়ে বাচি”।

যদিও তাঁদের বিরুদ্ধে ওঠা যাবতীয় অভিযোগ অস্বীকার করেছেন বিজেপির জেলার নেতা সুনীপ দাস। তিনি বলেন, “সুবিদ দলবল নিয়ে বুথ দখল করতে এসেছিল। তখন সাধারণ ভোটারদের প্রতিরোধের মুখে পড়ে সে মারা যায়। এতে বিজেপির কেউ জড়িত নয়”।

সোমবার রাত থেকে এলাকায় চরম উত্তেজনা থাকায় পুলিশ মোতায়েন আছে। সোমবার রাতে ও মঙ্গলবার দুপুরে এলাকায় গিয়ে দেখা গেল, এলাকা পুরোপুরি থমথমে। পুলিশি তদন্ত চলছে বলে সূত্র মারফত জানা গিয়েছে। তবে পুলিশ পিকেট থাকলেও স্থানীয় মানুষের এমনটাও দাবি, যে কোনো সময় ফের গন্ডগোল শুরু হতে পারে এই এলাকায়।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here