anubrata mondal

ওয়েবডেস্ক: না, পঞ্চায়েত নির্বাচনের প্রচারের শেষ লগ্নে এসে তিনি ভোটারদের উদ্দেশে কোনো কড়া কথা বলেননি। তবে মনোনয়ন দিতে গেল যেমন বিরোধীরা রাস্তায় ‘উন্নয়ন’ দেখতে পাবেন বলে সংবাদ মাধ্যমের শিরোনাম দখল করে নিয়েছেন, কতকটা তেমনই আওয়াজ তত্ত্ব শোনা গিয়েছে তাঁর নতুন বক্তব্যে।

মনোনয়ন পর্বে রাস্তায় দাঁড়িয়ে থাকা অনুব্রতর উন্নয়ন নিয়ে কবিতা চালাচালি হয়ে চলেছে এখনও। বাংলার তাবড় কবিকুল নেমে পড়েছেন অনুব্রতর ‘উন্নয়ন’কে সামনে রেখে কবিতা রচনায়। কেউ অনুব্রতর সমালোচনা করছেন, তো কেউ পাশে এসেও দাঁড়িয়েছেন। কিন্তু ‘উন্নয়ন’ তো আর দাঁড়িয়ে থাকে না। এগিয়েই চলেছে। তবে অনুব্রতর এই আওয়াজ তত্ত্বের মধ্যে যে হুমকি লুকিয়ে রয়েছে, তা মানছেন বিরোধীরা।

আরও পড়ুন: হাইকোর্টের রায়ে ছিঁড়ে গেল ‘মশারি’, বীরভূমে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে পারেন ১৮ সিপিএম প্রার্থী

অনুব্রত বলেছেন, ‘ভোটাররা ভোট দিতে গেলে রাস্তায় ঠক ঠক আওয়াজ উঠবে। ঢালাইয়ের রাস্তা তো’। ভোটের দু’দিন আগে অনুব্রতর এই ঠক ঠক আওয়াজের মধ্যে যে অন্য ইঙ্গিত থাকতে পারে, তা মনে করছে বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলি। কিন্তু এমন ধোঁয়াশা কথা নিয়ে নির্বাচন কমিশনের কাছে যাওয়ারও কোনো মানে হয় না। এমনিতে বীরভূমের অধিকাংশ আসনে ভোট নেই। তবুও অনুব্রত ‘উন্নয়ন’ বা ‘মশারি’র পর এই ঠক ঠক আওয়াজ নিয়েই এখন চলছে জোর জল্পনা।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন