কলকাতা: আপাতত রাজনীতি ছাড়ছেন, তবে এখনই কোনো রাজনৈতিক দলে যাচ্ছেন না বলে বৃহস্পতিবার জানিয়ে দিলেন সদ্য রাজ্য মন্ত্রিসভা থেকে ইস্তফা দেওয়া ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী লক্ষ্মীরতন শুক্ল (Laxmi Ratan Shukla)।

খেলাধুলোয় আরও বেশি করে মনোনিবেশ করতে চাইছেন লক্ষ্মীরতন। মন্ত্রিত্ব এবং তৃণমূলের সাংগঠনিক পদ থেকে ইস্তফা দেওয়ার পর এ দিনই প্রথম বার সংবাদ মাধ্যমের মুখোমুখি হন তিনি। উত্তর দেন একাধিক প্রশ্নের। একই সঙ্গে জানিয়ে দেন, “কোথাও যোগদানের প্রশ্ন নেই। তবে সব কথা প্রকাশ্যে বলতে চাই না”।

বলেন, “আপাতত রাজনীতি থেকে সরে গেলাম। ২০১৬ থেকে যাঁদের সঙ্গে কাজ করেছি, তাঁদের সকলকে ধন্যবাদ। মানুষের জন্য কাজ করব। একটা সুযোগ পেয়েছিলাম, চেষ্টা করেছি সততার সঙ্গে তা করার। বাংলার প্রত্যেক মানুষকে ধন্যবাদ জানাই। সিপিএম, কংগ্রেস, বিজেপি অথবা তৃণমূল সব দলের নেতাদেরই ধন্যবাদ। আজও আমাকে মানুষ আমাকে খেলোয়াড় হিসেবে চেনে। এটাই আমার পরিচয়”।

তবে ঠিক কত দিনের জন্য তিনি রাজনীতি থেকে সন্যাস নিলেন, সে ব্যাপারে স্পষ্ট কোনো জবাব দিতে চাননি লক্ষ্মীরতন।

সুসম্পর্ক থাকবে মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে

বাংলার প্রাক্তন রঞ্জি অধিনায়কের কথায়, “২০১৬ সালে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আমাকে সুযোগ করে দিয়েছিলেন। বলেছিলেন, তুমি ভালো ছেলে। তোমার প্রার্থী হওয়া উচিত। ক’দিন আগেও তিনি আমাকে ভালো ছেলে বলেই উল্লেখ করেছেন। এটাই আমার কাছে সব। তাঁর সঙ্গে আমার সুসম্পর্ক ছিল, আছে এবং আগামী দিনেও বজায় থাকবে।”।

রাজ্য-রাজনীতি প্রসঙ্গে লক্ষ্মীরতনের সাফ জবাব, “রাজ্য আমরা হিংসার রাজনীতি দেখতে পছন্দ করি না। আমি আগেও এ কথা বলেছি। হিংসা-প্রতিহিংসাকে কখনোই মেনে নেওয়া যায় না। সমাজে বিভেদ কখনোই কাম্য নয়। হিংসা থেকে সকলে দূরে থাকুন”।

মন্ত্রিত্ব এবং দলীয় পদ ছাড়ার পরেই জল্পনা ছড়ায় তা হলে বিজেপিতে যোগ দিতে চলেছেন তিনি। এমন প্রশ্নে এ দিন লক্ষ্মীরতন বলেন, “এখনও বিধায়ক পদ ছাড়িনি, রাস্তায় বেরোব। ক্রীড়াবিদ হিসেবেই আমার সব থেকে বড়ো পরিচয়। ক্রীড়া ক্ষেত্রে কাজ করে যাব। বিধায়কপদে পূর্ণ সময় থাকব”।

মুখ্যমন্ত্রী যা বলেছিলেন‌

 লক্ষ্মীরতনের ইস্তফা দেওয়ার কথা জানানোর কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই লক্ষ্মীর সিদ্ধান্তকে ‘স্বাগত’ জানান মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)।

মমতা বলেন, “কোনো ভুল বোঝাবুঝির প্রশ্ন নেই। লক্ষ্মী খুব ভালো ছেলে। সে বলেছে, খেলাধুলোয় আরও বেশি করে সময় দিতে চায়। যে কারণে সব রকমের দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি চেয়েছে। মন্ত্রিত্ব থেকে পদত্যাগের কথা লেখেননি। লিখেছে, খেলায় টাইম দেওয়ার জন্যে আমি সমস্ত রকমের পদ থেকে সরে যেতে চাই। তবে বিধানসভার সদস্যপদে কন্টিনিউ করতে চাই। রাজ্যপালের কাছে পদত্যাগপত্র পাঠানো হয়েছে”।

মুখ্যমন্ত্রী আরও বলেন, “সে এটা করতেই পারে, তাতে কী যায়-আসে। আমি চাই সে ভালো করে খেলাধুলো করুক। খেলার জগতে ফিরতে চায়, এটা তো ভালো সিদ্ধান্তই নিয়েছে”।

আরও পড়তে পারেন: কেন্দ্র-রাজ্যে একই সরকার প্রসঙ্গে শুভেন্দু অধিকারীকে নিশানা অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন