কানহাইয়া না এলেও তারুণ্যের আস্ফালন দেখল বামফ্রন্টের ব্রিগেড!

ব্রিগেডের কয়েক লক্ষ মানুষের ভিড়ে উল্লেখযোগ্য ভাবে স্থান দখল করেছে মহিলা-যুব সম্প্রদায়

0
Left Front Brigade Rally
ব্রিগেডে অংশগ্রহণকারী

ওয়েবডেস্ক: “কেন্দ্র থেকে বিজেপি আর রাজ্য থেকে তৃণমূল হঠাও”- এটাই ছিল বামফ্রন্টের ব্রিগেডের অন্যতম স্লোগান। গলাও মেলালেন লাখো মানুষ।

কিন্তু ছাত্র-যুব সম্প্রদায়কে কতটা দিশা দেখাতে সফল হবে এই ব্রিগেড, সেটাই ছিল মূল প্রশ্ন। সেই প্রশ্নের সোজাসাপটা উত্তর মিলল রবিবারের ব্রিগেডে।

বামনেতৃত্ব প্রথম থেকেই দাবি করে আসছিলেন, ভয়ের পরিবেশে জনসমাগমে ঘাটতি দেখা দিলেও অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না।

কিন্তু এ দিনের জনস্রোতে তেমন কোনো আভাস নেই। ব্রিগেডের কয়েক লক্ষ মানুষের ভিড়ে উল্লেখযোগ্য ভাবে স্থান দখল করেছে মহিলা-যুব সম্প্রদায়।

কথা ছিল এ দিনের সমাবেশে অংশ নেবেন তরুণ প্রজন্মের বামপন্থী নেতা কানহাইয়া কুমার। কিন্তু শেষলগ্নে শারীরিক অসুস্থতার কারণে তিনি অনুপস্থিত।

কেন্দ্রীয় এবং রাজ্যস্তরের নেতৃত্বের মাঝে তিনি ছিলেন আকর্ষণের অন্য এক কেন্দ্রবিন্দু। গত কয়েক দিন ধরে সোশ্যাল মিডিয়াতেই সেই আভাস মিলেছে।

যদিও ওই জনপ্রিয় ছাত্রনেতার অনুপস্থিতি ঢেকে দিয়েছে বামফ্রন্টের তরুণ-ব্রিগেড। অনেকেই স্বীকার করতে বাধ্য হচ্ছেন, তরুণ প্রজন্মের অংশগ্রহণ চোখে পড়ার মতোই।

Left Front Brigade Rally
ব্রিগেডের সমাবেশ মঞ্চে বামনেতৃত্ব

একই সঙ্গে কানহাইয়া না এলেও প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যের উপস্থিতি ইতিবাচক ভূমিকা নিয়েছে এ দিনের ব্রিগেডে।

কোচবিহার থেকে নিজেদের উদ্যোগে ব্রিগেডে আসা এক দল ছাত্রের দাবি, বিজেপি-তৃণমূলের আঁতাত মানুষের চোখে স্পষ্ট করে দিতে চান তাঁরা।

তরুণ কোনো নেতা বক্তা হিসাবে না থাকলেও এ দিন প্রবীণ বক্তাদের ভাষণেও স্বাভাবিক ভাবে উঠে এসেছে তরুণ প্রজন্মের স্বপ্ন এবং দাবি-দাওয়ার বিষয়গুলি।

বামফ্রন্ট চেয়ারম্যান বিমান বসু বলেন, “কমরেড, বুকের পাটা আছে তো? প্রতিরোধের দুর্গ তৈরি করতে হবে।” তাঁর এই বক্তব্য শোনার পর গর্জে ওঠে তারুণ্যের ব্রিগেড।

 

অন্য দিকে কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য মহম্মদ সেলিম স্পষ্টতই যুবসমাজের পক্ষে সওয়াল করেন। তিনি রাজ্য সরকারের ইন্টার্ন শিক্ষক নিয়োগের প্রতিবাদ করেন।

সময় বদলায়, কিন্তু তারুণ্য বদলায়নি সেই স্লোগান-“আমরা পথে আছি, মাঠে আছি”। যা দেখা গেল এই রবিবাসরীয় ব্রিগেডেও।

------------------------------------------------
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.