পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচন ১৯৭৭: ৩৪ বছরের বামফ্রন্ট শাসনের যাত্রা শুরু

0
ইতিহাসে বিধানসভা নির্বাচন

খবরঅনলাইন ডেস্ক: পশ্চিমবঙ্গের ইতিহাসে অন্যতম ঐতিহাসিক নির্বাচন এটি। কারণ এই নির্বাচনের পরেই রাজ্যে তৈরি হয় সিপিএম নেতৃত্বাধীন বামফ্রন্ট সরকার।

১৯৭৭-এর ১৪ জুন রাজ্যে বিধানসভা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। তার আগে মার্চে ছিল লোকসভা নির্বাচন। ভারতের ক্ষেত্রে ১৯৭৭-এর সেই লোকসভা নির্বাচন ঐতিহাসিক।

ওই নির্বাচনের প্রেক্ষাপটটি ছিল অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। ১৯৭১ সালের নির্বাচনে রায়বরেলি কেন্দ্র থেকে ইন্দিরা গান্ধীর কাছে পরাজিত হন সোশ্যালিস্ট পার্টির প্রার্থী স্বাধীনতা সংগ্রামী রাজ নারায়ণ। নির্বাচনী দুর্নীতির অভিযোগ তুলে ইন্দিরার বিরুদ্ধে এলাহাবাদ হাইকোর্টে মামলা করেন রাজ নারায়ণ। ১৯৭৫ সালের ১২ জুন এলাহাবাদ হাইকোর্টের বিখ্যাত রায় বেরোল। বিচারপতি জগমোহন লাল সিনহা নির্বাচনী দুর্নীতির দায়ে প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধীকে দোষী সাব্যস্ত করে তাঁর নির্বাচন বাতিল করেন। শুধু তা-ই নয়, আগামী ছ’ বছর তিনি নির্বাচন লড়তে পারবেন না বলে হাইকোর্ট রায় দেয়। এলাহাবাদ হাইকোর্টের রায়ের পরের দিনই গুজরাত বিধানসভা নির্বাচনের ফল বেরোয়। কংগ্রেস পরাজিত হয়।

ত্রস্ত হয়ে ওঠেন ইন্দিরা গান্ধী। নেতৃত্ব ও ক্ষমতা হারানোর ভয়ে দেশে জরুরি অবস্থা জারি করেন ১৯৭৫ সালের ২৬ জুন। দেশে সব রকমের রাজনৈতিক কার্যকলাপ নিষিদ্ধ হয়ে গেল। প্রেস সেনসরশিপ জারি করে সংবাদপত্রের কণ্ঠরোধ করা হল।

শেষ পর্যন্ত নির্বাচন ঘোষণা করা হল ১৯৭৭ সালের মার্চ মাসে। আর সেই নির্বাচনেই ইন্দিরা গান্ধীকে ক্ষমতাচ্যুত করে ক্ষমতায় আসে জনতা সরকার। লোকসভা নির্বাচনে সিপিএম নেতৃত্বাধীন বামফ্রন্ট আর জনতা দল আসন ভাগাভাগি করে লড়েছিল।

স্বাভাবিক ভাবে বিধানসভা নির্বাচনের ক্ষেত্রেও বামেদের সঙ্গে জনতা দলের আসন ভাগাভাগির আলোচনা শুরু হয়। কিন্তু আলোচনা ফলপ্রসূ হয়নি। কারণ প্রফুল্লচন্দ্র সেনের নেতৃত্বাধীন জনতা দল চেয়েছিল ৭০ শতাংশ আসনে তারা প্রার্থী দেবে, ৩০ শতাংশ আসনে বামেরা। কিন্তু বাম নেতৃত্ব চেয়েছিল নিজেদের জন্য ৪৮ শতাংশ আসন রেখে বাকি ৫২ শতাংশ আসন জনতা দলকে ছেড়ে দিতে। জনতা দল রাজি হয়নি।

ফলে এই নির্বাচন কার্যত ত্রিমুখী লড়াইয়ে পরিণত হয় – বামফ্রন্ট, জনতা দল এবং কংগ্রেস।

সব হিসেবনিকেশকে উলটে দিয়ে ২৯৪টি আসনের মধ্যে ২৩১টি আসনে জিতে রাজ্যের ক্ষমতা দখল করে বামফ্রন্ট। ফ্রন্টের বৃহত্তম শরিক সিপিএম পায় ১৭৮টি আসন। জনতা পার্টি জয়লাভ করে ২৯টি আসনে, কংগ্রেসের আসন সংখ্যা মাত্র ২০-তে এসে ঠেকে।

এই নির্বাচনের পরেই রাজ্যে তৈরি হয় বামফ্রন্ট সরকার, যা পরবর্তী ৩৪ বছর শাসন চালিয়ে যায়।

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন