কলকাতা দখলে রাখল তৃণমূল কংগ্রেস, ভোট বাড়ল বামেদের

0
দিনহাটা পুরসভা দখল তৃণমূলের। প্রতীকী ছবি

কলকাতা: ক্ষমতায় কে আসবে সে বিষয় কোনো প্রশ্নই নেই। প্রশ্ন একটাই ক’টা আসন বা ওয়ার্ডে জিতে তারা ক্ষমতায় আসবে। গত বার ১৪৪টার মধ্যে ১১৫টি ওয়ার্ড জিতেছিল তৃণমূল। এ বার তাদের দাবি অন্তত ১৩৪টা ওয়ার্ডে জিতবে। অন্যদিকে, বিরোধীরা কোনো ভাবে ১০টা আসন জিতলেই সন্তুষ্ট। ভোটগণনা শুরু হবে কিছুক্ষণের মধ্যেই। দেখতে থাকুন খবর অনলাইন:-


বিভিন্ন দলের প্রাপ্ত ভোটের হার

কলকাতা পুরসভার ১৪৪টি আসনের মধ্যে তৃণমূল জিতেছে ১৩৪টিতে। এ ছাড়া বিজেপি ৩, বামফ্রন্ট ২, কংগ্রেস ২ এবং অন্যান্যদের ঝুলিতে গিয়েছে ৩টি আসন। সর্বশেষ প্রাপ্ত ভোটের হার নীচে-

তৃণমূল-৭২.১৩‌%

বাম-১১.৮৭%*

বিজেপি- ৯.২১%

কংগ্রেস-৪.১২%

নির্দল-২.৪৩%

সিপিএম-৯.৬৫%

সিপিআই-১.০২%

আরএসপি- .৭৮%

ফরওয়ার্ড ব্লক-.৪৪%

এসএইউসি (সি)- .১৩%

বিএসপি- .০৬%

সিপিআইএমএল-.০২%

জেডিইউ-.০১%

বিএনএআরপি- .০১%

আমরা বাঙালি- ৭৪‌টি ভোট

পিডিএস-৭০টি ভোট

এনসিপি-৩টি ভোট

—————-

বেলা ২:৩০- ১৪৪টি আসনের মধ্যে বাম এবং বিজেপি দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে যথাক্রমে ৬৫‌টি এবং ৫৪টি আসনে। কংগ্রেস দ্বিতীয় ১৫টি ওয়ার্ডে।

বেলা ২:০০-সর্বশেষ পাওয়া খবর, দু’টি আসনে জয়ী সিপিএম প্রার্থীরা। ৯২ ওয়ার্ডে মধুছন্দা দেব এবং ১০৩ নম্বর ওয়ার্ডে নন্দিতা রায়।

বেলা ১:৩০- জয়ী তিন নির্দল। ৪৩ নম্বর ওয়ার্এ আয়েশা কানিজ, ১৩৫ নম্বরে রুবিনা নাজ, ১৪১ নম্বরে পূরবী নস্কর। তিনজনই যোগ দেবেন তৃণমূলে।

বেলা ১:০০- ৭৩ নম্বর ওয়ার্ড থেকে জয়ী তৃণমূল প্রার্থী কাজরী বন্দ্যোপাধ্য়ায়। তাঁর জয়ের ব্যবধান ৬৪৯৩।

দুপুর ১২:০০- কলকাতা নাগরিকদের অভিনন্দন জানালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেন, “গণ উৎসবে গণতন্ত্রের জয়। এই ভোট উৎসবের মতো করে হয়েছে। মা-মাটি-মানুষের প্রতি কৃতজ্ঞ। যত সমর্থন দেবেন, আরও বেশি করে কাজ করব। কলকাতা আমাদের গর্ব, বাংলা গর্ব”।

সকাল ১১:৫০- তৃণমূল এগিয়ে/জয়ী ১৩২টি ওয়ার্ডে। বিজেপি এগিয়ে/জয়ী ৫টি ওয়ার্ডে। বামেরা দুটি ওয়ার্ডে এগিয়ে, কংগ্রেস দুটি ওয়ার্ডে জয়ী।

সকাল ১১:২০- ১০১ নম্বর ওয়ার্ডে জিতলেন তৃণমূলের বাপ্পাদিত্য দাশগুপ্ত। ১৩ নম্বর ওয়ার্ডে জিতলেন অনিন্দকিশোর রাউত।

সকাল ১১:০৫- কলকাতার পুরভোটে বেশ বড়ো রকমের ধাক্কা খেল বিজেপি। শহরের একাধিক ওয়ার্ডেই বিজেপিকে পেছনে ফেলে দ্বিতীয় স্থানে উঠে এসেছে বামফ্রন্ট। এর মধ্যে এক নম্বর বরোর ৯টা ওয়ার্ডেই দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে বামেরা। বেশ কিছু ওয়ার্ডে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে কংগ্রেসও।

সকাল ১১টা: ১০৯ নম্বর ওয়ার্ডে জিতেছেন তৃণমূলের অনন্যা বন্দ্যোপাধ্যায়। পাশের ১০৮ ওয়ার্ডে জয়ী তৃণমূলের সুশান্ত ঘোষ।

সকাল ১০:৪০- ৭ হাজার ৩৫৭ ভোটে নিজের ওয়ার্ডে জিতলেন তৃণমূলের মালা রায়। প্রায় ১০ হাজার ভোটে জিতলেন দেবাশিস কুমার।

সকাল ১০:৩৫- ১৩৭ নম্বর ওয়ার্ডে জিতলেন কংগ্রেসের সামস আনসারি।

সকাল ১০:২৫- বর্তমানে কলকাতার ৪টে ওয়ার্ডে এগিয়ে রয়েছে বামফ্রন্ট। ২১, ৯৮ এবং ১০৩ নম্বর ওয়ার্ডে এগিয়ে সিপিএম, ৯২ নম্বর ওয়ার্ডে এগিয়ে সিপিআই।

সকাল ১০:২২- ২২ নম্বর ওয়ার্ডে জয়ী বিজেপি প্রার্থী মীনাদেবী পুরোহিত।

সকাল ১০:১৫- ১৪৪টা ওয়ার্ডের মধ্যে তৃণমূল এগিয়ে গিয়েছে ১৩৪টি ওয়ার্ডে। বিজেপি এবং বামেরা ৩টে করে ওয়ার্ডে এগিয়ে। দুটি করে ওয়ার্ডে এগিয়ে কংগ্রেস এবং অন্যান্যরা।

সকাল ১০:১০- ভোটপ্রাপ্তির হারে বিজেপির থেকে এগিয়ে বামফ্রন্ট। তৃণমূল বর্তমানে পেয়েছে ৭৪.১ শতাংশ ভোট, বিজেপি পেয়েছে ৮ শতাংশ ভোট। বামেরা এখনও পর্যন্ত পেয়েছে ৯.১ শতাংশ ভোট।

সকাল ১০:০৫- তুলনামূলক বিচারে খুব খারাপ ফলাফল বামেরা করছে না। এই মুহূর্তে তারা এগিয়ে তিনটে ওয়ার্ডে। বিজেপিও একই সংখ্যক ওয়ার্ডে এগিয়ে। কংগ্রেস এবং অন্যান্যরা এগিয়ে যথাক্রমে দুটি এবং একটি ওয়ার্ডে।

সকাল ১০টা: ১০৩ এবং ৯৮ নম্বর ওয়ার্ডে এগিয়ে সিপিএম প্রার্থীরা। ১৩৭ নম্বর ওয়ার্ডে এগিয়ে কংগ্রেস প্রার্থী

সকাল ৯:৪৫- ১১২টির মধ্যে ১০৩টি আসনে এগিয়ে তৃণমূল। বিজেপি ৪, বামেরা এবং কংগ্রেস দুটো করে এবং অন্যান্যরা একটি আসনে এগিয়ে। ইতিমধ্যেই ১৪০ নম্বর ওয়ার্ডে জিতে গিয়েছেন তৃণমূল প্রার্থী।

সকাল ৯:৩০- তৃণমূল ৯৭, বিজেপি ৩, বামফ্রন্ট ২, কংগ্রেস ২ এবং অন্যান্যরা একটা ওয়ার্ডে এগিয়ে রয়েছে।

সকাল ৯:২২- ১০৩ নম্বর ওয়ার্ডে এগিয়ে রয়েছেন সিপিএমের নন্দিতা রায়।

সকাল ৯:২০: ২২ নম্বর ওয়ার্ডে এগিয়ে বিজেপি প্রার্থী মীনাদেবী পুরোহিত, ১৩১ নম্বর ওয়ার্ডে ২ হাজারেরও বেশি ভোটে এগিয়ে রত্না চট্টোপাধ্যায়। ৮৫ নম্বর ওয়ার্ডে এগিয়ে দেবাশিস কুমার।

সকাল ৯:১৮: ব্যাপক সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে কলকাতা দখলের পথে তৃণমূল। এই মুহূর্তে তারা ৭২টি আসনে এগিয়ে রয়েছে। বিজেপি এগিয়ে চারটে আসনে। কংগ্রেস ২টি আসনে এগিয়ে। বামফ্রন্ট এবং অন্যান্য একটি করে আসনে এগিয়ে।

সকাল ৯টা: ৪৭টা ওয়ার্ডের প্রাথমিক ট্রেন্ড পাওয়া গিয়েছে। এর মধ্যে তৃণমূল ৪০, বিজেপি ৪টে আসনে এগিয়ে। একটি করে ওয়ার্ডে এগিয়ে বামফ্রন্ট, কংগ্রেস এবং অন্যান্য। ২২ এবং ২৩ নম্বর ওয়ার্ডে এগিয়ে বিজেপি।

সকাল ৮:৫০- তৃণমূল ২১টি আসনে, কংগ্রেস ২টি আসনে এবং বামফ্রন্ট, বিজেপি ও অন্যান্য একটি করে আসনে এগিয়ে।

সকাল ৮:৪০ঃ ৮টা ওয়ার্ডের ট্রেন্ড এসেছে, সবেতেই এগিয়ে তৃণমূল। এগিয়ে রয়েছেন পরেশ পাল, অতীন ঘোষের মতো হেভিওয়েট প্রার্থীরা।

সকাল সাড়ে ৮টা: বর্তমানে দুটো আসনে এগিয়ে রয়েছে তৃণমূল।

সকাল ৮:২০: এখন পোস্টাল ব্যালটের গণনা চলছে।

সকাল ৮টা: পুরভোটের গণনা শুরু হয়ে গেল।

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন