bjp tmc

নিজস্ব প্রতিনিধি, বাঁকুড়া: পঞ্চায়েত ভোটের আগে বাঁকুড়ার বিষ্ণুপুর মহকুমা এলাকায় বড়োসড়ো ভাঙন তৃণমূলে। পাত্রসায়ের এলাকার ডাকসাইটে তৃণমূল নেতা ঝন্টু মিদ্যা-সহ তৃণমূলের দেড়শো জন কর্মী-সমর্থক বিজেপিতে যোগ দিলেন।

বিষ্ণুপুরে বিজেপির দলীয় কার্যালয়ে তৃণমূলের নেতাকর্মীদের হাতে দলের পতাকা তুলে দেন বিজেপির সোনামুখী নগর মণ্ডল সভাপতি তাপস মিত্র। নিজেকে ‘পাত্রসায়ের ব্লক তৃণমূল কংগ্রেস কোর কমিটির সদস্য’ দাবি করে ঝন্টু মিদ্যা বলেন, “তৃণমূলের জন্মলগ্ন থেকে দলটা করছি। এই দলটা করার অপরাধে এখনও পর্যন্ত ৬৭টা মামলা হয়েছে আমার বিরুদ্ধে।”

পঞ্চায়েত ভোটে মনোনয়নপত্র জমা দেওয়াকে কেন্দ্র তার পুরোনো দল ‘সন্ত্রাস’ করেছে দাবি করে তিনি বলেন, “পুরোনো কর্মীদের প্রতি এই পঞ্চায়েত ভোটে অবিচার করা হয়েছে।” তৃণমূল কংগ্রেস গণতন্ত্রকে ‘হত্যা’ করেছে দাবী করে তিনি বলেন, “মানুষের ভোটাধিকার প্রয়োগের অধিকারকে বঞ্চিত করে গায়ের জোরে বিষ্ণুপুর মহকুমার ত্রিস্তর পঞ্চায়েতের সব আসনে বিনা প্রতিদ্বন্দিতায় জয়ী হয়েছে শাসকদল।”

ঝন্টু মিদ্যার বিজেপিতে যোগদান সম্পর্কে তৃণমূল নেতৃত্ব সংবাদ মাধ্যমের কাছে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হয়নি। তবে সোনামুখী নগর মণ্ডল সভাপতি তাপস মিত্র সাংবাদিকদের বলেন, “তৃণমূল আজ জনবিচ্ছিন্ন। বিষ্ণুপুর মহকুমা এলাকার পঞ্চায়েত ভোটে মনোনয়নপত্র জমা দেওয়াকে কেন্দ্র করে শাসক দলের সন্ত্রাস মানুষ নিজেই প্রত্যক্ষ করেছেন।” অস্ত্র আর পেশিশক্তির জোরে বেশি দিন ক্ষমতা ধরে রাখা যায় না বলে মন্তব্য করেন এই বিজেপি নেতা।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here