ধৃত সীতারাম মণ্ডল।

নিজস্ব সংবাদদাতা, বাঁকুড়া: ভোটের মুখে ফের বিস্ফোরক উদ্ধার হল বাঁকুড়ায়। এ বার সরাসরি নাম জড়াল শাসক দলের।

শালতোড়ার পর এ বার ইন্দপুরে। শুক্রবার রাতে ইন্দপুর থানা এলাকার বগা গ্রামে অভিযান চালায় পুলিশ। গোপন সূত্রে খবর পেয়ে এই অভিযান বলে জানা গেছে। স্থানীয় সীতারাম মণ্ডল নামে এক ব্যক্তির বাড়ি থেকে ৮০০ ডিটোনেটর, ২০০ পাওয়ার জেল, ১ কুইন্টাল অ্যামোনিয়াম নাইট্রেট উদ্ধার করে পুলিশ। যার আনুমানিক বাজার মূল্য কয়েক লক্ষ টাকা।

বেআইনি ভাবে বিস্ফোরক মজুত রাখার কারণে এলাকায় তৃণমূল নেতা হিসেবে পরিচিত সীতারাম মণ্ডলকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। পুলিশের পক্ষ থেকে শনিবার তাকে খাতড়া মহকুমা আদালতে তোলা হচ্ছে।

এই বিষয়ে স্থানীয় বিজেপি নেতা লক্ষ্মণ মণ্ডল বলেন, “পঞ্চায়েত ভোটে যে ভাবে শাসকদল মানুষকে ভোট দিতে দেয়নি, আসন্ন লোকসভা ভোটেও সেই সন্ত্রাসের পরিবেশ সৃষ্টি করতে চেয়েছিল ওরা। এই ব্যাপারে জেলা দলীয় নেতৃত্বের তরফে নির্বাচন কমিশনে অভিযোগ জানানো হবে।”

আরও পড়ুনফের ভারতকে চ্যালেঞ্জ ছুড়ল মাসুদ আজহার

সিপিএম কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য অমিয় পাত্রের কথায়, “শুধুমাত্র ইন্দপুর নয়, জেলা ও রাজ্যে অসংখ্য তৃণমূল নেতার বাড়িতে, দলীয় কার্যালয়ে এ ধরনের বিস্ফোরক মজুত আছে। খয়রাশোলের ঘটনাই তার প্রমাণ। এখন পুলিশ নির্বাচন কমিশনের অধীনে। তাই কিছু এই ধরনের কাজ করে দেখাচ্ছে।”

যদিও তৃণমূলের পক্ষ থেকে বিষয়টি সম্পূর্ণ অস্বীকার করা হয়েছে। বিস্ফোরক মজুত রাখার দায়ে ধৃত সীতারাম মণ্ডল তাদের দলের নেতা বা কর্মী নয় বলেই দাবি করেছেন ইন্দপুর ব্লক তৃণমূলের সভাপতি সৌমিত্র পতি। এই ঘটনাকে বিরোধীদের চক্রান্ত বলে তাঁর দাবি।

কয়েক দিন আগেই শালতোড়ায় বিস্ফোরক উদ্ধার হয়েছিল। জেলার দুই জায়গায় বিপুল পরিমাণে বিস্ফোরক উদ্ধারের পর পর ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। পুলিশের তরফে ঘটনার তদন্ত চলছে বলে খবর।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here