Connect with us

রাজ্য

পরীক্ষা শুরুর কিছুক্ষণের মধ্যেই হোয়াটসঅ্যাপে মাধ্যমিকের বাংলা প্রশ্নপত্র

নিজস্ব প্রতিনিধি: প্রশ্নপত্র ফাঁস রুখতে একাধিক পদক্ষেপ গ্রহণ করেছিল মধ্যশিক্ষা পর্ষদ। মোবাইল ব্যবহারের ক্ষেত্রেও ছিল কঠোর নিয়ম। তবু প্রশ্নপত্র ফাঁস রোখা গেল না। মঙ্গলবার মাধ্যমিক পরীক্ষার প্রথম দিনেই বাংলা পরীক্ষা শুরুর ৩০ থেকে ৪০ মিনিটের মধ্যেই হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে বাইরে চলে এল প্রশ্নপত্রের প্রতিলিপি। একাধিক জেলা থেকে এই অভিযোগ এসেছে। পরীক্ষার প্রথম দিনেই কেমন করে প্রশ্নপত্র […]

Published

on

last minute preparation

নিজস্ব প্রতিনিধি: প্রশ্নপত্র ফাঁস রুখতে একাধিক পদক্ষেপ গ্রহণ করেছিল মধ্যশিক্ষা পর্ষদ। মোবাইল ব্যবহারের ক্ষেত্রেও ছিল কঠোর নিয়ম। তবু প্রশ্নপত্র ফাঁস রোখা গেল না।

মঙ্গলবার মাধ্যমিক পরীক্ষার প্রথম দিনেই বাংলা পরীক্ষা শুরুর ৩০ থেকে ৪০ মিনিটের মধ্যেই হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে বাইরে চলে এল প্রশ্নপত্রের প্রতিলিপি। একাধিক জেলা থেকে এই অভিযোগ এসেছে।

পরীক্ষার প্রথম দিনেই কেমন করে প্রশ্নপত্র বাইরে এল তা নিয়ে পর্ষদের কাছে রিপোর্ট তলব করলেন রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। প্রশ্নপত্র ফাঁস হয়ে যাওয়ার খবর পেয়েই বিধাননগর থানায় অভিযোগ দায়ের করেন পর্ষদের সভাপতি কল্যাণময় গঙ্গোপাধ্যায়।

মোবাইল ব্যবহারের ক্ষেত্রেও বুধবার থেকে নিষেধাজ্ঞা জারি করল মধ্যশিক্ষা পর্ষদ। এখন থেকে কেউ আর পরীক্ষাকেন্দ্রে মোবাইল ফোন নিয়ে আসতে পারবে না।

আরও পড়ুন মঙ্গলবার রাজ্যসভায় নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল এল না

মাধ্যমিক পরীক্ষায় এ বার পরীক্ষার্থীর সংখ্যা দশ লক্ষেরও বেশি। পরীক্ষা চলাকালীন যাতে কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটে, তার জন্য এ বছরই সর্বভারতীয় পরীক্ষার ধাঁচে প্রশ্নপত্রের বন্ধ প্যাকেট খোলা হয় পরীক্ষার হলে পরীক্ষার্থীদের সামনেই। মোবাইল ফোন ব্যবহারেও কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হয়। বলা হয়, পর্ষদের পাঁচ আধিকারিক ছাড়া কেউ মোবাইল ফোন ব্যবহার করতে পারবেন না। তার পরও মোবাইল ফোন ও সোশ্যাল মিডিয়ার হাত ধরে বাইরে চলে মাধ্যমিক পরীক্ষার বাংলা প্রশ্নপত্র।

এই প্রসঙ্গে পর্ষদ সভাপতি বলেন, দুপুর ১টা ৪৩ মিনিটে পর্ষদের উপ-সচিবের হোয়াটসঅ্যাপে একটি মেসেজ আসে। তাতে দেখা যায় মেসেজটি একটি প্রশ্নপত্রের প্রতিলিপি। মেসেজে আসা প্রশ্নপত্র ও আসল প্রশ্নপত্র মিলিয়ে দেখা হয়। দেখা যায়, দুটোই হুবহু এক। এ ব্যাপারে বিধাননগর সাইবার ক্রাইম থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়।

তবে পর্ষদের তরফে জানানো হয়েছে, যে হেতু পরীক্ষা শুরু হওয়ার অনেক পরে প্রশ্নপত্র প্রকাশ্যে আসার ঘটনা ঘটেছে, সে হেতু নির্ধারিত সূচি মেনেই পরীক্ষা চলবে। বাতিল হবে না বাংলা পরীক্ষা।

পর্ষদ সভাপতি বলেন, এটা নজরদারির অভাব নয়, আমাদের স্বভাবগত সমস্যা।

মঙ্গলবারের ঘটনার পর পরীক্ষার দ্বিতীয় দিন থেকে কেউ মোবাইল ফোন ব্যবহার করতে পারবেন না। শিক্ষক ও অশিক্ষক কর্মচারী, যাঁদের পরীক্ষাকেন্দ্রে এসে মোবাইল ফোন জমা দিয়ে কাজে নামার কথা ছিল, তাঁদেরও নতুন নির্দেশিকার ফলে আর মোবাইল নিয়ে আসা হবে না।

রাজ্য

রাজ্যে দৈনিক আক্রান্ত এবং মৃতের সংখ্যায় সামান্য বৃদ্ধি, ঊর্ধ্বমুখী সুস্থতা

দৈনিক আক্রান্ত এবং মৃতের সংখ্যা সামান্য বাড়লেও সুস্থতার হার বেড়ে হয়েছে ৮৭.৬৭ শতাংশ।

Published

on

কলকাতা: রবিবার রাজ্যের দৈনিক সংক্রমণ এবং মৃতের সংখ্যা সামান্য বাড়লেও সুস্থতার হার-ও ঊর্ধ্বমুখী। পাশাপাশি শেষ ২৪ ঘণ্টার পরিসংখ্যানে আগের মতোই উদ্বেগের কেন্দ্রে রয়ে গিয়েছে উত্তর ২৪ পরগনা এবং কলকাতা।

দীর্ঘ কয়েক মাস ধরে লকডাউনের পর ধাপে ধাপে খুলে গিয়েছে একাধিক ক্ষেত্র। ফলে এমন পরিস্থিতিতে ভাইরাসের সংক্রমণ ছড়ানোর আশঙ্কা অমূলক নয়। সেই জায়গায় দাঁড়িয়ে সুস্থতার হার বৃদ্ধি কিছুটা হলেও স্বস্তি জোগাচ্ছে সরকার থেকে সাধারণ মানুষকেও।

একই সঙ্গে যথাযথ সতর্কতা অবলম্বন করলে ভাইরাসের সংক্রমণ এড়ানো সম্ভব বলে জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। প্রশাসনের তরফেও প্রচার চলছে। বাইরে বের হলে মাস্ক এবং স্যানিটাইজার ব্যবহার ও শারীরিক দূরত্ব-সহ অন্যান্য স্বাস্থ্যবিধির উপর জোর দিলে সংক্রমণ এড়ানো সম্ভব।

রাজ্যের করোনা পরিস্থিতি

স্বাস্থ্য দফতর রবিবার জানায়, শেষ ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আক্রান্তের সংখ্যা ৩ হাজার ১৮৫। ফলে মোট সংক্রামিতের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ২ লক্ষ ৪৭ হাজার ৪২৫। উল্লেখ্য, গত শনিবারের পরিসংখ্যানে রাজ্য জানিয়েছিল, শেষ ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্তের সংখ্যা ৩ হাজার ১৮১। অর্থাৎ, বড়োসড়ো কোনো হেরফের না ঘটলেও তুলনামূলক ভাবে এ দিন আক্রান্তের সংখ্যা যৎসামান্য হলেও বেড়েছে।

অন্য দিকে শেষ ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ২ হাজার ৯৪৬ জন। এখনও পর্যন্ত মোট সুস্থ কোভিডরোগীর সংখ্যা ২ লক্ষ ১৬ হাজার ৯২১। সুস্থতার হার বেড়ে হয়েছে ৮৭.৬৭ শতাংশ। সারা দেশে সুস্থতার গড় হার যেখানে রয়েছে ৮২.৪৬ শতাংশ।

স্বাস্থ্য দফতরের তথ্য থেকে জানা যায়, শেষ ২৪ ঘণ্টায় মৃতের সংখ্যা ৬০। মোট মৃতের সংখ্যা পৌঁছেছে ৪ হাজার ৭৮১-তে। তবে মৃত্যুহারে তেমন কোনো হেরফের ঘটেনি। যা আগের দিনের মতোই রয়েছে ১.৯৩ শতাংশে।

নমুনা পরীক্ষা

গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে ৪৩ হাজার ৬১৮টি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। সব মিলিয়ে এখনও পর্যন্ত রাজ্যে মোট ৩০ লক্ষ ৯৮ হাজার ৬৫৭টি নমুনা পরীক্ষা হল। রাজ্যে বর্তমানে প্রতি দশ লক্ষ মানুষে ৩৪ হাজার ৪৩০ জনের করোনা পরীক্ষা হচ্ছে।

অন্য দিকে মোট টেস্ট করা নমুনার মধ্যে পজিটিভ হিসেবে শনাক্ত হয়েছে ৭.৯৮ শতাংশ।

উদ্বেগের কেন্দ্রে কলকাতা, উত্তর ২৪ পরগনা

এ দিনও কলকাতা এবং উত্তর ২৪ পরগনায় দৈনিক সংক্রমণের সংখ্যা ছ’শোর উপরে। তবে দুই জেলাতেই নতুন করে আক্রান্তের সংখ্যা কিছুটা হলেও হ্রাস পেয়েছে।

এ দিনেও নতুন সংক্রমণের নিরিখে কলকাতাকে ফের ছাপিয়ে গেল উত্তর ২৪ পরগণা। গত ২৪ ঘণ্টায় এই জেলায় নতুন করে ৬৭০ জন আক্রান্ত হয়েছেন। উত্তর ২৪ পরগণায় সুস্থ হয়েছেন ৫৩৪ জন, মৃতের সংখ্যা পাঁচ। অন্য দিকে ২৪ ঘণ্টায় কলকাতায় সংক্রামিত হয়েছেন ৬১৫ জন। সুস্থ হয়েছেন ৫৭৯ জন কোভিডরোগী, কিন্তু মৃতের সংখ্যা ১৭।

কলকাতা পার্শ্ববর্তী দক্ষিণ ২৪ পরগণায় আক্রান্ত হয়েছেন ২১১ জন, ছাড়া পেয়েছেন ২৩২ জন।

হাওড়ায় নতুন করে ১৮৯ জন কোভিডে আক্রান্ত হয়েছেন আর সুস্থ হয়েছেন ১৯৭ জন। অন্য দিকে হুগলিতে ১৬৪ জন আক্রান্ত হয়েছেন, আর ছাড়া পেয়েছেন ১৯৬ জন।

উত্তরবঙ্গে কিছুটা বেড়েছে অস্বস্তি

নতুন করে আক্রান্ত এবং সুস্থতার সংখ্যায় সামান্য হলেও বৃদ্ধি ধরা পড়েছে উত্তরবঙ্গের কয়েকটি জেলায়।

এ দিনও আলিপুরদুয়ার (৫৪), কোচবিহার (৮৯), দার্জিলিং (৮২), কালিম্পং (২০) জলপাইগুড়ি (৫৮), উত্তর দিনাজপুর (৬৮), দক্ষিণ দিনাজপুর (৬৪), মালদহ (৫৬) এবং মুর্শিদাবাদ (৬৫) জেলায় দৈনিক সংক্রমণের সংখ্যা কম-বেশি ওঠা-নামা করেছে।

আবার অন্যান্য জেলাগুলির মধ্যে নদিয়া (১১৭), বীরভূম (৭৭), পুরুলিয়া (৫৩), বাঁকুড়া (৭৩), ঝাড়গ্রাম (২৩) পশ্চিম মেদিনীপুর (১৪৬), পূর্ব মেদিনীপুর (১২৯), পূর্ব বর্ধমান (৫৬) এবং পশ্চিম বর্ধমান (১১১) জেলায় শেষ কয়েক দিনের মতোই হেরফের হয়েছে দৈনিক সংক্রমণ। *বন্ধনীতে শেষ ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্তের সংখ্যা।

আরও পড়তে পারেন: আক্রান্তের সংখ্যা ৬০ লক্ষ ছুঁইছুঁই, পাল্লা দিয়ে বাড়ছে সুস্থতার হার

Continue Reading

রাজ্য

২ নভেম্বর থেকে কলেজের ক্লাস অনলাইনে, সাফ জানালেন শিক্ষামন্ত্রী

স্নাতকোত্তরের পড়ুয়াদের জন্য নভেম্বরের শেষ অথবা ডিসেম্বরে ক্লাস শুরু হবে।

Published

on

কলকাতা: বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (UGC)-র প্রস্তাবে সায় দিয়ে আগামী ২ নভেম্বর থেকেই কলেজের ক্লাস শুরুর বিষয়ে প্রাথমিকভাবে সম্মত হয়েছিলেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। রবিবার শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে উপাচার্যদের ভার্চুয়ালি বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। তবে বৈঠকের শেষে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে শিক্ষামন্ত্রী সাফ জানিয়ে দেন, বর্তমান পরিস্থিতিতে কোনো ভাবে কলেজ কিংবা বিশ্ববিদ্যালয়ে শারীরিক উপস্থিতি সম্ভব নয়।

উপাচার্যদের সঙ্গে শিক্ষামন্ত্রীর বৈঠকে প্রাথমিক ভাবে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়, ২ নভেম্বর থেকে কলেজের স্নাতক স্তরের ক্লাস শুরু হবে। স্নাতকোত্তরের পড়ুয়াদের জন্য নভেম্বরের শেষ অথবা ডিসেম্বরে ক্লাস শুরু হবে। একই সঙ্গে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, “আগামী ২ নভেম্বর থেকে কলেজে ক্লাস নেওয়া হবে। তবে তা হবে অনলাইনে।” 

ইউজিসির নির্দেশিকা টুইটারে পোস্ট করে কেন্দ্রীয় শিক্ষামন্ত্রী রমেশ পোখরিওয়াল নিশঙ্ক জানিয়েছিলেন, ২০২০-২১ বর্ষের শিক্ষাবর্ষ শুরু হবে ১ নভেম্বর থেকে। ফলে তার আগেই মেরিট অথবা এন্ট্রাস-ভিত্তিক ভরতি প্রক্রিয়া সেরে ফেলতে হবে।

রাজ্যে ভরতি স্নাতক স্তরে প্রক্রিয়া শেষ হবে ৩০ সেপ্টেম্বর। আবার নভেম্বরে পুজোর ছুটি। ফলে এমন পরিস্থিতিতে নভেম্বরে কী ভাবে ক্লাস শুরু হবে, তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। আবার ১০ মাসের কম সময়ে কী ভাবে সিলেবাস শেষ হবে, তা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছে রাজ্য।

এ ব্যাপারে রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় বলেন, “উনি (পোখরিয়াল) ট্যুইট করেছেন। আদেশনামা এলে আমরা ইউনিভার্টির সঙ্গে কথা বলব। তার পর মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা করব। কিন্তু সময় কমলে সিলেবাস শেষ হবে কী করে। পিজি-তে ভর্তি তো নভেম্বরে। সমস্যা তো আসবেই”।

এ দিন উপাচার্যদের ভার্চুয়ালি বৈঠকে তিনি জানিয়ে দিয়েছেন শিক্ষাবর্ষ কী ভাবে চলবে তা বিশ্ববিদ্যালয়গুলির উপরেই নির্ভর করবে। অর্থাৎ এ ক্ষেত্রে বিশ্ববিদ্যালয়গুলি চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে কবে পরীক্ষা হবে এবং কবে ক্লাস নেওয়া হবে।

অন্য দিকে কলেজের ক্লাস শুরুর প্রসঙ্গে শিক্ষামন্ত্রী এ দিন বলেন, পরিস্থিতি বিচার করে শিক্ষাবর্ষ এক মাস পিছিয়ে শুরু করার প্রস্তাব দেওয়া হবে মুখ্যমন্ত্রীকে।

Continue Reading

রাজ্য

সিঙ্গুর প্রসঙ্গ টেনে বিজেপি-সঙ্গ ত্যাগকারী অকালি দলকে সমর্থন তৃণমূলের

কৃষকদের পাশে থাকার অবস্থানকে সমর্থন জানালেন তৃণমূল সাংসদ ডেরেক ও’ব্রায়েন।

Published

on

কৃষি বিলের বিরুদ্ধে তৃণমূলের প্রতিবাদ

খবর অনলাইন ডেস্ক: সংসদে সদ্য পাশ হওয়া কৃষি বিলের প্রতিবাদে বিজেপি-সঙ্গ ত্যাগ করেছে পুরনো সঙ্গী শিরোমণি অকালি দল। গত শনিবার অকালি দলের সিদ্ধান্ত ঘোষণার পর তাদের সমর্থন জানাল পশ্চিমবঙ্গের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস।

তৃণমূলের রাজ্যসভার সাংসদ ডেরেক ও’ব্রায়েন বলেন, “আমরা সুখবীর সিং বাদল এবং অকালি দলের কৃষকদের সঙ্গে থাকার অবস্থানকে সমর্থন করছি। কৃষকদের জন্য লড়াই তৃণমূল কংগ্রেসের অবিচ্ছেদ্য একটি অংশ”।

সিঙ্গুর প্রসঙ্গ তুলে ধরে ডেরেক বলেন, “২০০৬ সালে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কৃষকদের অধিকার রক্ষার লড়াইয়ে ঐতিহাসিক ২৬ দিনের অনশন করে নিজের জীবনের ঝুঁকি নিয়েছিলেন। ফলে আমরাও কেন্দ্রের কৃষিক্ষেত্রে সংস্কার সংক্রান্ত বিলের বিরোধিতা করছি। ওই বিলগুলি রাজ্যের ভূমিকা, ন্যূনতম সহায়ক মূল্য, গণবণ্টন ব্যবস্থা এবং সরবরাহকে বিপন্ন করে তুলছে”।

উল্লেখ্য, কৃষি ক্ষেত্র নিয়ে চলতি মাসের গোড়ায় যে তিনটি বিতর্কিত বিল গৃহীত হয়েছে, তারই প্রতিবাদে এর আগেই কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা থেকে পদত্যাগ করেন অকালি দলের সাংসদ হরসিমরত কউর বাদল। কৃষি বিলের প্রতিবাদে দেশজোড়া বিক্ষোভের মধ্যেই গত শনিবার চূড়ান্ত পদক্ষেপ হিসেবে বিজেপির সঙ্গ ত্যাগ করে অকালি দল।

আরও পড়তে পারেন: বিতর্কিত কৃষি বিলের বিরোধিতায় বিজেপি-সঙ্গ ত্যাগ করল অকালি দল

কৃষি বিলের প্রতিবাদে রাজ্য জুড়ে বিক্ষোভ দেখাচ্ছে তৃণমূল। গত মঙ্গলবার মেয়ো রোডে গান্ধী মূর্তির পাদদেশে বিক্ষোভ-অবস্থান করে মহিলা তৃণমূল কর্মীরা। পাশাপাশি দলের তরফে গোটা রাজ্য জুড়েই একাধিক কর্মসূচি নেওয়া হয়েছে। আন্দোলনে নেমেছে বিভিন্ন কৃষক সংগঠন এবং সিপিএম-সহ অন্য়ান্য বামপন্থী দলগুলি।

কৃষি বিলগুলিকে ঘিরে ‘ন্যূনতম সহায়ক মূল্য সম্পর্কে উদ্বেগ ভিত্তিহীন নয়’ বলে দাবি করেছেন হরিয়ানার দুই বিজেপি নেতা তথা প্রাক্তন বিধায়ক পরমিন্দর সিং ধুল এবং রামপাল মাজরা। একই সঙ্গে তাঁরা বিলগুলিকে ‘কৃষক বিরোধী এবং জনবিরোধী’ হিসেবেও অভিহিত করেছেন।

Continue Reading
Advertisement
Balasaheb Thorat
দেশ1 hour ago

রাষ্ট্রপতির সম্মতি মিললেও নয়া তিন কৃষি আইন কার্যকর করবে না মহারাষ্ট্র, হুঁশিয়ারি মন্ত্রীর

রাজ্য2 hours ago

রাজ্যে দৈনিক আক্রান্ত এবং মৃতের সংখ্যায় সামান্য বৃদ্ধি, ঊর্ধ্বমুখী সুস্থতা

farm bills protest
দেশ3 hours ago

নাটকীয় ভাবে সংসদে পাশ হওয়া কৃষি বিলে স্বাক্ষর রাষ্ট্রপতির

দেশ3 hours ago

সেরো সার্ভের রিপোর্ট তুলে ধরে কোভিড নিয়ে সতর্ক করলেন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী

দেশ4 hours ago

জল্পনার অবসান! নীতীশ কুমারের দলে যোগ দিলেন বিহারের প্রাক্তন ডিজি

রাজ্য6 hours ago

২ নভেম্বর থেকে কলেজের ক্লাস অনলাইনে, সাফ জানালেন শিক্ষামন্ত্রী

রাজ্য6 hours ago

সিঙ্গুর প্রসঙ্গ টেনে বিজেপি-সঙ্গ ত্যাগকারী অকালি দলকে সমর্থন তৃণমূলের

adar poonawala and narendra modi
দেশ7 hours ago

ভারতে তৈরি ভ্যাকসিন নিয়ে গোটা বিশ্বকে আশ্বাস নরেন্দ্র মোদীর, স্বাগত জানালেন সেরাম কর্ণধার

কেনাকাটা

কেনাকাটা2 days ago

নতুন কালেকশনের ১০টি জুতো, ১৯৯ টাকা থেকে শুরু

খবর অনলাইন ডেস্ক : পুজো এসে গিয়েছে। কেনাকাটি করে ফেলার এটিই সঠিক সময়। সে জামা হোক বা জুতো। তাই দেরি...

কেনাকাটা3 days ago

পুজো কালেকশনে ৬০০ থেকে ১০০০ টাকার মধ্যে চোখ ধাঁধানো ১০টি শাড়ি

খবর অনলাইন ডেস্ক: পুজোর কালেকশনের নতুন ধরনের কিছু শাড়ি যদি নাগালের মধ্যে পাওয়া যায় তা হলে মন্দ হয় না। তাও...

কেনাকাটা5 days ago

মহিলাদের পোশাকের পুজোর ১০টি কালেকশন, দাম ৮০০ টাকার মধ্যে

খবরঅনলাইন ডেস্ক : পুজো তো এসে গেল। অন্যান্য বছরের মতো না হলেও পুজো তো পুজোই। তাই কিছু হলেও তো নতুন...

কেনাকাটা1 week ago

সংসারের খুঁটিনাটি সমস্যা থেকে মুক্তি দিতে এই জিনিসগুলির তুলনা নেই

খবরঅনলাইন ডেস্ক : নিজের ও ঘরের প্রয়োজনে এমন অনেক কিছুই থাকে যেগুলি না থাকলে প্রতি দিনের জীবনে বেশ কিছু সমস্যার...

কেনাকাটা2 weeks ago

ঘরের জায়গা বাঁচাতে চান? এই জিনিসগুলি খুবই কাজে লাগবে

খবরঅনলাইন ডেস্ক : ঘরের মধ্যে অল্প জায়গায় সব জিনিস অগোছালো হয়ে থাকে। এই নিয়ে বারে বারেই নিজেদের মধ্যে ঝগড়া লেগে...

কেনাকাটা2 weeks ago

রান্নাঘরের জনপ্রিয় কয়েকটি জরুরি সামগ্রী, আপনার কাছেও আছে তো?

খবরঅনলাইন ডেস্ক: রান্নাঘরের এমন কিছু সামগ্রী আছে যেগুলি থাকলে কাজ করাও যেমন সহজ হয়ে যায়, তেমন সময়ও অনেক কম খরচ...

কেনাকাটা3 weeks ago

ওজন কমাতে ও রোগ প্রতিরোধশক্তি বাড়াতে গ্রিন টি

খবরঅনলাইন ডেস্ক : ওজন কমাতে, ত্বকের জেল্লা বাড়াতে ও করোনা আবহে যেটি সব থেকে বেশি দরকার সেই রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা...

কেনাকাটা3 weeks ago

ইউটিউব চ্যানেল করবেন? এই ৮টি সামগ্রী খুবই কাজের

বহু মানুষকে স্বাবলম্বী করতে ইউটিউব খুব বড়ো একটি প্ল্যাটফর্ম।

কেনাকাটা1 month ago

ঘর সাজানোর ও ব্যবহারের জন্য সেরামিকের ১৯টি দারুণ আইটেম, দাম সাধ্যের মধ্যে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: ঘর সাজাতে কার না ভালো লাগে। কিন্তু তার জন্য বাড়ির বাইরে বেরিয়ে এ দোকান সে দোকান ঘুরে উপযুক্ত...

কেনাকাটা1 month ago

শোওয়ার ঘরকে আরও আরামদায়ক করবে এই ৮টি সামগ্রী

খবর অনলাইন ডেস্ক : সারা দিনের কাজের পরে ঘুমের জায়গাটা পরিপাটি হলে সকল ক্লান্তি দূর হয়ে যায়। সুন্দর মনোরম পরিবেশে...

নজরে