পুরীর নিয়ম মেনে শুক্রবার উলটোরথে মেতে উঠবে মাহেশ

মাহেশের জগন্নাথ মন্দিরে।
পাপড়ি চক্রবর্তী

শ্রীরামপুর: ক্যালেন্ডার অনুযায়ী বৃহস্পতিবার উলটোরথ। কিন্তু পুরীর নিয়ম মানা হয় বলে শুক্রবার উলটোরথে মেতে উঠবে শ্রীরামপুরের মাহেশ।

গত বৃহস্পতিবার রথের দিন হাজারো মানুষের সমাগমে রথের রশিতে টান দেওয়া হয়েছিল। তার আট দিন পর, শুক্রবার আবার রশিতে টান পড়বে। সেই সঙ্গে শুক্রবারই মাহেশের জগন্নাথ মন্দিরে জগন্নাথদেবকে স্পর্শ করে প্রণাম করতে পারবেন দর্শনার্থীরা।

শুক্রবারের পর জগন্নাথদেবের পা ছুঁতে গেলে আবার এক বছর অপেক্ষা করতে হবে। এই প্রসঙ্গে জগন্নাথ মন্দিরের সেবায়েত তমালকৃষ্ণ অধিকারী বলেন, “সোজা রথ এবং উলটো রথেই একমাত্র জগন্নাথদেবকে ছুঁয়ে প্রণাম করা যায়।” সেই জন্য অন্যান্য দিনের থেকে শুক্রবার মন্দিরের আচারেও কিছু পরিবর্তন করা হয়েছে।

তমালকৃষ্ণবাবু বলেন, “উলটো রথ উপলক্ষ্যে শুক্রবার ভোর ৫টায় মন্দির খুলে যাবে। অন্যান্য দিন ভোগ হয় দুপুর বারোটায় কিন্তু এ দিন ভোগ হবে সকাল আটটায়। তার পর ঠাকুরকে বেদি থেকে নামানো হবে। বেদিতে থাকলে ঠাকুরকে স্পর্শ করা যায় না। সেই কারণেই ঠাকুরকে নামানো হবে যাতে সবাই স্পর্শ করতে পারেন।”

পুরীর পরে মাহেশের রথে টান পড়বে বলে জানান তমালকৃষ্ণবাবু। তিনি বলেন, “আমাদের একদম উৎকল মত মেনে সব কিছু হয়। আগে পুরীর টান তার পর আমাদের টান। আগে পুরীর স্নান, তার পর আমাদের স্নান।”

আরও পড়ুন আবেগঘন বার্তা দিয়ে ভারতীয় দলকে বিদায় জানালেন গুরুত্বপূর্ণ সদস্য

শুক্রবার বিকেল ৩টেয় রথের দড়িতে টান পড়বে বলে জানান মন্দিরের সেবায়েত। তাঁর কথায়, “আড়াইটেয় দামোদর হবে। তারপর একে একে রথে উঠবেন মা সুভদ্রা, বলভদ্রদেব এবং জগন্নাথদেব। এর পর রথের মাথায় রাজবেশ হবে।” সব মিলিয়ে উলটোরথের জন্য প্রস্তুতি তুঙ্গে মাহেশে। এরই মধ্যে মাহেশের রথের মেলায় বেশ জমে উঠেছে।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*


This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.