‘ছেলের মৃত্যুর জন্য দায়ী বউমা’, তরুণীর ওপর অ্যাসিড হামলা শ্বশুরবাড়ির লোকজনদের

0
acid

মালদা: তাঁর প্ররোচনাতেই স্বামী আত্মহত্যা করেছিলেন। এই অভিযোগে এক তরুণীকে গ্রেফতার করা হলেও তাঁকে সদ্য জামিন দিয়েছে আদালত। কিন্তু তার পর ওই তরুণীর ওপর যা ঘটল, সেটা আরও ভয়াবহ।

ওই তরুণীর ওপরে অ্যাসিড হামলার অভিযোগ উঠেছে শ্বশুরবাড়ির লোকজনদের বিরুদ্ধে। মালদা শহরের পশ্চিম সুকান্তপল্লির ঘটনায় রীতিমতো চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে।

আক্রান্ত ওই তরুণী বর্তমানে মালদহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভরতি। ইংরেজবাজার থানার পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে। তবে অভিযুক্তরা পলাতক।

উল্লেখ্য, মাস তিনেক আগে চলন্ত ট্রেনের সামনে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যা করেন ওই তরুণীর স্বামী। স্বামীকে আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেওয়ার অভিযোগ ওঠে ওই তরুণীর বিরুদ্ধে। তরুণীর বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগও দায়ের করেন নিহতের পরিজনেরা।

এর পরই ইংরেজবাজার থানার পুলিশ তরুণীকে গ্রেফতার করে। প্রায় আড়াই মাস জেল হেফাজতে থাকার পর রবিবারই জেল থেকে ছাড়া পান ওই তরুণী।

অভিযোগ, বদলা নিতে শ্বশুরবাড়ির লোকজন তাকে লক্ষ্য করে অ‍্যাসিড ছুড়ে পুড়িয়ে খুনের চেষ্টা করে। আক্রান্ত তরুণীর মায়ের দাবি, শুক্রবার রাতে তরুণীর শ্বশুরবাড়ির পরিবারের লোকজন তাঁর বাপের বাড়িতে ভাঙচুর চালায়। তরুণীর বাড়ি থেকে সোনা ও নগদ টাকাও তাঁর শ্বশুরবাড়ির লোকজনেরা লুট করে বলেও অভিযোগ। এর পরই তরুণীর গায়ে অ্যাসিড ছুড়ে দেওয়া হয়।

তড়িঘড়ি তাকে উদ্ধার করে মালদা মেডিক‍্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। চিকিৎসকেরা জানিয়েছেন, অ্যাসিড হামলায় শরীরের বেশ কয়েকটি অংশ পুড়ে গিয়েছে জামিনে মুক্ত ওই গৃহবধূর।

আরও পড়ুন ‘নতুন আইনের ব্যাপারে মানুষকে বোঝাতে ব্যর্থ কেন্দ্র’, এ বার অসন্তুষ্ট পঞ্চম শরিকও

এর পরেই ১২ জনের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের করেন ওই তরুণীর পরিবারের লোকজন। তবে শনিবার সকাল পর্যন্ত কাউকে গ্রেফতার করা যায়নি।

------------------------------------------------
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.