পশ্চিমবঙ্গে গো-হত্যা, চুরি নিয়ে চাঞ্চল্যকর অভিযোগ যোগী আদিত্যনাথের

0

খবর অনলাইন ডেস্ক: মঙ্গলবার মালদহের গাজোল কলেজ মাঠের সভা থেকে তৃণমূলকে নিশানা করলেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ।

বিধানসভা ভোটের দিনক্ষণ ঘোষণা হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে প্রচার তুঙ্গে। এ দিন বিজেপির সভায় অংশ নিয়ে আদিত্যনাথ বলেন, “আজ বাংলায় দারিদ্র্য ও দুর্দশা রয়েছে। কেন্দ্রীয় সরকারের কল্যাণমূলক পরিকল্পনাগুলি বাংলায় বাস্তবায়িত করতে দেওয়া হচ্ছে না”।

Loading videos...

তিনি বলেন, “বাংলায় বেড়ে ওঠা সন্ত্রাসবাদ শুধুমাত্র এখানকার সুরক্ষার সামনেই একটি সংকট সৃষ্টি করছে না, এটা সারা দেশের নিরাপত্তার সামনে চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়াচ্ছে”।

তাঁর কথায়, “এখন বাংলায় অপরাধ, অরাজকতা বেড়েছে। বাংলায় দুর্গাপুজো করতে দেওয়া হয় না। দুর্গাপুজো করতে এখানে সমস্যায় পড়তে হয়, মহরমের অনুমতি দেওয়া হয়। ইদে জোর করে গো-হত্যা শুরু হয়”।

তিনি বলেন, “বিজেপি ক্ষমতায় এসে গো-হত্যা, পাচার বন্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। উত্তরপ্রদেশে কেউ গো-হত্যা করতে পারেন না, অথচ এখানে গোরুপাচার হচ্ছে। বিজেপিকে আনুন, গোরুচুরি, অরাজকতা বন্ধ হয়ে যাবে “।

তিনি আরও বলেন, “২৫-৩০ বছর আগেও উত্তরপ্রদেশের যুবকরা বাংলায় চাকরির জন্য আসত। এখন বাংলার যুবকরা কর্মসংস্থানের জন্য দিল্লি ও উত্তরপ্রদেশে আসে। প্রতারণা করে লাভ জিহাদের ঘটনা ঘটছে। আমরা উত্তরপ্রদেশে এ নিয়ে আইন করেছি”।

তাঁর অভিযোগ, “আজ বাংলায় জয় শ্রীরাম বললে বাধা দেওয়া হয়। রামনাম যাঁদের অপছন্দ, দেশে এবং বাংলায় তাঁদের কোনো জায়গা নেই। আমাদের এই অঙ্গীকার করতে হবে”।

উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী আরও বলেন, “আমি মমতাদিদির উদ্দেশে বলতে চাই যে একসময় উত্তরপ্রদেশে এমন একটি সরকার ছিল যারা অযোধ্যায় রাম ভক্তদের উপর গুলি চালাত, আপনি সেই সরকারের পরিণতি কী হয়েছে, তা আপনি নিশ্চয় দেখেছেন। এ বার বাংলায় তৃণমূল সরকারের পালা”।

আরও পড়তে পারেন: কেন্দ্রীয় সরকারি পদ থেকে ইস্তফা দিলেন শুভেন্দু অধিকারী

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.