Connect with us

রাজ্য

স্কুলের মধ্যেই শিক্ষকের বিরুদ্ধে ছাত্রীদের শ্লীলতাহানির অভিযোগ, রণক্ষেত্র মালদহের ইংরেজবাজার

ওয়েবডেস্ক: স্কুলের ভিতরেই ছাত্রীর শ্লীলতাহানির অভিযোগ ঘিরে রণক্ষেত্রের আকার নিল মালদহের ইংরেজবাজার। স্থানীয় জে এম সেঠিয়া হিন্দি বিদ্যালয়ে শিক্ষকের বিরুদ্ধে ছাত্রীর শ্লীলতাহানির অভিযোগ ওঠে। খবর যায় অভিভাবকদের কাছে। তাঁরা স্কুলে চড়াও হন। পরিস্থিতি সামাল দিতে আসে বিশাল পুলিশ বাহিনী।

বুধবার ওই স্কুলের দুই শিক্ষকের বিরুদ্ধে অভব্য আচরণের অভিযোগ করে ছাত্রীদের একাংশ। তারা অভিযোগ করে, ওই দুই শিক্ষক প্রায়শই ছাত্রীদের গায়ে হাত দেন। কিন্তু এ দিন এক ছাত্রীকে একটি ঘরে নিয়ে গিয়ে শ্লীলতাহানির অভিযোগ ঘিরে উত্তেজক পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়। কী ভাবে বাঁধল গন্ডগোল?

এ দিন শ্লীলতাহানির অভিযোগ ওঠার পরই তড়িঘড়ি স্কুল ছুটি দিয়ে হয় বলে ছাত্রদের দাবি। সমস্ত পড়ুয়াকে স্কুলের বাইরে বের করে দেওয়া হয়। পড়ুয়ারা এর পর জোর করে স্কুলের গেট ভেঙে ভিতরে ঢোকার চেষ্টা করে। এই খবর পৌঁছায় অভিভাবকদের কাছেও। তাঁরা রীতিমতো জোট বেঁধে স্কুলে চলে আসেন। এই বিশৃঙ্খল পরিস্থিতি সামাল দিতে আসে পুলিশ বাহিনী। ফাটানো হয় কাঁদানে গ্যাসের সেল।

অভিযোগ, পুলিশ লাঠি চালায়। এমনকী সিভিক ভলান্টিয়াররা পর্যন্ত পড়ুয়াদের উদ্দেশে লাঠি উঁচিয়ে ছুটে যায় বলে অভিযোগ। উলটো দিকে পুলিশের দাবি, ইটবৃষ্টি করেন অভিভাবকরা। অভিভাবকরাই পুলিশের দিকে লাঠি-বাঁশ নিয়ে তেড়ে আসেন বলে পুলিশের দাবি।

[ আরও পড়ুন: মদ্যপ অবস্থায় স্কুলে পৌঁছেছিলেন শিক্ষক, ছিল না বসার মতো শক্তি, সাসপেন্ড করলেন জেলাশাসক ]

অভিভাবকদের দাবি, ওই দুই শিক্ষককে বহিষ্কার করতে হবে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এলেও এলাকায় মোতায়েন রয়েছে বিশাল পুলিশ বাহিনী।

রাজ্য

ফের উচ্চ মাধ্যমিকের বাকি পরীক্ষার সূচি বদল

Madhyamik examination west bengal

কলকাতা: আবার একবার উচ্চ মাধ্যমিকের বাকি পরীক্ষার সূচি বদল করল রাজ্য সরকার। আগামী ২৯ জুন থেকে বাকি তিনটি পরীক্ষার কথা ঘোষণা করা হয়েছিল। তবে পরিবহণ এবং আনুষঙ্গিক সমস্যার কারণে পরীক্ষাগুলি ২ জুলাই থেকে শুরু হবে। অর্থাৎ, আগামী ২৯ জুন নির্ধারিত পরীক্ষাগুলি হচ্ছে না।

মঙ্গলবার রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় (Partha Chatterjee) জানান, আগামী ২, ৬ এবং ৮ জুলাই উচ্চ মাধ্যমিকের (Higher Secondary) বাকি পরীক্ষাগুলি হবে। কোন দিনে কী পরীক্ষা হবে, তা উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা সংসদ জানিয়ে দেবে।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, “২৯ জুন কোনো পরীক্ষা হচ্ছে না। তার পরিবর্তে ২, ৬ এবং ৮ জুলাই বাকি পরীক্ষা হবে। তবে আগের মতোই শারীরিক দূরত্ব, মুখে মাস্ক, স্যানিটাইজার এবং করোনাভাইরাস (Coronavirus) থেকে বাঁচতে যা যা দরকারি ব্যবস্থা, সবই নেওয়া হবে। পরীক্ষা নিয়ে পরীক্ষার্থীকেও সচেতনতা বজায় রাখতে হবে”।

ওই তিন দিন ফিজিক্স, কেমেস্ট্রি, ইকোনমিক্স-সহ আরও বেশ কয়েকটি পরীক্ষা নেওয়া হবে। তবে করোনা প্রতিরোধের বিষয়গুলি গুরুত্ব সহকারে মেনে চলতে হবে বলে জানানো হয়েছে।

এখনও পর্যন্ত যে পরীক্ষাগুলি বাকি রয়েছে সেগুলি হল ফিজিক্স, নিউট্রেশন, এডুকেশন ও অ্যাকাউন্টেন্সি, কেমিস্ট্রি, ইকোনমিক্স, জার্নালিজম অ্যান্ড মাস কমিউনিকেশন, সংস্কৃত, পার্শিয়ান, অ্যারাবিক এবং ফ্রেঞ্চ, স্ট্যাটিসটিকস, ভূগোল, কস্টিং অ্যান্ড ট্যাক্সেশন এবং হোম ম্যানেজমেন্ট অ্যান্ড ফ্যামিলি রিসোর্স ম্যানেজমেন্ট।

Continue Reading

রাজ্য

বেসরকারি বাসের ভাড়া নির্ধারণে রেগুলেটরি কমিটি

কলকাতা: বেসরকারি বাসের ভাড়া নির্ধারণে গঠিত হচ্ছে রেগুলেটরি কমিটি। রাজ্য সরকারের ঘোষণা মতো আগামী ৮ জুন থেকে সরকারি-বেসরকারি সংস্থাগুলি খুলে গেলে সাধারণ মানুষকে যাতে পরিবহণ সংক্রান্ত সমস্যায় না পড়তে হয়, সে দিকে তাকিয়েই রাস্তায় বেসরকারি বাস (Private Bus) নামানোর তোড়জোড় চলছে জোরকদমে।

এ দিন রাজ্য সরকারের সঙ্গে আলোচনা হয় বেসরকারি বাসমালিক সংগঠনগুলির। সরকারের সঙ্গে আলোচনায় বেসরকারি বাসের ভাড়া নির্ধারণে রেগুলেটরি কমিটি গঠনের প্রস্তাব গৃহীত হয়। তবে ঠিক কবে থেকে রাস্তায় বেসরকারি বাস নামবে, সে বিষয়টি এখনও নির্দিষ্ট হয়নি।

এ ব্যাপারে বেসরকারি বাসমালিক সংগঠনগুলি জানায়, “আলোচনা ইতিবাচক হয়েছে। খুব শীঘ্রই রাস্তায় বেসরকারি বাস নামবে। দু’-এক দিনের মধ্যেই বেসরকারি বাস চলতে পারে”।

করোনাভাইরাস (Coronavirus) সংক্রমণ মোকাবিলায় বাসের যাত্রী সংখ্যা বেঁধে দিয়েছে রাজ্য সরকার। বলা হয়েছে, বাসে যতগুলি আসন রয়েছে, ততজনই যাত্রী তোলা যাবে। কেউ দাঁড়িয়ে যেতে পারবেন না। এমন পরিস্থিতিতে বাসমালিকদের দাবি, কম সংখ্যক যাত্রী নিয়ে বাস চালালে লোকসানের মুখে পড়তে হবে। ফলে ভাড়া বাড়ানো হোক।

এ দিন রাজ্যের কাছে স্মারকলিপি জমা করে সংগঠনগুলি। তবে কবে থেকে রাস্তায় বেসরকারি বাস নামবে অথবা ভাড়া বাড়বে কি না, এ বিষয়ে নির্দিষ্ট কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি বলে জানিয়েছেন বাসমালিকপক্ষ।

প্রসঙ্গত,  ইতিমধ্যেই রাস্তায় চলছে সরকারি বাস। প্রথমে স্থির মাত্র ২০ জন যাত্রী নিয়ে বাস চালানো যাবে। সম্প্রতি সেই সংখ্যা বাড়ানো হয়েছে। তবে কোনো যাত্রী দাঁড়িয়ে যেতে পারবেন না বলায় বেসরকারি বাস মালিক সংগঠনের আপত্তির ভাড়া বাড়ানোর দাবি তুলেছে। তাদের মতে, বর্তমানে বাসের যাত্রী প্রতি ন্যূনতম ভাড়া ৭-৮ টাকা। ফলে বাসে যাত্রী শুধুমাত্র আসনের সমান সংখ্যক যাত্রী পরিবহণ করতে হয়, তা হলে লোকসানের মুখে পড়তে হবে মালিকদের। যে কারণে আপাতত ভাড়াবৃদ্ধির দাবিতে অনড় সংগঠনগুলি রাজ্যকে স্মারকলিপি দেয়।

Continue Reading

রাজ্য

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ইচ্ছা শীঘ্রই পূরণ হবে, হাসতে হাসতে বললেন অমিত শাহ

Mamata and Amit

ওয়েবডেস্ক: কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ মঙ্গলবার দাবি করেন, আগামী ২০২১ সালের বিধানসভা নির্বাচনে নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে পশ্চিমবঙ্গের ক্ষমতায় আসছে বিজেপি।

কয়েক দিন আগেই বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee) জানান, এমন একটা কঠিন সময়েই কেউ কেউ রাজনীতি করছেন। এমন পরিস্থিতিতে তিনি কিছুটা বিরক্ত হয়েই বলেন, “অমিত শাহকে (Amit Shah) বলেছিলাম সরকার ভেঙে দিন”।

মুখ্যমন্ত্রীর এহেন উক্তি শুনে অমিত না কি তাঁকে বলেন, “নির্বাচিত সরকারকে কী ভাবে ভাঙব”?

তবে এ দিন নেটওয়ার্ক ১৮’র প্রধান সম্পাদক রাহুল যোশীর কাছে একটি সাক্ষাৎকারে অমিত বলেন, “যদি মমতাজির ইচ্ছে থাকে যে, বিজেপি পশ্চিমবঙ্গে সরকার চালাক, তা হলে আমি প্রতিজ্ঞা করছি, তাঁর সেই ইচ্ছে শীঘ্রই পূরণ হবে। বাংলার মানুষ পরিবর্তনের দিকে তাকিয়ে রয়েছেন”।

একই সঙ্গে অমিত হাসতে হাসতে বলেন, “আমি তো বাংলা চালাতে পারব না, কারণ আমি একজন সাংসদ। কিন্তু আমি নিশ্চিত করছি, আগামী বিধানসভা ভোটে নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে বিজেপি পশ্চিমবঙ্গে সরকার গড়বে”।

দিন দুয়েক আগেই মুখ্যমন্ত্রী লকডাউনে আটকে পড়া অভিবাসী শ্রমিকদের রাজ্যে ফেরানো নিয়ে কেন্দ্রীয় সরকারকে নিশানা করেন। এ ব্যাপারে অমিত বলেন, “বিহার অথবা উত্তরপ্রদেশের মতো রাজ্যগুলো এক হাজারের বেশি ট্রেন নিয়েছে। বাংলায় এখনও একশো ট্রেন ঢোকেনি। বাঙালিরা কী এমন দোষ করেছেন, যে নিজের রাজ্যে ফেরত যেতে পারবেন না”?

Continue Reading

ট্রেন্ড্রিং