‘জয় শ্রীরাম’ নিয়ে মমতার প্রতিক্রিয়ায় কড়া মন্তব্য অপর্ণা সেনের

0
Aparna Sen

ওয়েবডেস্ক: রাজ্য-রাজনীতির নতুন বিতর্কের বিষয় ‘জয় শ্রীরাম’ ধ্বনি। রাজ্যের শাসকদল তৃণমূল এবং বিরোধী বিজেপির মধ্যে এই ধ্বনিকে কেন্দ্র করেই চলছে তীব্র চাপান-উতোর। সেই বিতর্কেই মুখ খুললেন জাতীয় পুরস্কারপ্রাপ্ত চলচ্চিত্র অভিনেতা-পরিচালক অপর্ণা সেন।

অপর্ণা এনডিটিভিকে দেওয়া একটি সাক্ষাৎকারে বলেন, “রাজনীতিতে ধর্মীয় স্লোগানের ব্যবহার ব্যক্তিগত ভাবে আমার ভালো লাগে না। ধর্ম এবং রাজনীতি কখনোই গুলিয়ে ফেলা উচিত নয়। কারণ ধর্ম এবং রাজনীতি গুলিয়ে ফেললেই সমস্ত রকমের সমস্যা দেখা দিতে পারে।”

ধর্মনিরপেক্ষতার পক্ষে সওয়াল করে অপর্ণা বলেন, “এটা তো আমাদের বুঝতে হবে যে, গণতন্ত্রে জয় শ্রী রাম, আল্লাহু আকবর, জয় মা কালী ইত্যাদি বলার অধিকার স্বীকৃতি পেয়েছে। কিন্তু জয় শ্রীরাম শুনে মমতা যে ভাবে গাড়ি থেকে বেরিয়ে অশ্রাব্য কথা বলেছেন, তা এটা মেনে নেওয়া যায় না”।

তবে মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে মমতার একাধিক কাজের প্রশংসাও করেছেন অপর্ণা। তিনি বলেন, “শুটিং করতে গিয়ে রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় দেখেছি নতুন রাস্তা হয়েছে। মাওবাদীদের সমস্যা মিটে গিয়েছে। আগের মতো পাহাড়ে বেড়াতে যাওয়ারও কোনো সমস্যা নেই। রাজ্যের বেশির ভাগ মানুষের সমর্থন নিয়ে মুখ্যমন্ত্রী হয়েছেন মমতা। তাই বলে তাঁর এ ধরনের আচরণকে সমর্থন করা যায় না।”

অন্য দিকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর আগামী উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ডের উপরও ভরসা প্রকাশ করেছেন অপর্ণা। তিনি বলেন, “বিজেপি যে কাজ করবে না, তেমনটা নয়। প্রধানমন্ত্রী মোদী দেশের উন্নয়নে কাজ করবেন, এটা বিশ্বাস করি। কিন্তু ওঁদের হিন্দুত্ব এবং জাতীয়তাবাদকে গুলিয়ে দেওয়ার মডেলকে আমি সমর্থন করি না। ভারতের মতো দেশে এটা কখনোই সম্ভব নয়। বিজেপি সাভারকারের আদর্শ মেনে চলে, তেমনই এখানে গান্ধীবাদী চিন্তাভাবনারও প্রয়োজন রয়েছে।”

জয় শ্রীরাম নিয়ে মমতার প্রতিক্রিয়ার সমালোচনার পাশাপাশি অপর্ণা বলেন, “আগামী নির্বাচনে মমতার লড়াই বেশ কঠিন হতে পারে। উচ্চবিত্তদের একটা বড়ো অংশ বিজেপির দিকে চলে গিয়েছে।”

------------------------------------------------
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.