খবর অনলাইন ডেস্ক: রাজ্য সরকারের ‘কৃষকবন্ধু’ (Krishak Bandhu) প্রকল্পের ভাতা বৃদ্ধি করা হল। এ বার থেকে বার্ষিক পাঁচ হাজার টাকা পরিবর্তে ১০ হাজার টাকা করে পাবেন যোগ্য কৃষকরা। বৃহস্পতিবার নবান্নে মন্ত্রিসভার বৈঠকে এই সিদ্ধান্তে সিলমোহর পড়েছে বলে সূত্রের খবর।

এত দিন এই প্রকল্পে পাঁচ হাজার টাকা করে বার্ষিক ভাতা পেতেন রাজ্যের কৃষকরা। বিধানসভা ভোটের আগে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee) প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন, তৃতীয় বার ক্ষমতায় ফিরে ‘কৃষকবন্ধু’ প্রকল্পের ভাতা বৃদ্ধি করা হবে। সেই প্রতিশ্রুতিই রক্ষা করলেন তিনি।

জানা গিয়েছে, এ দিন রাজ্য মন্ত্রিসভার বৈঠক ছিল নবান্নে। তাতেই কৃষকবন্ধু প্রকল্পে মাথা পিছু ভাতার অঙ্ক দ্বিগুণ করার সিদ্ধান্তে সিলমোহর দেয় মন্ত্রিসভা।

রাজ্যে কৃষির উন্নয়নে জোর দিচ্ছে মমতা সরকার। কৃষকদের আর্থিক ভাবে সহযোগিতার জন্যই ‘কৃষকবন্ধু’ প্রকল্পের সূচনা করেছিলেন মমতা। তবে তার পর থেকেই কেন্দ্রীয় সরকারের ‘কিষাণ সম্মান নিধি’ প্রকল্প নিয়ে সংঘাত বাঁধে রাজ্যের। এমনকী ভোটের প্রচারে এসে পিএম কিসান সম্মাননিধি নিয়ে বড়োসড়ো প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী (Narendra Modi)। তিনি বলেছিলেন, রাজ্যে নতুন সরকার এসেই এই প্রকল্পে কৃষকদের বকেয়া-সহ ১৮ হাজার টাকা এক লপ্তে মিটিয়ে দেওয়া হবে। বাস্তবে সেই বকেয়া এখনও অধরা বাংলার কৃষকদের।

মমতা বলেছিলেন, “৬ হাজার টাকার জায়গায় ১০ হাজার দেব, সেটা কোভিড পরিস্থিতি একটু নিয়ন্ত্রণে এলেই শুরু করব”। পাশাপাশি ১৮-৬০ বছর বয়সি কোনো কৃষকের স্বাভাবিক বা অস্বাভাবিক মৃত্যুতে পরিবারকে সরকার এককালীন দু’লক্ষ টাকা অনুদান হিসেবে দেয় রাজ্য। এ দিন রাজ্যের তরফে ভাতা বাড়ানোর কথা রাখায় স্বভাবতই খুশি কৃষকমহল।

আরও পড়তে পারেন: এলপিজি গ্রাহকদের জন্য সুখবর! নিজের পছন্দের ডিস্ট্রিবিউটরের কাছ থেকেই পাওয়া যাবে সিলিন্ডার

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন