রেকর্ড ভেঙে বিশাল জয়, ভবানীপুরের কোনো ওয়ার্ডেই কম ভোট পায়নি তৃণমূল!

0

কলকাতা: প্রত্যাশামতোই ভবানীপুরে হ্যাট্রিক করলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিজেপি প্রার্থী প্রিয়ঙ্কা টিবরেওয়ালকে ৫৮ হাজারের বেশি ভোটে হারিয়ে রেকর্ড গড়লেন তিনি।

এ দিন জয়ের পরই কালীঘাটে নিজের বাড়ির সামনে সাংবাদিক বৈঠক করেন মুখ্যমন্ত্রী। বলেন, “ভবানীপুরের মানুষকে ধন্যবাদ। কোভিড এবং বৃষ্টি সামলে মানুষ যে ভাবে ভোট দিয়েছেন, তাতে আমি কৃতজ্ঞ। উল্লেখযোগ্য ভাবে বিধানসভা কেন্দ্রের অন্তর্গত কোনো ওয়ার্ডেই আমরা হারিনি”।

মমতা বলেন, “ভবানীপুরের মানুষ গোটা দেশকে দেখিয়ে দিল বাংলা কাকে চায়। আরও চারটি কেন্দ্রের উপনির্বাচন হবে। আমাদের প্রার্থীদের ভোট দেবেন। বিজেপি-কে ভোট দিয়ে কোনো লাভ নেই”।

চার কেন্দ্রের প্রার্থী

একই সঙ্গে রাজ্যের চার কেন্দ্রের আসন্ন উপনির্বাচনে দলীয় প্রার্থীর নাম ঘোষণা করলেন মমতা। শান্তিপুর, গোসাবা, দিনহাটা, খড়দহ উপনির্বাচনের প্রার্থীর নাম ঘোষণা করলেন তিনি। বলেন, খড়দহে উপনির্বাচন প্রার্থী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়। শান্তিপুরে ব্রজকিশোর গোস্বামী এবং দিনহাটায় প্রার্থী হবেন উদয়ন গুহ। গোসাবায় বাপ্পাদিত্য নস্কর এবং সুব্রত মণ্ডলের মধ্যে থেকে যে কোনো এক জনকে প্রার্থী করবে দল।

প্রসঙ্গত, হাইভোল্টেজ ভবানীপুর উপনির্বাচনের ফলাফলের দিকে তাকিয়ে ছিল গোটা দেশ। ফলাফল ঘোষণা হতেই এ দিন বাঁধনহারা উচ্ছ্বাসে ফেটে পড়েন তৃণমূলের কর্মী সমর্থকরা। তবে নির্বাচন কমিশনের তরফে রাজ্যের মুখ্যসচিবকে পাঠানো চিঠিতে যে কোনো বিজয়োৎসব বা বিজয় মিছিলে নিষেধাজ্ঞা জারির নির্দেশ দেওয়া হয় এ দিন দুপুরে।

রেকর্ড জয়!

এর আগে ২০১১-র উপনির্বাচন, ২০১৬-র বিধানসভা ভোটে ভবানীপুরে জয়ী হোন মমতা। ২০১১-য় তিনি পেয়েছিলেন ৭৩ হাজার ৬৩৫ ভোট, ২০১৬-য় ৬৫ হাজার ৫২০টি ভোট। এ বার সেটাই বেড়ে হয়েছে ৮৪ হাজারের বেশি। বেড়েছে জয়ের ব্যবধানও। ২০১১ এবং ২০১৬-তে ব্যবধান ছিল যথাক্রমে ৫৪ হাজার ২১৩, ২৫ হাজার ৩০১। এ বার সেটাই বেড়ে হয়েছে ৫৮ হাজার ৮৩২ ভোট।

আজকের আরও কিছু উল্লেখযোগ্য খবর পড়তে পারেন এখানে:

ভোটগণনার মধ্যে রাজ্যের মুখ্যসচিবকে চিঠি নির্বাচন কমিশনের

এই প্রথম পেট্রোলের দাম ১০৩ টাকা পার হল কলকাতায়!

ফল প্রকাশের পর হিংসার আশঙ্কায় হাইকোর্টে আবেদন প্রিয়ঙ্কা টিবরেওয়ালের

২৩ হাজারের নীচে নামল দৈনিক সংক্রমণ, সক্রিয় রোগীর সংখ্যায় আরও পতন

তিন কেন্দ্রের ফলাফলের লাইভ আপডেট দেখুন এখানে ক্লিক করে

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন