ছবি: নিজস্ব

কলকাতা: মাঝেরহাট সেতু দুর্ঘটনায় আহতদের চিকিৎসা সংক্রান্ত ব্যাপারে বিভিন্ন হাসপাতাল ও নার্সিংহোমগুলিকে  নির্দেশ দেওয়া হল রাজ্য সরকারের তরফে। জানানো হয়েছে, দুর্ঘটনায় আহতদের চিকিৎসায় যেন কোনো রকমের খামতি না থাকে। দুর্ঘটনাস্থলে হাজির রয়েছে অসংখ্য অ্যাম্বুলেন্স ও প্রাথমিক চিকিৎসার টিম। অতিদ্রুত আহতদের হাসপাতালে পৌঁছে দিতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে ট্রাফিক পুলিশকেও।

মঙ্গলবার দুপুরে আচমকা ভেঙে পড়ে মাঝেরহাট সেতুর একাংশ। এই দুর্ঘটনায় একাধিক ব্যক্তির মৃত্যুর আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন প্রত্যক্ষদর্শীরা। ইতিমধ্যেই গুরুতর আহত অবস্থায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে ৮ জনকে। আশঙ্কা সেতুর নীচে চাপা পড়েছে অসংখ্য বাইক আরোহী এবং সংলগ্ন বস্তির বাসিন্দারা। তৎপরতার সঙ্গে উদ্ধারকাজ চালাচ্ছেন কলকাতা পুলিশ, দমকল ও বিপর্যয় মোকাবিলা বিভাগের সদস্যরা। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দুর্ঘটনার খবর পেয়েই দার্জিলিং থেকে জানান, উদ্ধারকাজ এবং আহতদের চিকিৎসায় সবরকম ভাবে সাহায্য করবে প্রশাসন।


আরও পড়ুন: ভেঙে পড়ল মাঝেরহাট সেতুর একাংশ, বেশ কয়েকজনের মৃত্যুর আশঙ্কা

এ দিন মমতা বলেন, এক জনের মৃত্যুও দু:খের। তবে এখনও পর্যন্ত এ ব্যাপারে কিছু বলা সম্ভব নয়। পুলিশ ঘটনাস্থলে রয়েছে। তাদের রিপোর্ট থেকেই হত-আহতের সংখ্যা জানা যাবে। পাশাপাশি তিনি বলেন, সমস্ত আহতদেরই চিকিৎসার যাবতীয় ব্যবস্থা ও ব্যয়ভার বহন করবে রাজ্য সরকার।

এ দিন ঘটনাস্থলে যান কলকাতার মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায় এবং নগরোন্নয়ন দফতরের মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম-সহ একাধিক প্রশাসনিক কর্তা। দিনের ব্যস্ততম সময়ে ভেঙে পড়া সেতুর অংশটিকে সরাতে ব্যবহার করা হচ্ছে ক্রেন।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন