‘আমাদের চাপেই বিনামূল্যে টিকায় রাজি প্রধানমন্ত্রী’, জোড়া টুইটে দাবি করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

0

খবরঅনলাইন ডেস্ক: পশ্চিমবঙ্গ সরকারের চাপের শেষ পর্যন্ত প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ১৮ বছরের বেশি বয়সিদের বিনামূল্যে করোনা টিকা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। সোমবার রাতে টুইট করে এমনই দাবি করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই সঙ্গে মুখ্যমন্ত্রীর অভিযোগ, মোদী এবং কেন্দ্রীয় সরকারের এই ‘বিলম্বিত বোধোদয়’ দেশ জুড়ে বহু মানুষের মৃত্যুর কারণ হয়েছে।

প্রথম টুইটে মমতা লেখেন, “গত ২১ ফেব্রুয়ারি এবং তার পরেও একাধিক বার আমি প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি লিখে ধারাবাহিক ভাবে বিনামূল্যে টিকা সরবরাহের দাবি জানিয়েছিলাম। ৪ মাস কেটে গেলেও অনেক চাপের পর শেষ পর্যন্ত তিনি আমাদের কথা শুনেছেন। আমরা যা দাবি করেছিলাম, তা কার্যকর করেছেন।”

Loading videos...

এর পর দ্বিতীয় টুইটে মমতা লিখেছেন, “এই অতিমারি শুরুর পর থেকেই ভারতের জনগণের জীবনকে অগ্রাধিকার দেওয়ার প্রয়োজন ছিল। দুর্ভাগ্যক্রমে প্রধানমন্ত্রীর এই বিলম্বিত সিদ্ধান্তের মূল্য হিসেবে অনেককে জীবন দিতে হয়েছে। আশা করব এ বার প্রচার নয়, টিকাকরণের লক্ষ্য হবে জনস্বার্থ।”

কী বলেছিলেন প্রধানমন্ত্রী

উল্লেখ্য, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী সোমবার সন্ধ্যায় জাতির উদ্দেশে ভাষণে জানান, আগামী ২১ জুন থেকে ১৮ ঊর্ধ্বদের জন্য রাজ্যগুলিকে বিনামূল্যে টিকা দেবে কেন্দ্র। ফলে সরকারি হাসপাতাল বা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে সাধারণ মানুষের টিকাকরণ বিনামূল্যে হবে। মোদী আরও ঘোষণা করেন যে বেসরকারি হাসপাতালগুলি টিকা পিছু ১৫০ টাকা পরিষেবা কর নিতে পারবে। 

এর পাশাপাশি মোদী আরও জানান যে নভেম্বর পর্যন্ত বিনামূল্যে রেশন দেওয়ার প্রকল্প চালাবে কেন্দ্রীয় সরকার। দেশের মানুষের খাবার পৌঁছে দেওয়া হবে। চলবে গরিব কল্যাণ অন্ন যোজনা।

আরও পড়তে পারেন ৫৫ দিনের মধ্যে সর্বনিম্ন দৈনিক সংক্রমণ, রাজ্যে সংক্রমণের হার আরও কমল

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.