হাওড়া: আবারও হাওড়া ব্রিজের মাথায় উঠে পড়লেন মানসিক ভারসাম্যহীন এক যুবক। বুধবার বিকেল ৪টে নাগাদ হঠাৎ দেখা যায়, হাওড়া ব্রিজের মাথায় কেউ হাঁটাচলা করছেন। উপর থেকে হাত নেড়ে তিনি কিছু বলার চেষ্টাও করছিলেন। মাঝে মাঝে আবার হাত জোড় করে নমস্কার করতে দেখা যায় তাঁকে।

ঘটনার জেরে হাওড়া স্টেশন চত্বরে শোরগোল পড়ে যায়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসেন পুলিশ, বিপর্যয় মোকাবিলা দফতর এবং দমকলের কর্মীরা। প্রায় এক ঘণ্টা পর ওই যুবককে নামানো সম্ভব হয়। ঘটনার জেরে প্রশ্নের মুখে ব্রিজের নিরাপত্তা ব্যবস্থা।

পুলিশ জানিয়েছে, কলকাতার দিক থেকে হাওড়া ব্রিজে উঠেছিলেন যুবক। হেঁটে হেঁটে চলে আসেন হাওড়ার দিকে। তাঁকে দেখতে এলাকায় রীতিমতো ভিড় জমে গিয়েছিল। প্রায় ঘণ্টাখানেক পর তাঁকে ব্রিজ থেকে নামানো সম্ভব হয়।

এই ঘটনায় ব্রিজ দিয়ে যান চলাচল ব্যাহত হয়। প্রায় এক ঘণ্টা পর গোলাবাড়ি থানার পুলিশ, দমকল কর্মী এবং কলকাতা পোর্ট ট্রাস্টের কর্মীদের সাহায্যে হাওড়ার দিক থেকে তাঁকে নামানো হয়। তবে, এই ঘটনার পর ফের হাওড়া ব্রিজের নিরাপত্তা ও পুলিশ নজরদারি নিয়ে প্রশ্ন উঠছে।

পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদের মুখে যুবক জানান, তাঁর নাম সাধি কুমার। বয়স ২২ বছর। বিহারের বেগুসরাইয়ের বাসিন্দা। উদ্ধারের পর তাঁকে হাওড়া জেলা হাসপাতালে নিয়ে যায় হয়। সেখানেই তিনি চিকিৎসাধীন। মানসিক রোগ বিশেষজ্ঞদের দিয়ে তাঁর চিকিৎসা করানো হবে। কী ভাবে এবং কেন বিহার থেকে এখানে তিনি চলে এলেন তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। যোগাযোগ করার চেষ্টা হচ্ছে তার পরিবারে সঙ্গে। পর পর এই ধরনের ঘটনায় হাওড়া ব্রিজের নিরাপত্তা নিয়েই প্রশ্ন তুলে দিচ্ছে।

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন