বাড়িতে বিদ্যুতের তার জড়িয়ে মহেশতলায় তিনজনকে খুন

0

মহেশতলা: বাড়িতে বিদ্যুতের তার জড়িয়ে তিনজনকে খুন করার অভিযোগ উঠল এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে। বৃহস্পতিবার ভোরে এই ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ ২৪ পরগণার মহেশতলার আকড়ায়।

অভিযুক্ত ব্যক্তির নাম রবিউল। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, পেশায় রাজমিস্ত্রি রবিউলের সঙ্গে তাঁর স্ত্রীর সুসম্পর্ক ছিল না। এমনকি ওই এলাকারই কোনো এক যুবকের সঙ্গে স্ত্রীর বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক রয়েছে বলে সন্দেহ করতেন রবিউল। এই নিয়ে দুজনের মধ্যে অশান্তি লেগেই থাকত। গত ৩ দিন ধরে নিখোঁজও ছিলেন রবিউলের স্ত্রী।

‘স্ত্রীর প্রেমিককে উচিত শিক্ষা’ দিতে, গোটা ঘটনার পরিকল্পনা করে রবিউল। রবিউল যে এলাকায় ভাড়া থাকত, সেখানে আরও ২০টি পরিবার ভাড়া রয়েছে। রবিউল ভাবত সবার মদতেই তার স্ত্রী প্রেম করত। অভিযোগ, এ দিন ভোর ৩টে নাগাদ এলাকার প্রতিটি ঘরের দরজার সামনে বিদ্যুতের তার ফেলে রাখে সে। সেই তারে বিদ্যুৎ সংযোগও করে দেয়। এরপর পরিকল্পনা মাফিক নিজের ঘরের বারান্দায় আগুন জ্বালিয়ে দেয়।

নিজের ঘটে আগুন লাগিয়ে চিৎকার জুড়ে দেয় অভিযুক্ত। রবিউলের আর্ত চিৎকারে তড়িঘড়ি পড়শিরা দরজা খুলে বাইরে বেরনোর চেষ্টা করেন। আর তাতেই বাঁধে বিপত্তি। রবিউলের পরিকল্পনা মতো দরজা খুলে বাইরে বেরনোর চেষ্টা করতেই, দরজায় জড়ানো তারে বিদ্যুতস্পৃষ্ট হন ৯ জন। ঘটনাস্থলে মৃত্যু হয় তিনজনের। বাকি ৬ জন জখম হন।

এ দিকে এই ঘটনা ঘটার পরেই হইচই পড়ে যায় এলাকায়। পরিস্থিতি বেগতিক বুঝে পালানোর চেষ্টা করে রবিউল। ট্রেন ধরতে আকড়া স্টেশনে আসে। এ দিকে খালি পায়ে রবিউলকে দৌড়তে দেখে সন্দেহ হয় ওই এলাকার একটি বিয়েবাড়ির লোকজন। তাঁরাই ধরে ফেলেন রবিউলকে। মারধরের পর পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয় তাকে।

আরও পড়ুন চন্দ্রযান ২ উৎক্ষেপণের নতুন দিন ঘোষণা করল ইসরো

অপরাধের কথা স্বীকার করেছে রবিউল, এমনই দাবি পুলিশের। শুধুমাত্র সন্দেহের বশে সুপরিকল্পিত ভাবে এই কাণ্ড রবিউল যে ভাবে ঘটাল, তাতেই তাজ্জব পুলিশ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.