বাড়বে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা, আগামী দিন দশেক বজায় থাকবে বসন্তের আবহাওয়া

0

ওয়েবডেস্ক: পূর্বাভাসে যতটা শীত পড়বে আশা করা হয়েছিল, তার থেকে কিছুটা কমই পড়ল। তবে ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহের থেকে বেশি কিছুটা কমই ছিল গত সপ্তাহের তাপমাত্রা। ভোরের দিকে অনুভূত হচ্ছিল শীত শীত ভাব। সেই শীত শীত পরিস্থিতি এ বার পাকাপাকি ভাবে বিদায় নেওয়ার পরিকল্পনা করেছে। আগামী দশ দিন স্বাভাবিক বসন্তের আবহাওয়া বজায় থাকবে কলকাতা-সহ সমগ্র দক্ষিণবঙ্গে। বাড়তে পারে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা।

অন্য বারের থেকে বেশ কড়া শীতের সম্মুখীন হয়েছিল কলকাতা-সহ সমগ্র রাজ্য। কিন্তু জানুয়ারির শেষ আসতে না আসতেই সেই শীত পাততাড়ি গোটানোর প্ল্যান করেছিল। ফেব্রুয়ারির শুরুতেই হুহু করে বাড়তে শুরু করে দিয়েছিল তাপমাত্রা। সর্বোচ্চ তাপমাত্রা পৌঁছে গিয়েছিল ৩৪-এর কোঠায় এবং সর্বনিম্ন পেরিয়ে গিয়েছিল কুড়ি ডিগ্রি। যখন মনে করা হচ্ছিল, এ বার গরম তাড়াতাড়ি পড়ে যাবে, তখনই আবার কমল তাপমাত্রা। ফিরে এল শীত শীত অনুভূতি।

কিন্তু এ বার আর নয়, শীতকে আর কোনো ভাবেই আটকে রাখা যাবে না দক্ষিণবঙ্গে। তবে ভরদুপুর বাদে সারা দিন এখনও মনোরম আবহাওয়াই বজায় থাকবে। আগামী অন্তত দশ দিন কলকাতার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা থাকবে ৩২-৩৩ ডিগ্রির আশেপাশে এবং সর্বনিম্ন থাকবে ১৮ থেকে ২০ ডিগ্রির কাছাকাছি। তবে দিনের বেলায় অস্বস্তিকর আবহাওয়া অনুভূত হবে বলে জানিয়েছেন বেসরকারি আবহাওয়া সংস্থা ওয়েদার আল্টিমার কর্ণধার রবীন্দ্র গোয়েঙ্কা।

রবীন্দ্রবাবু জানান, মূলত তিনটে কারণে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা বাড়বে দক্ষিণবঙ্গে। তাঁর কথায়, “এই মুহূর্তে উত্তর ভারতে একটি পশ্চিমী ঝঞ্ঝা রয়েছে, লাইনে রয়েছে আরও একটি। এই ঝঞ্ঝা আরব এবং বঙ্গোপসাগর থেকে জলীয় বাষ্প টেনে নিয়ে যাবে। যার ফলে জলীয় বাষ্প ঢুকবে দক্ষিণবঙ্গের ওপরে। দক্ষিণবঙ্গের বাতাসে জলীয় বাষ্প ঢোকানোয় সাহায্য করবে এমন একটি ঘূর্ণাবর্তও তৈরি হতে পারে কয়েক দিনের মধ্যে।” এর পাশাপাশি মধ্য ভারতে তাপমাত্রা বাড়তে শুরু করায় সেখান থেকেও গরম বাতাস দক্ষিণবঙ্গের তাপমাত্রা বাড়াবে বলে জানিয়েছেন তিনি।

তবে কলকাতার আবহাওয়া তুলনায় মনোরম হলেও পশ্চিমাঞ্চলের জেলাগুলিতে দিনের বেলায় বেশ গরম লাগবে বলে জানিয়েছেন তিনি। বাঁকুড়া, পুরুলিয়ায় এখনই সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৫ ছুঁয়ে ফেলতে পারে, যদিও সর্বনিম্ন তাপমাত্রা এখনও ১৫-১৬ ডিগ্রির কাছাকাছি থাকার সম্ভাবনা। পশ্চিমাঞ্চলের জেলাগুলিতে এই সপ্তাহের শেষের দিকে অল্প বৃষ্টির পূর্বাভাসও দিয়েছে রবীন্দ্রবাবু। তবে কলকাতায় এখনই বৃষ্টির সম্ভাবনা বিশেষ দেখছেন না বলে জানিয়েছেন তিনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here