শেষমেশ কলকাতা হাইকোর্টে মামলা করলেন সব্যসাচী দত্ত

অনাস্থার বৈধতাকে চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টের দ্বারস্থ হলেন ১৯৯৫ সাল থেকে কাউন্সিলার সব্যসাচী।

0
sabyasachi dutta
প্রতীকী ছবি

ওয়েবডেস্ক: গত বৃহস্পতিবার বিধাননগরের মেয়র সব্যসাচী দত্তের বাড়িতে যান বিজেপি নেতা মুকুল রায়। মেয়রের বিরুদ্ধে জমা পড়া অনাস্থা নিয়ে আলোচনা হয় তাঁদের। তার পর থেকেই জল্পনা ছড়ায়, এ বার আদালতের দ্বারস্থ হতে পারেন সব্যসাচী। সেই মোতাবেক শুক্রবার কলকাতা হাইকোর্টে মামলা দায়ের করলেন তিনি। আগামী সোমবার হাইকোর্টে ওই মামলার শুনানি।

গত মঙ্গলবার বিধাননগর পুরসভার ৩৫ জন কাউন্সিলার অনাস্থা এনেছেন মেয়রের বিরুদ্ধে। সম্ভবত, আগামী ১৮ জুলাই ভোটাভুটিতে নিষ্পত্তি হতে পারে বিধাননগর পুরসভার মেয়র-জটের। তার আগেই হাইকোর্টে গিয়ে অনাস্থার ফাঁকফোঁকর নিয়ে মামলা করলেন। ঠিক কী কারণে?

তাঁর বিরুদ্ধে যে অনাস্থা নিয়ে আসা হয়েছে, এ ব্যাপারে নোটিশ পাঠানো হয়েছে সব্যসাচীকেও। এর পর গত বুধবারও পুরসভার কাউন্সিলারদের মাসিক বৈঠকে যান তিনি। সেখানে গিয়ে বেশ কয়েকজন কাউন্সিলারের সঙ্গে একান্তে কথা বলতে শোনা যায় তাঁকে। সেখান থেকেই সব্যসাচী ওই অনাস্থা প্রস্তাব নিয়ে বেশকিছু ত্রুটির কথা জানতে পারেন বলে সূত্রের খবর।

এ দিন সকালে হাইকোর্টের আইনজীবীদের সঙ্গে একপ্রস্থ আলোচনা করেন সব্যসাচী। গত রবিবার রাতে মুকুলের সঙ্গে বৈঠক করার সময়ও আইনজীবীদের উপস্থিতি লক্ষ্য করা যায়। জানা গিয়েছে, অনাস্থা প্রস্তাবে বেশ কয়েকটি ত্রুটি থাকতে পারে। যেমন ত্রুটি থাকতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে অনাস্থা প্রস্তাবের বিষয়বস্তুতে।

সূত্রের খবর, সব্যসাচীর বিরুদ্ধে ঠিক কীসের ভিত্তিতে অনাস্থা নিয়ে আসা হয়েছে, বা কাউন্সিলাররা ঠিক কী কারণে ওই অনাস্থা প্রস্তাবে স্বাক্ষর করেছেন, সে সবের স্পষ্ট উল্লেখ না-ও থাকতে পারে। স্বাভাবিক ভাবেই ওই অনাস্থার বৈধতাকে চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টের দ্বারস্থ হলেন ১৯৯৫ সাল থেকে কাউন্সিলার সব্যসাচী

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here