hirband
indrani
ইন্দ্রাণী সেন

বাঁকুড়া: পুলিশের সৌজন্যে প্রায় দু’বছর নিখোঁজ থাকার পর ভাইকে ফিরে ফেলেন দাদা।  রবিবার হুগলির এক মানসিক ভারসাম্যহীন যুবককে পরিবারের হাতে তুলে দিয়ে এভাবেই এলাকায় দৃষ্টান্ত স্থাপন করল বাঁকুড়ার হীড়বাঁধ থানার পুলিশ। পুলিশের মানবিক ভূমিকায় খুশি ওই যুবকের পরিবার।

পুলিশ সূত্রে খবর,  হুগলির চণ্ডীতলা থানার খানপুর মল্লিকপাড়া এলাকার বাসিন্দা মেহেরাজ আলি মল্লিক গত দু’বছর ধরে নিখোঁজ ছিলেন। বছর সাতাশের এই যুবককে গত শনিবার রাতে হীড়বাঁধের আসবেড়িয়া গ্রামে উদ্দেশ্যহীনভাবে ঘোরাফেরা করতে দেখা যায়। গ্রামবাসীদের সন্দেহ হওয়ায় তারাই থানায় খবর দিলে পুলিশ ওই গ্রাম থেকে সে দিন রাতেই যুবককে উদ্ধার করে । পরে থানায় নিয়ে এসে পুলিশি জিজ্ঞাসাবাদের সময় ওই যুবক অসংলগ্ন কথা বলতে থাকেন।

পরে তাঁর কথার সূত্র ধরেই হীড়বাঁধ থানার পুলিশ হুগলির চণ্ডীতলা থানার সঙ্গে যোগাযোগ করে। চণ্ডীতলা থানার পুলিশ পুরানো কেস ডায়েরির সঙ্গে হীড়বাঁধ থানা থেকে পাঠানো এই যুবকের ছবি মিলিয়ে নিশ্চিত হয়, উদ্ধার হওয়া যুবক গত দু’বছর আগে খানপুর, মল্লিক পাড়া থেকে নিখোঁজ মেহেরাজ আলি খানই।

hirband2

রাতেই চণ্ডীতলা পুলিশের কাছ থেকে খবর পেয়ে যুবকের পরিবার হীড়বাঁধের উদ্দেশ্যে রওনা হন। রবিবার দুপুরে উদ্ধার হওয়া মানসিক ভারসাম্যহীন ওই যুবককে হীড়বাঁধ পুলিশের পক্ষ থেকে পরিবারের হাতে তুলে দেওয়া হল। ভাইকে নিতে আসা যুবকের দাদা সামসুদ্দিন মল্লিক পুলিশের ভূমিকায় খুশি। তিনি বলেন, “গত দু’বছর অনেক খুঁজেও ভাইকে পাইনি। হীড়বাঁধ পুলিশের সৌজন্যেই আজ হারানো ভাইকে ফিরে পেলাম”। এ দিনই তাঁরা হুগলির উদ্দেশ্যে রওনা হয়েছেন বলে জানা গেছে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here