বিশেষ সংবাদদাতা: প্রকল্প ঘোষণা হয়ে গেছে এক বছর আগেই। কিন্তু এত দিন কাজ তেমন এগোয়নি। এ বার দ্রুত কাজ শেষ করার উদ্যোগ নিয়েছে রাজ্যের পূর্ত দফতর।

তিস্তা নদীর ওপরে ৫.৮ কিলোমিটার দীর্ঘ হলদিবাড়ি-মেখলিগঞ্জ সেতু।

আইআইটি রুড়কির সঙ্গে সম্প্রতি কথা বলে রাজ্য সরকারের পূর্ত দফতর। সেতুটির মডেল স্টাডি করতে বলা হয় তাদের। সেইমতো সমীক্ষার কাজ চালাচ্ছেন দেশের প্রথম সারির ওই প্রতিষ্ঠানের বিশেষজ্ঞরা। সমীক্ষার কাজ শেষ হবে এই জুন মাসেই। তার পরই দ্রুত শুরু হয়ে যাবে সেতু তৈরির কাজ। শেষ হতে লাগবে এক থেকে দেড় বছর।

কাকতালীয় ভাবে যে সময় দিল্লিতে তিস্তা চুক্তির জটিলতা নিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে বৈঠক করছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, ঠিক তখনই সমীক্ষা করানোর জন্য আইআইটি রুড়কির সঙ্গে কথাবার্তা চালাচ্ছিল রাজ্যের পূর্ত দফতর।

তিস্তার ওপর এই সেতু তৈরির দাবি উত্তরবঙ্গের মানুষের বহু দিনের। জলপাইগুড়ি হয়ে হলদিবাড়ি থেকে মেখলিগঞ্জ যেতে সময় লাগে দুই থেকে আড়াই ঘণ্টা। পেরোতে হয় প্রায় ৮৫ কিলোমিটার রাস্তা।

হলদিবাড়ি থেকে মেখলিগঞ্জ যাওয়ার বর্তমান পথ।

সেতুটি হয়ে গেলে সেই যাত্রাপথ কমে আসবে ১৫ থেকে ২০ মিনিটে। প্রায় জগৎ-বিচ্ছিন্ন মেখলিগঞ্জের পশ্চাদবর্তী অঞ্চলের গ্রামগুলির মানুষের কাছেও জীবন হয়ে যাবে অনেক সহজ। জলপাইগুড়ি হয়ে উত্তরবঙ্গের প্রধান শহর শিলিগুড়িতে দ্রুত পৌঁছে যেতে পারবেন তাঁরা। পরিষ্কার হবে ব্যবসা-বাণিজ্যের পথও। হলদিবাড়ির পাশেই জলপাইগুড়ি জেলা। এই সেতুর ব্যাপক সুবিধা পাবেন ওই জেলার মানুষও।

ছিটমহল হস্তান্তরের সময় থেকেই কেন্দ্রের কাছে এই সেতুর জন্য আর্থিক সাহায্যের দাবি জানিয়ে আসছিল রাজ্য। মূলত কেন্দ্রের আর্থিক সাহায্যেই তৈরি হবে এই সেতুটি। প্রকল্পের মোট খরচ ধার্য হয়েছে ৪০১ কোটি টাকা, যার অধিকাংশই দিচ্ছে কেন্দ্র।

কাকতালীয় ভাবে যে সময় দিল্লিতে তিস্তা চুক্তির জটিলতা নিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে বৈঠক করছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, ঠিক তখনই সমীক্ষা করানোর জন্য আইআইটি রুড়কির সঙ্গে কথাবার্তা চালাচ্ছিল রাজ্যের পূর্ত দফতর।

উত্তরবঙ্গে ঘাসফুলের দাপট ক্রমেই বাড়ছে। পঞ্চায়েত হয়ে লোকসভা ভোটের পথে হলদিবাড়ি-মেখলিগঞ্জ সেতু তৈরির কাজ যত এগোবে, ততই সেখানে তৃণমূল কংগ্রেসের রাজনৈতিক প্রতিষ্ঠা আরও দৃঢ় হওয়ার সম্ভাবনা, ধারণা রাজনৈতিক মহলের।

ম্যাপ: সৌজন্যে গুগুল

এক ক্লিকে মনের মানুষ,খবর অনলাইন পাত্রপাত্রীর খোঁজ

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here