দুর্গা বিদায়ের সঙ্গেই কি বিদায় নিতে চলেছে বর্ষা?

0
rain in Kolkata
বৃষ্টিস্নাত কলকাতা। ছবি রাজীব বসু।

ওয়েবডেস্ক: পূর্বাভাস মতোই দশমীর দিনেও রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে বিক্ষিপ্ত ভাবে ঝড়বৃষ্টি হচ্ছে। কোথাও কোথাও অল্প সময়ের জন্য ভারী বৃষ্টিও হচ্ছে। তবে রাজ্যে জুড়েই আগামী ৪৮ ঘণ্টা পর থেকে উল্লেখযোগ্য ভাবে কমে যাবে বৃষ্টিপাত।

ঝাড়খণ্ডে অবস্থিত একটি ঘূর্ণাবর্তের জেরে পুজোর দিনগুলিতে গোটা রাজ্যে মাঝেমধ্যেই ঝড়বৃষ্টি হয়েছে। দশমীর দিনেও তার ব্যতিক্রম হয়নি। এ দিন বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গেই পশ্চিমাঞ্চলের জেলাগুলিতে বজ্রগর্ভ মেঘের সৃষ্টি হয়।

সেই মেঘ থেকেই বাঁকুড়া, পুরুলিয়া, দুই বর্ধমানের বিভিন্ন প্রান্তে কমবেশি ভালোই ঝড়বৃষ্টি নামিয়েছে। বিকেলের দিকে কলকাতাতেও ঝড়বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।

তবে একটানা বর্ষণের সম্ভাবনা নেই। আর বৃষ্টির জেরে দশমীর সিঁদুর খেলা ব্যহত হবে, সে আশঙ্কাও খুব একটা নেই। তবে মঙ্গলবার এবং বুধবার বেশ কয়েক দফায় বৃষ্টি হতে পারে।

তবে উপগ্রহ চিত্র বিশ্লেষণ করে আবহাওয়া বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন যে এ বার ধীরে ধীরে বৃষ্টির দাপট কমে আসবে গোটা রাজ্যে এবং কিছুদিনের মধ্যেই বর্ষা পাত্তাড়ি গুটিয়ে ফেলতে পারে রাজ্য থেকে।

উল্লেখ্য, এ বছর ভারতের উত্তরপশ্চিম প্রান্ত থেকে এখনও বিদায়যাত্রা শুরু হয়নি বর্ষার। সাধারণত ১ সেপ্টেম্বরের নির্ধারিত দিনে বর্ষা বিদায়যাত্রা শুরু করে এবং ৮ অক্টোবর থেকে তা রাজ্য থেকে বিদায় নেয়।

কিন্তু এ বার মনে করা হচ্ছে অত্যন্ত দ্রুতগতিতে তা ভারতের একটা বড়ো অংশ থেকেই বিদায় নেবে। বৃহস্পতিবার পশ্চিম রাজস্থান থেকে বর্ষার বিদায়যাত্রা শুরু হতে পারে।

সেই প্রক্রিয়া শুরু হওয়ার সময়েই এ রাজ্যেও আবহাওয়া পট পরিবর্তন হয়ে যেতে পারে। অর্থাৎ বৃষ্টি কমে আসবে, দেখা মিলবে পরিষ্কার আকাশের এবং হাওয়ার গতিপথ দক্ষিণের বদলে উত্তুরে হবে।

সব মিলিয়ে এ রাজ্যে বর্ষার স্থায়িত্ব আর দশ দিনের বেশি নয় বলেই মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here