ওয়েবডেস্ক: শুরু হোক কাউন্টডাউন। আর মাত্র ৪৮ থেকে ৭২ ঘণ্টার মধ্যেই বর্ষা ঢুকে যাবে কলকাতা-সহ সমগ্র দক্ষিণবঙ্গে।

বর্ষার আগমনের বার্তা যে চাতক পাখি হয়ে বসে থাকা দক্ষিণবঙ্গবাসীর কাছে বড়ো স্বস্তির খবর তা বলাই বাহুল্য। ইতিমধ্যেই ধীরে ধীরে বর্ষার অনুকূল পরিবেশ তৈরি হচ্ছে দক্ষিণবঙ্গের জেলাগুলিতে। পশ্চিমাঞ্চলের জেলাগুলিতে এখনও তাপপ্রবাহ বজায় থাকলেও বৃহস্পতিবার থেকেই আবহাওয়ার পরিবর্তনের সম্ভাবনা রয়েছে।

উল্লেখ্য, মঙ্গলবার বিকেলে ঘণ্টাখানেক জোর বৃষ্টি হয় কলকাতা-সহ দক্ষিণবঙ্গের অনেক জেলাতেই। ওই বৃষ্টির সঙ্গে চরিত্রগত ভাবে গরমের কালবৈশাখীর ফারাক ছিল। কারণ কালবৈশাখীর পরে সাধারণত ভাবে সব কিছু ঠান্ডা হয়ে যায়, কিন্তু মঙ্গলবার তেমন কিছু হয়নি। উলটে আর্দ্রতাজনিত অস্বস্তি আরও বেড়ে গিয়েছিল। এটা বর্ষার আগমনের একটা ইঙ্গিত বলে জানিয়েছে বেসরকারি আবহাওয়া সংস্থা ওয়েদার আল্টিমা।

আরও পড়ুন বৃহত্তম বিরোধী দলের নেতা হিসেবে প্রথম ভাষণেই লোকসভায় ঝড় তুললেন অধীররঞ্জন চৌধুরী

অন্যদিকে কেন্দ্রীয় আবহাওয়া দফতরও আগামী দু’দিন, অর্থাৎ বৃহস্পতিবার এবং শুক্রবার দক্ষিণবঙ্গের বিভিন্ন জেলায় ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা জারি করেছে। ওয়েদার আল্টিমা জানাচ্ছে, এই ভারী বৃষ্টির কারণ বঙ্গোপসাগরে তৈরি হতে চলা একটি নিম্নচাপ। এই মুহূর্তে সাগরে একটি ঘূর্ণাবর্ত অবস্থান করছে। সেটিই আগামী দু’দিনের মধ্যে নিম্নচাপের রূপ নেবে। তার পরেই শুরু হতে পারে জোর বৃষ্টি। সেই সঙ্গে দক্ষিণবঙ্গে ঢুকে পড়বে বর্ষা।

তবে বুধবার বিকেল অথবা সন্ধ্যার দিকেও জোর বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। কারণ এখন পুরোপুরি ভাবে প্রাক বর্ষার সময়। বৃষ্টি হবে কার্যত রোজই।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here