mother-dairy-shop

নিজস্ব সংবাদদাতা: শীত পড়ার আগেই ভোজনরসিকদের জন্য সুখবর। ফের শীতের মরসুম জুড়ে রাজ্য সরকারের স্টলে পাওয়া যাবে মাদার ডেয়ারির পায়েস। এই পায়েস মিলবে মাদার ডেয়ারির নিজস্ব স্টলেও।

গত বছর মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ইচ্ছাতেই এই পায়েসের বিপণন শুরু করে প্রাণীসম্পদ বিকাশ দফতর। বেশ জনপ্রিয়ও হয় এই পায়েস। কিন্তু মার্চ মাসের মাঝামাঝি সময়ে এই পায়েস উৎপাদন বন্ধ করে দেয় মাদার ডেয়ারি। কারণ হিসাবে প্রাণীসম্পদ বিকাশ মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ জানিয়েছিলেন, দুগ্ধজাত পণ্য এবং কাঁচামালের দাম বেড়ে যাওয়ায় আপাতত উৎপাদন বন্ধ রাখা হয়েছে।

এই মরসুমে শীত আসার সঙ্গে সঙ্গেই বাঙালির রসনাতৃপ্তিতে ফের পায়েস বাজারে আনতে চলেছে মাদার ডেয়ারি। ডিসেম্বরের গোড়া থেকে চিনি এবং নলেন গুড়, এই দু’ধরনের পায়েস পাওয়া যাবে। এ বছর পায়েসের দামে কোনো হেরফের হচ্ছে না। ১০০ গ্রাম ওজনের চিনির পায়েসের দাম ২০ টাকা এবং গুড়ের পায়েসের দাম ২৫ টাকা। গত মরসুমেও ওই একই দামে বিক্রি হয়েছে পায়েস। দুধের দাম এবং অন্যান্য কাঁচামালের দাম বেড়ে যাওয়ার ফলে পায়েসের দাম বাড়বে কিনা তা নিয়ে কোনো চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়নি।

mother-diary-kheerপ্রাণীসম্পদ দফতরের লক্ষ্য হল সারা বছর ধরে বাঙালির পাতে এই পায়েস তুলে দেওয়া। কিন্তু গরমের সময় নলেন গুড় সংরক্ষণ করা বেশ সমস্যায়। গত মরসুমে শীতের পর পায়েস উৎপাদন বন্ধ হয়ে যাওয়ার এটা একটা কারণ। তাই প্রাণীসম্পদ দফতর চাইছে বিশেষ পদ্ধতিতে প্যাকেজিং করে পায়েস সংরক্ষণ করতে। এর জন্য তারা ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অফ প্যাকেজিং-এর সঙ্গে কথা বলছে।  উন্নতমানের প্যাকেজিং-এর ফলে যাতে পায়েসের দাম না বাড়ে সে দিকেও নজর রাখা হবে বলে দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে।

এ ছাড়া এ বার থেকে টিউবে সারা বছর নলেন গুড় মিলবে রাজ্য সরকারের স্টলগুলিতে। পশ্চিমবঙ্গ খাদি ও গ্রামোদ্যোগ ভবনের উদ্যোগে এই নলেনগুড়ের টিউব বাজারে আনা হবে। এর ১০০ গ্রামের দাম ৫০টাকা এবং ১৫০ গ্রামের দাম ৭০ টাকা।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here