Mukul Roy
মুকুল রায়ের আবেদন মঞ্জুর। ফাইল ছবি

ওয়েবডেস্ক: লোকসভা ভোট যত এগিয়ে আসছে, ততই জমে উঠছে দলবদলের খেলা। গত ৯ জানুয়ারি দিল্লিতে গিয়ে বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন তৃণমূল (বর্তমানে বহিষ্কৃত) সাংসদ সৌমিত্র খান। এর ঠিক ১০ দিনের মাথায় একই জায়গায় একাধিক তৃণমূল নেতা বিজেপিতে যোগ দিতে পারেন বলে সূত্রের খবর। উল্লেখ্য, এই একই দিনে ব্রিগেডে সমাবেশ করতে চলেছে তৃণমূল।

এ কথা অজানা নয়, বাঁকুড়ার বিষ্ণুপুরের সাংসদ সৌমিত্র কংগ্রেস ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দেন মুকুল রায়ের সৌজন্যেই। কিন্তু মুকুলবাবু এখন বিজেপিতে। স্বাভাবিক ভাবেই সৌমিত্রকে দলে টানায় মোটেই অবাক নন রাজনীতির কারবারিরা। সৌমিত্রর বিজেপিতে যোগদানের দিনেই একই সঙ্গে দল থেকে আরও এক সাংসদ অনুপম হাজরাকে বহিষ্কার করেছে তৃণমূল। বিজেপিতে যোগ দেওয়ার ব্যাপারে তাঁর নাম নিয়েও জোর জল্পনা চলছে। সূত্রের খবর, আগামী ১৯ জানুয়ারি বিজেপিতে যোগ দেওয়ার প্রস্তুতি সারতে ইতিমধ্যেই তিনিও না কি দিল্লি উড়ে গিয়েছেন।

Soumitra Khan

তবে শুধু অনুপমই নন, ওই দিন একাধিক তৃণমূল সাংসদ, বিধায়ক এবং নেতা বিজেপিতে যোগ দিতে পারেন বলে জানাচ্ছে সূত্র। তবে সেই তালিকায় ঠিক কার কার নাম রয়েছে, সে বিষয়ে মুখে কুলুপ এঁটেছে গেরুয়া শিবির।

উল্লেখ্য, গত পঞ্চায়েত নির্বাচনের মতোই লোকসভাতেও প্রার্থী বাছাইয়ের গুরুদায়িত্ব রয়েছে প্রাক্তন তৃণমূল নেতা মুকুল রায়ের উপর। সূত্রের খবর, আগামী লোকসভা ভোটে টিকিট না পাওয়ার আশঙ্কায় এখন থেকেই তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ রাখছেন বেশ কয়েক জন তৃণমূল সাংসদ।

সম্প্রতি ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদনে এ ব্যাপারে তিন জনের নামোল্লেখ করা হয়েছে। শোনা যাচ্ছে, নির্বাচনী মরশুমে নানা রকমের পন্থা সামনে আসছে। তৃণমূল কংগ্রেসে একটা অস্পষ্ট ধারণা তৈরি হয়েছে যে, কয়েক জন দলীয় সাংসদ মুকুল রায়ের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছেন। মুকুলবাবু এখন বিজেপি নেতা। স্বাভাবিক ভাবেই তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ রাখার কারণ তৃণমূলে টিকিট না পেলে অন্য রকম কোনো চিন্তাভাবনার পথ খুলে রাখা। ওই প্রতিবেদনে এমনও দাবি করা হয়েছিল, তৃণমূলের তিন সাংসদ অপরূপা পোদ্দার, সৌমিত্র খান এবং অনুপম হাজরার নাম এখন ঘুরে বেড়াচ্ছে।

[ আরও পড়ুন: বিজেপিতে যোগ দিলেন ‘বিদ্রোহী’ তৃণমূল সাংসদ সৌমিত্র খাঁ ]

সৌমিত্র বিজেপিতে যোগ দেওয়ায় সেই জল্পনা আরও জোরালো হয়েছে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here