কলকাতা: শিক্ষক নিয়োগে দুর্নীতির অভিযোগে যখন রাজ্য রাজনীতি সরগরম, তখন বাংলার শাসকদলের ‘ভাবমূর্তি’ নিয়ে কী বলতে গিয়ে ফের অসংলগ্নতার ছাপ দেখা গেল বিজেপি বিধায়ক তথা তৃণমূল নেতা মুকুল রায়ের কথায়। বিজেপির টিকিটে জয়ী এবং পরে দলত্যাগী কৃষ্ণনগর উত্তরের বিধায়ক সোমবার বলেছেন, ‘‘শাসকের ‘ভাবমূর্তি’র সঙ্গে রদবদলের কোনো সম্পর্ক নেই। ভাবমূর্তি এ সবের উপরে নির্ভর করে না।’’

তাঁকে প্রশ্ন করা হয়েছিল, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যে মন্ত্রিসভায় রদবদল করছেন, তাতে কি দলের ভাবমূর্তি বদলাবে? সেই প্রশ্নের জবাবেই মুকুল ওই প্রতিক্রিয়া দেন।

সোমবার মন্ত্রীসভার বৈঠক ডেকেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা। বৈঠক শেষে তিনি ঘোষণা করেন, রাজ্যের মন্ত্রীসভায় রদবদল হচ্ছে। তবে বড়ো কিছু নয়। বুধবার ছোটো একটি রদবদল হবে বলে জানিয়ে দেন মমতা। রাজনৈতিক মহলে অবশ্য তার আগে থেকেই মন্ত্রীসভার রদবদল নিয়ে জল্পনা ছিল। এমনও বলা হচ্ছিল যে, স্বচ্ছ ভাবমূর্তি রয়েছে এমন বিধায়কদেরই হয়তো মন্ত্রিসভায় নিয়ে আসবেন মমতা।

মুকুলের কাছে সংবাদমাধ্যমের প্রশ্ন ছিল, সেই রদবদলে কতটা বদলাবে তৃণমূলের ভাবমূর্তি? জবাবে মুকুল প্রথমে বলেন, ‘‘উনি (মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়) মনে করেছেন তাই করেছেন।’’ সাংবাদিকরা এর পর জানতে চান, কিন্তু এতে কি ভাবমূর্তি বদলাবে? কৃষ্ণনগর উত্তরের বিধায়ক বলেন, ‘‘ভাবমূর্তির সঙ্গে এর কোনো সম্পর্ক নেই। ভাবমূর্তি এ সবের উপর নির্ভর করে না।’’

তা হলে ভাবমূর্তি কীসের উপর নির্ভর করে? জানতে চাওয়া হয় মুকুলের কাছে। জবাবে তাঁর সটান উত্তর, ‘‘ভাবমূর্তি ভাবমূর্তির উপরেই নির্ভর করে।”

কিছুটা অংসলগ্ন মনে হলেও মুকুলের ওই মন্তব্য নিয়ে রাজনৈতিক মহলে আলোচনা শুরু হয়েছে। যদিও সোমবার তৃণমূল এ নিয়ে কোনও প্রতিক্রিয়া দেয়নি।

অন্যান্য খবর: 

তৃণমূলের জেলা সংগঠনে ব্যাপক রদবদল, তবে থেকে গেলেন অনুব্রত

বুধবার রাজ্য মন্ত্রীসভায় রদবদল, মন্ত্রী হতে পারেন বাবুল, পার্থ ভৌমিক

দিনভর তল্লাশির পর রবিবার মধ্যরাতে ইডির হাতে গ্রেফতার সঞ্জয় রাউত

দক্ষিণবঙ্গের সব জেলায় বৃষ্টির চরম ঘাটতি, বাকি দু’মাসে পরিস্থিতির উন্নতি আদৌ হবে?

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন