mukul roy and Mamata Banerjee
ফাইল ছবি, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে মুকুল রায়

ওয়েবডেস্ক: নিজের রাজনৈতিক জীবনের উত্থান-পতন নিয়ে বই লিখছেন বিজেপি নেতা মুকুল রায়।তৃণমূল কংগ্রেসের প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছায়াসঙ্গী মুকুলবাবু বছরখানেক আগে যোগ দিয়েছেন বিজেপিতে। শুরুটা অবশ্য হয়েছিল জাতীয় কংগ্রেসের রাজনীতির হাত ধরেই। সব মিলিয়ে ৬৪ বছর বয়সের মুকুলবাবুর দীর্ঘ রাজনৈতিক যাত্রাপথের বর্ণবহুল ছবিগুলো উঠে আসবে ওই বইয়ে। আবার এমনটাও শোনা যাচ্ছে, ওই বর্ণময় অধ্যায়ের কোনো কোনো অংশ জুড়ে থাকবে কিছু ধূসর মুহূর্তও।

Mukul Roy
বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের সঙ্গে মুকুল রায়

শোনা যায়, সারদাকাণ্ডে সিবিআই তদন্তে জড়িয়ে যাওয়ার পর থেকেই তাঁকে নিয়ে তৃণমূলের দূরত্ব বজায় রাখার মনোভাবে ইঙ্গিত মিলতে শুরু করে। এমনটাও জানা যায়, ২০১৬ সালের বিধানসভা নির্বাচনের সময় তাঁর আচার-আচরণে তৃণমূলের একাংশ কড়া নজর রাখতে শুরু করে। একই সঙ্গে দলীয় সভায় মুকুলবাবুর উপস্থিতি নিয়ে প্রশ্ন ওঠে। তবে তিনি দলবদলের আগেই ছেড়ে দেন তৃণমূলের সাংসদপদ। গত নভেম্বরে আনুষ্ঠানিক ভাবে বিজেপিতে নাম লেখান।

Mukul Roy
ফাইল ছবি, মনীশ গুপ্ত এবং পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে মুকুল রায়

সেখানেও তাঁর যথেষ্ট কদর। আগামী ২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনে দলের রাজ্য আহ্বায়কের গুরুদায়িত্ব তাঁর কাঁধেই। এহেন পরিস্থিতিতে তাঁর আত্মজীবনীমূলক রাজনৈতিক বইপ্রকাশ বেশ ইঙ্গিতবাহী। মুকুলবাবু সংবাদ মাধ্যমের কাছে জানিয়েছেন, তাঁর রাজনৈতিক জীবনের নানান ওঠানামার কাহিনি ঠাঁই পাবে ওই বইয়ে। যে কারণে, রাজনীতির কারবারিদের ধারণা, সে সব ঘটনার মধ্যেই হয়তো প্রকাশ পাবে তাঁর একদা সঙ্গী তৃণমূল নেতা-মন্ত্রী-বিধায়ক-সাংসদদের গোপন তথ্য। এমন সব তথ্য, যা মলাটবন্দি বইয়ে প্রকাশ পেলে পুরনো বিতর্ক ফের মাথাচাড়া দিয়ে উঠতে পারে।

Mukul Roy
তখন তিনি তৃণমূল সাংসদ

মুকুলবাবু অবশ্য নিজেই জানিয়েছেন, “এই বইয়ে আমার জীবনকাহিনি আছে। কী ভাবে আমি রাজনৈতিক জীবন শুরু করেছিলাম, আর এখন আমি কোন জায়গাতে আছি ওই বইয়ে সে সব কথাই থাকবে। আমার রাজনৈতিক জীবনের চলার পথে বহু অজনা তথ্য ওই বইটিতে থাকছে”।

Mukul Roy
বাংলা তখন তাঁকে চিনত তৃণমূলের ‘জেনারেল’ হিসাবেই

তবে বিজেপির একাংশ মনে করছে, প্রকাশকের ঘরে জোরকদমে কাজ চলা ওই বই-ই তাদের বাড়তি অক্সিজেন জোগাবে আগামী লোকসভা ভোটের রাজনৈতিক যুদ্ধে। ওই বই থেকে উঠে আসা বিস্ফোরক তথ্যই প্রচারের হাতিয়ার হয়ে ওঠার অপেক্ষায় প্রহর গুনছে।

Mukul Roy
এখন তিনি গেরুয়া শিবিরের বড়ো ভরসা

সামনে কলকাতা বইমেলা। তার আগেই হয়তো বাজারে আসবে মুকুল রায়ের লেখা বই- ‘আমি মুকুল বলছি’। বইমেলার স্টলেও পাওয়া যাবে বলে জানা গিয়েছে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here