নেত্রীর মুখে ‘গদ্দারের ছেলে’, অভিমানে বাঁধ ভাঙল মুকুল-পুত্র শুভ্রাংশুর

0
Subhranshu roy
ফাইল ছবি

ওয়েবডেস্ক: বীজপুরের তৃণমূল বিধায়ক শুভ্রাংশু রায়ের বিজেপিতে যোগদান যেন সময়ের অপেক্ষা মাত্র। শুক্রবার শুভ্রাংশুর ‘বিতর্কিত’ মন্তব্যের জেরে তাঁর বিরুদ্ধে কঠোর শাস্তি ঘোষণা করেছেন দল। তবে দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মুখের ভাষায় ব্যথিত হয়েও তিনি দলের সঙ্গে বিচ্ছেদে স্বউদ্যোগী হননি। তাঁকে উদ্দেশ্য করে কী এমন বলেছিলেন দলনেত্রী?

শুক্রবার রীতি মতো সাংবাদিক বৈঠক ডেকে নিজের কেন্দ্রের নির্বাচনী ফলাফলের পর্যালোচনা শুরু করেন শুভ্রাংশু। তবে বাবার কাছে হেরে যাওয়ার কথা দিয়ে শুরু করে তিনি সরাসরি সমালোচনা করেন দলনেত্রীর বক্তব্যের। তিনি অভিযোগ করেন, প্রায় সমস্ত তৃণমূলের নেতারা তাঁকে বিশ্বাস করেন না। এমনকী ‘গদ্দারের ছেলে’ বলে তাঁর সমালোচনা করেছেন খোদ তৃণমূল নেত্রী। যা তাঁকে চরম আঘাত দিয়েছে। দলের জন্য এত কিছু করেও যদি এ ধরনের কটাক্ষ শুনতে হয়, তা হলে কার না খারাপ লাগে, তেমন প্রশ্নই ছুড়ে দিয়েছেন মুকুল-পুত্র।

শুভ্রাংশু এ দিন বলেন, “আমি দলের জন্য একশো শতাংশ করেছি। কিন্তু শেষ দিনের প্রচারেও মমতাময়ী নেত্রী আমাকে গদ্দারের ছেলে বলেছেন। যা খুব খারাপ লেগেছে”।

ভোটের ফল ঘোষণার পরদিনই শুভ্রাংশু রায়ের বিস্ফোরক মন্তব্য

Shyamsundar

এর পরই সাংবাদিক বৈঠক ডেকে শুভ্রাংশুকে ৬ বছরের জন্য তৃণমূল থেকে সাসপেন্ড করেন দলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়।

মুকুল-পুত্র শুভ্রাংশুকে দলীয় শাস্তি তৃণমূলের

এ প্রসঙ্গে শুভ্রাংশুর কোনো বক্তব্য পাওয়া না-গেলেও তাঁর ঘনিষ্ঠ সূত্রে খবর, খুব শীঘ্রই বিজেপিতে যোগ দেবেন বীজপুরের বিধায়ক। এ ব্যাপারে মুকুলবাবুর সঙ্গেও তাঁর কথা চলছে। ৬ বছরের জন্য সাসপেন্ড করা নিয়ে খুব বেশি গুরুত্ব দিচ্ছেন না শুভ্রাংশু। কারণ, লক্ষ্য বাবার কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে এখন ২০২১।

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন