police

ওয়েবডেস্ক: রাজ্য পুলিশেই পঞ্চায়েত ভোট করানো নিয়ে স্থির সিদ্ধান্তে অটল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার। কিন্তু বিরোধীদের তরফে এ বিষয়ে তুলে ধরা হচ্ছে একটি সহজ পরিসংখ্যান। রাজ্য সরকারের হাতে রয়েছে মাত্র ৪৬ হাজার সশস্ত্র পুলিশ। লাঠিধারী পুলিশের সংখ্যা ১২ হাজার। অন্য দিকে এ বারের পঞ্চায়েত ভোটে বুথের সংখ্যা ৫৮৬৪০টি। ফলে এই পুলিশ যে পর্যাপ্ত নয়, তা সহজেই অনুমেয়। ফলে প্রতি বুথে ন্যূনতম একজন সশস্ত্র পুলিশ ব্যতিরেকে কী ভাবে ভোট নির্বিঘ্নে করানো সম্ভব হবে?

শুক্রবার রাজ্য পুলিশের ডিজি ফের সাংবাদিক বৈঠক ডেকে ভোট প্রক্রিয়া সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে এবং নিরাপত্তা ব্যবস্থাকে পর্যাপ্ত অবস্থায় উন্নীত করতে বেশ কয়েকটি পরিকল্পনার কথা ঘোষণা করেছেন। তিনি বলেছেন, প্রতিটি বুথে সশস্ত্র পুলিশ নিয়োগের বন্দোবস্থ চলছে। কারারক্ষী-হোমগার্ডদেরও নির্বাচনের কাজে লাগানো হবে। এমনকী আবগারি বিভাগের কর্মীদেরও কী ভাবে ব্যবহার করা যায়, সে সব নিয়ে চিন্তাভাবনা চলছে। পাশাপাশি কলকাতা পুলিশের অন্তর্গত প্রায় ২৬ হাজার পুলিশ কর্মী নিয়েও চিন্তাভাবনা চলছে। মোট কথা, ভোটারদের নিরাপত্তা দিতে যাবতীয় উদ্যোগ রাজ্য নিতে বদ্ধপরিকর বলে তিনি জানান।

একই ভাবে ভিন রাজ্যে থেকে পুলিশ নিয়ে আসার ভাবনাও যে রাজ্যের রয়েছে, তেমন ইঙ্গিতও মিলেছে নবান্ন সূত্রে। ডিজি পর্যাপ্ত নিরাপত্তার আশ্বাস বজায় রাখতে সম্ভবত সেই বিষয়টি নিয়েও উচ্চ মহলে কথা বলতে পারেন।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here