অরুণাভ ঘোষ: জার্মানির বার্লিন থেকে রাজ্যে আসছে পাঁচ অতিথি – ক্ল্যারি, ড্যানি, রোমনা, রক এবং চার্লস। শুক্রবার রাতে কলকাতা বিমানবন্দরে নেমে তাদের গন্তব্য হবে দার্জিলিং। দার্জিলিং চিড়িয়াখানায় ঠাঁই হবে এদের।

এরা শঙ্কর প্রজাতির মিশমি টাকিন। এই প্রথম ভারতে আসছে এই প্রজাতির মিশমি টাকিন। এদের জন্মস্থান শীতপ্রধান ভুটানে। ভুটানের জাতীয় পশু হিসেবে গণ্য করা হয় এদের। তবে এই লুপ্তপ্রায় প্রাণী অস্তিত্ব বাঁচিয়ে রেখেছে বার্লিনের চিড়িয়াখানায়।

কলকাতার গরমে এই ধরনের প্রাণীকে বাঁচিয়ে রাখা দুরূহ। তাই দার্জিলিং-এর পদ্মজা নাইড়ু হিমালয়ান জুলজিকাল পার্কে এখন থেকে এরা থাকবে। গোরু এবং ছাগলের শঙ্করায়নের ফলে এই ধরনের প্রাণীর জন্ম।

আরও পড়ুন এই প্রথম ৫জি মোবাইল প্রযুক্তির রিমোর্টে প্রাণী শরীরে অস্ত্রোপচার, দেখুন ভিডিও

রাজ্যের অতিরিক্ত মুখ্য বনপাল বিনোদ কুমার যাদব বলেন, “এটি গোট অ্যান্টিল প্রাণী। এদের উচ্চতা ছাগলের থেকে অনেকটাই বেশি, এবং এদের দেখতে অনেকটা ভেড়ার মতো। খুব অল্প হলেও ভারতে এই ধরনের প্রাণী পাওয়া যায় অরুণাচল এবং সিকিমে।”

নতুন এই অতিথির বদলে দার্জিলিং চিড়িয়াখানার অন্যতম প্রধান আকর্ষণ রেড পান্ডার সংখ্যা কমে যাবে। এদের বদলে বার্লিনের চিড়িয়াখানায় পাঠানো হচ্ছে দু’টি রেড পান্ডা।

এ বার মিশমি টাকিন দেখার জন্য দার্জিলিং চিড়িয়াখানায় পর্যটকরা ভিড় করবেন, এমনই আশা করছেন রাজ্যের বনমন্ত্রী বিনয়কৃষ্ণ বর্মন।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here