Sovon Chatterjee

ওযেবডেস্ক: স্ত্রী রত্নার নামে বিবাহ-বহির্ভুত সম্পর্কের অভিযোগ তুললেন কলকাতার মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায়। গত বছরখানেক সময় ধরে শোভনবাবুর সঙ্গে বান্ধবী বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়ের সম্পর্ক নিয়ে রত্নাদেবী নিরবিচ্ছন্ন ভাবে অভিযোগ তুলে এসেছেন। মঙ্গলবার মন্ত্রিত্ব থেকে ইস্তফা দেওয়ার পর একটি বৈদ্যুতিন সংবাদ মাধ্যমের কাছে সাক্ষাৎকার দিতে গিয়ে তিনি এ বার স্ত্রীর ‘প্রেম’-এর বিষয়টি খুঁচিয়ে দিলেন।

অসময়ের বান্ধবী বৈশাখীকে কেন্দ্র করে শোভন-রত্নার সংসারে নেমে এসেছে চরম বিপর্যয়। আদালতে গড়িয়েছে মামলা। তার পরেও থামেনি বিবাদ। দু’তরফেই চলছে ঘরোয়া বিষয় নিয়ে সংবাদ মাধ্যমের সামনে সমানে কাদা ছোড়াছুড়ি। এরই মধ্যে শোভনবাবুর মন্ত্রিত্ব কেড়ে নিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এমনকী মেয়রপদ থেকেও তাঁকে ইস্তফা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন।

এ দিন সাক্ষাৎকার দিতে গিয়ে শোভনবাবু বলেন, “আমার কোনো ব্যবসা ছিল না। হঠাৎ করে শুনি জিসিআর নামে একটা কোম্পানির কথা। জিসিআর মানে কী, তা আমি জানতে চাই রত্নার কাছে। আমার এক আত্মীয়ের মাধ্যমে জানতে পারি জিসিআর মানে গোপাল-চিকু-রত্মা। কে এই চিকু। এক আত্মীয়র মাধ্যমে জানতে পারি অভিজিত গঙ্গোপাধ্যায়ের নাম। রত্মার কাছে জানতে চাই কে এই অভিজিত। সে দিনই তিনি আমাকে মুখের উপর বলেন, যদি পছন্দ না হয় আমাকে ডিভোর্স করে দাও…”।

এ ভাবেই নিজের স্ত্রীর বিবাহ-বহির্ভূত সম্পর্ক সম্বন্ধে প্রকাশ্যে অভিযোগ করেন শোভনবাবু। একই সঙ্গে তিনি জানান, অভিজিতের সঙ্গে রত্নাদেবীর সম্পর্ক নিয়ে প্রতিবাদও করেছেন। তিনি স্পষ্টতই বলেন, “অভিজিতের সঙ্গে প্রেম করছেন রত্না”।

আরও পড়ুন: বিজেপিতে যোগ দিচ্ছেন শোভন চট্টোপাধ্যায়! মেয়রপদ থেকে ইস্তফা দেওয়ার আগে কী বলছেন তিনি?

অন্য দিকে শোভনবাবুর এহেন অভিযোগকে সম্পূর্ণ ভাবে নস্যাৎ করে দিয়ে রত্মাদেবী দাবি করেছেন, “অভিজিত গঙ্গোপাধ্যায়কে আমার বাপেরবাড়ি এবং শ্বশুরবাড়ির প্রত্যেকেই চেনে”। তিনি শোভনবাবুর সমস্ত অভিযোগ নিয়ে ফের আদালতের দ্বারস্থ হবেন বলেও জানান।

শোভনবাবুর এমন অভিযোগের পর অভিজিত অবশ্য ওই সংবাদ মাধ্যমকেই জানিয়েছেন, রত্নীদেবীর সঙ্গে তাঁর সম্পর্ক দিদি-ভাইয়ের।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here