Baruipur Newborn death

নিজস্ব প্রতিনিধি,বারুইপুর: পাঁচ দিন বয়সের শিশুকন্যার মৃত্যু ঘিরে চিকিৎসায় গাফিলতির অভিযোগ উঠল বারুইপুর সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে ।

ঘটনার জেরে রোগীর পরিবার দুপুরে  বিক্ষোভে ফেটে পড়েন ।ঘটনাস্থলে যায় বারুইপুর থানার পুলিশ ।  বারুইপুর মহকুমা হাসপাতালের সুপার জয়া বন্‌যোপাধ্যায়ের কাছে তাঁরা এ ব্যাপারে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন । সহকারী সুপার শ্যামল চক্রবর্তী এই ঘটনার উপযুক্ত তদন্তের আশ্বাস দিয়েছেন । ঘটনা প্রসঙ্গে রোগীর পরিবারের তরফে আসিফ ইকবাল মোল্লা জানান , মগরা হাট থানার যুগদিয়ার বছর ২০ বছরের গৃহবধূ তসলিমা মোল্লা গত ১৭ ডিসেম্বর রবিবার দুপুরে প্রসবযন্ত্রণা নিয়ে বারুইপুর সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে ভর্তি হন। পর দিন দুপুরে তিনি এক কন্যা সন্তানের জন্ম দেন। তার ওজন ছিল ৩.২ কেজি । এর দু’দিনের মধ্যেই ওই শিশু কন্যার জণ্ডিস হলে তাকে এনসিইউ-তে স্থানান্তর করা হয় ।

২১ ডিসেম্বর থেকে শিশুটির শারীরিক অবস্থার অবনতি হতে থাকে। আসিফ জানান, ‘তখন আমরা হাসপাতালের চিকিৎসক, নার্সদের বলি আমাদের বাচ্চাকে ট্রান্সফার করা হোক। আমরা তাকে অন্য জায়গায় নিয়ে যেতে চাই কিন্তু তা করা হয়নি। এরপর  শনিবার সকালে বাচ্চা মারা যায় । চিকিৎসার গাফিলতি আর ট্রান্সফার করা হল না বলেই বাচ্চাটা মারা গেল ,আমরা শাস্তি চাই ওই চিকিৎসক ও নার্সদের ।’

এই ঘটনায় আসিফ  গুরুতর অভিযোগ এনে বলেন ,প্রসবের পর আয়ারা ১ হাজার টাকা জোর করে নিয়েছিল। বলেছিল, টাকা না দিলে শিশুকে ট্রান্সফার করা হবে না । আয়াদের জুলুম চলছে হাসপাতালে ।

বিকালে সহকারী সুপারের কাছে অভিযোগ জানানো হয়েছে । এই ঘটনার জেরে চাঞ্চল্য ছড়ায় হাসপাতালে ।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here