হিমাচলের ছ’হাজারি শৃঙ্গ জয় করল পানিহাটির নীলকণ্ঠ অভিযাত্রী সংঘ

0

পানিহাটি: হিমাচল প্রদেশের ‘চন্দ্রভাগা-১২’ শৃঙ্গ জয় করল পানিহাটির নীলকণ্ঠ অভিযাত্রী সংঘ। সফল ভাবে শেষ হল এই অভিযাত্রী সংঘের ২৩তম অভিযান।

সমুদ্রতল থেকে প্রায় ৬,২৩০ মিটার (২০,৪০০ ফুট) উচ্চতার এই শৃঙ্গ জয় করতে গত ২৯ আগস্ট রওনা দেন এই সংঘের সাত সদস্য। এই দলে সব থেকে বয়স্ক অভিযাত্রী ৭২ বছরের অমিয়কুমার বড়ুয়া এবং কনিষ্ঠতম অভিযাত্রী ২১ বছরের দুই তরুণ, প্রতনু দাস এবং অনিকেত সামন্ত। বাকি চার সদস্য হলেন শান্তনু চট্টোপাধ্যায়, অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়, মহুয়া বিশ্বাস এবং সন্দীপ বসু।

গত বছর জুলাইয়ে আকস্মিক ভাবে প্রাণ হারিয়েছিলেন পর্বতারোহণ জগতে খুব পরিচিত মুখ অরুপম দাস। নিজের পর্বতারোহণ জীবনে ২৩ বার বিভিন্ন শৃঙ্গ জয় করা অরুপমবাবুর স্মৃতিতে এই অভিযানে নেমেছিল নীলকণ্ঠ।

২ সেপ্টেম্বর বেসক্যাম্প স্থাপন করা হয়। সমুদ্রতল থেকে ৪৪০০ মিটার উচ্চতায় একটি জায়গায় এই ক্যাম্প স্থাপন করা হয়। দু’ দিন এই ক্যাম্পে অবস্থান করে ৫ সেপ্টেম্বর শৃঙ্গের দিকে অগ্রসর হয় অভিযাত্রী দলটি। বেসক্যাম্পে থেকে যান অমিয়বাবু, শান্তনুবাবু এবং অভিজিৎবাবু। বাকি চার অভিযাত্রীর সঙ্গে ছিলে তিন জন শেরপা, ডুকপা শেরিং, তেনজিং নরবু এবং পুরবা শেরপা।

আরও পড়ুন নাইটহুড পেলেন সৌরভকে ‘প্রিন্স অব ক্যালকাটা’ আখ্যা দেওয়া জেফ্রি বয়কট

৬ সেপ্টেম্বর শৃঙ্গজয়ের দিকে আরও কিছুটা এগিয়ে ক্যাম্প ২ স্থাপন করা হয়। এখান থেকে বেসক্যাম্পে ফিরে আসেন মহুয়া। ওই দিন রাত ১:৪০ (৭ সেপ্টেম্বর) ‘সামিট পুশ’ করেন প্রতনু, অনিকেত ও সন্দীপ। আবহাওয়া ভালো থাকলেও পথ মোটেও ভালো ছিল না বলে জানিয়েছেন শান্তনুবাবু। ৭ তারিখ সকাল ৭:০৫-এ চন্দ্রভাগা-১২ শীর্ষে পৌঁছে যায় এই অভিযাত্রী দল। প্রথমেই সেখানে অরুপমবাবুকে স্মরণ করে তাঁর একটি ছবি রাখা হয়। সেখানে পুজো দিয়ে আবার বেসক্যাম্পের পথে রওনা হয়ে যায় দলটি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here