বারাসত বিজেপি-তে ফের ভাঙন, ইস্তফা আরও ৫ সদস্যের

0

৬৯ জনের বারাসত সাংগঠনিক জেলা কমিটি থেকে ইস্তফা দিলেন মোট ২০ জন সদস্য।

বারাসত: আবারও ভাঙন বিজেপি-র বারাসত সাংগঠনিক জেলায়। জেলা সভাপতির বিরুদ্ধে তোপ দেগে ইস্তফা দিলেন উত্তর ২৪ পরগনার বারাসত সাংগঠনিক জেলার আরও পাঁচ সদস্য। এই নিয়ে গত এক সপ্তাহে জেলা কমিটি থেকে ইস্তফা দিলেন ২০ জন।

জেলা সভাপতির বিরুদ্ধে স্বেচ্ছাচারিতা এবং দুর্নীতির অভিযোগ তুলে রবিবার সাংবাদিক বৈঠক করে ইস্তফা দিলেন পাঁচ সদস্য। যদিও জেলা সভাপতি তাপস মিত্র যাবতীয় অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছেন। তাঁর দাবি, পদ না পেয়ে মিথ্যে অভিযোগ আনা হয়েছে তাঁর বিরুদ্ধে। রবিবার অশোকনগরে এক সাংবাদিক বৈঠক করে পদত্যাগের কথা ঘোষণা করেন চন্দন দাস-সহ জেলা কমিটির ওই পাঁচ জন সদস্য।

এর আগে ৬৯ জনের ওই জেলা কমিটি থেকে ইস্তফা দিয়েছিলেন ১৫ জন সদস্য। এ বার সরে দাঁড়ালেন আরও পাঁচ জন। দলের পুরনো কর্মীদের বাদ দিয়ে নতুন কর্মীদের অগ্রাধিকার দেওয়ার অভিযোগেই এই গণইস্তফা বলে জানা গিয়েছে। বিদ্রোহী নেতারা বলেন, “আমরা চাই, গোটা জেলায় সুষ্ঠ ভাবে কাজ চলুক। আসল লড়াই তো তৃণমূলের বিরুদ্ধে! তা না করে নিজেদের মধ্যেই লড়াই করতে হচ্ছে। সকলের কাছে অনুরোধ, আগামী দিনে সুষ্ঠ ভাবে কাজ চলুক। লড়াই হোক তৃণমূলের বিরুদ্ধে। তাদের হটিয়ে আমরা যেন ক্ষমতায় আসতে পারি। সভাপতি যে ভাবে কমিটি গড়ছেন, তাতে ক্ষোভ রয়েছে অনেকের”।

যাঁরা ইস্তফা দিয়েছেন তাঁদের অভিযোগ, বারাসত সাংগঠনিক জেলার বর্তমান সভাপতি পুরনোদের বাদ দিয়েই নতুন কর্মীদের হাতে মণ্ডল সভাপতি, ব্লক সভাপতি-সহ বিভিন্ন পদের দায়িত্ব তুলে দিচ্ছেন। সেই কারণেই তাঁরা জেলা কমিটি থেকে ইস্তফা দিচ্ছেন।

অন্য দিকে, তাপস মিত্র বলেন, “এর আগেও তো বলা হয়েছিল ১৫ জন ইস্তফা দিয়েছেন। আমি তাঁদের সঙ্গে কথা বলে জানতে পারি কাউকে ভুল বুঝিয়ে, কাউকে চাপ দিয়ে সই করানো হয়েছে। কেউ নিজের ইচ্ছায় সই করেননি। এ দিনের ইস্তফার কোনো কাগজ আমার কাছে এসে পৌঁছায়নি। পদ পাননি বলে কয়েকজন ইস্তফা দিয়েছেন বলে শুনেছি। বিজেপি একটি শৃঙ্খলাবদ্ধ দল। এখানে যতগুলো খুশি সহ সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক করা যায় না। এটা বুঝতে হবে”।

আরও পড়তে পারেন: 

‘অশনি’সংকেত! পিছোল মুখ্যমন্ত্রীর মেদিনীপুরের সফরসূচি

কোন হরিদাস? প্রশান্ত কিশোরকে পাত্তাই দিচ্ছেন না তেজস্বী যাদব

‘খুন করে ফেলে দেব, কেউ খুঁজে পাবে না’, ঘটনার রাতে অচেনা কণ্ঠস্বর শুনেছিলেন কাশীপুরের মৃত বিজেপি কর্মীর মা

বহরমপুরে তদন্ত প্রায় শেষ পর্যায়ে, সুতপা খুনে এ বার মালদহ যাওয়ার প্রস্তুতি পুলিশের

শুধুমাত্র কংগ্রেস সরকারই গরিব-মধ্যবিত্তকে স্বস্তি দিতে পারে, উদাহরণ-সহ দাবি রাহুল গান্ধীর

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন