Connect with us

উঃ ২৪ পরগনা

গোবরডাঙায় অনুষ্ঠিত হল প্রথম পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য না-ধার্মিক মানব সম্মেলন

গোবরডাঙা (উত্তর ২৪ পরগনা): যুক্তিবাদী-বিজ্ঞানমনস্ক-মানবিক জীবনভাবনার লক্ষ্যে রবিবার প্রথম পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য না-ধার্মিক মানব সম্মেলন অনুষ্ঠিত হল। সম্মেলনের আয়োজন করা হয় গোবরডাঙার দীপান্বিতা অনুষ্ঠানগৃহের গৌরীলঙ্কেশ সভাকক্ষে।

কল্পনা পালের উদ্বোধনী সংগীত পরিবেশনার মাধ্যমে সম্মেলনের সূচনা হয়। স্বাগত ভাষণ দেন দীপক কুমার দাঁ। শোক প্রস্তাব পাঠ করেন ডাক্তার  কমল সরকার। সম্মেলনে উদ্বোধনী ভাষণ দেন কল্যাণী বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক সব্যসাচী চট্টোপাধ্যায়। সম্মেলনের লক্ষ্য সম্পর্কে বক্তব্য রাখেন সুকুমার মিত্র।

সম্মেলনে যোগদানকারী প্রতিনিধিদের একাংশ।

রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ১৬২ জন প্রতিনিধি এই সম্মেলনে যোগ দেন। এমনকি প্রতিবেশী রাজ্য অসম এবং প্রতিবেশী রাষ্ট্র বাংলাদেশ থেকেও বিভিন্ন বিজ্ঞান ও পরিবেশ সংগঠনের প্রতিনিধিরা সম্মেলনে যোগ দেন। ছিলেন অধ্যাপক, শিক্ষক ও ছাত্র-ছাত্রীরা।

সম্মেলনের খসড়া প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, “প্রাতিষ্ঠানিক ধর্ম, ঈশ্বর বা সর্বশক্তিমান উপরওয়ালার ভাবনা, ভাববাদী চিন্তা ও অধ্যাত্মবাদে বিশ্বাসী নন এমন, বৈজ্ঞানিক বস্তুবাদে বিশ্বাসী বিজ্ঞানমনস্ক, কু-সংস্কারমুক্ত, যুক্তিবাদী মানবিক গুণসম্পন্ন মানুষদের মঞ্চ বা নেটওয়ার্ক তৈরির লক্ষ্যেন না-ধার্মিক মানব সম্মেলনের আয়োজন করা হয়েছে। এ ছাড়া ‘রাখে হরি মারে কে?’, আর ‘জীব দিয়েছেন যিনি আহার দেবেন তিনি’- এই দু’টি অন্ধ বিশ্বাস আমাদের দেশের অধিকাংশ মানুষকে আজও আচ্ছন্ন করে রেখেছে। এই দুই ভাবনার মূলে কুঠারাঘাত করে মানুষকে সচেতন ও সক্রিয় করাও সম্মেলনের অন্যতম লক্ষ্য।”

আরও পড়ুন: শিল্পাঞ্চলে বাস্তুতন্ত্র রক্ষার ব্যাপারে দ্য বেঙ্গল চেম্বারের আলোচনাসভা হলদিয়ায়

খসড়া প্রতিবেদনে আরও বলা হয়েছে, “ভারতীয় সংবিধানের ধর্মনিরপেক্ষ‌, ব্যক্তিস্বাতন্ত্র্যবাদ, বাকস্বাধীনতার মৌল বিষয়গুলি পদে পদে ভূ-লুণ্ঠিত। আজ ভয়ংকর হয়ে মাথা তুলছে, তা হল রাষ্ট্রীয় ধর্মসন্ত্রাসের বিভীষিকা। এর বিরুদ্ধে শুভবুদ্ধিসম্পন্ন মানুষের দ্বারা সমাজ জাগরণ প্রয়াস সংগঠিত করা একান্ত ভাবে জরুরি।”

সম্মেলনে বইপত্র ও পত্রিকার স্টল।

প্রত্যেক বক্তার যুক্তিনির্ভর বক্তব্যের মধ্য দিয়ে এ দিনের সম্মেলন প্রাণবন্ত হয়ে ওঠে। যে সময়ে ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরের জন্মের দ্বিশতবার্ষিকী পালিত হচ্ছে, ঠিক সেই সময়ে এই না-ধার্মিক মানব সম্মেলন আয়োজন করায় এর গুরুত্ব অনেক বেশি বেড়েছে।

সম্মেলনকে কেন্দ্র করে যুক্তিবাদী-বিজ্ঞানমনস্ক-না-ধার্মিক বিষয়ক বইপত্র ও পত্রিকা প্রর্দশনীর আয়োজন করা হয়।

উঃ ২৪ পরগনা

করোনা পরিস্থিতিতে পড়ুয়াদের স্বস্তি দিতে মাত্র ১টাকা ভর্তি ফি নেবে নৈহাটির ঋষি বঙ্কিম কলেজ

করোনা আবহে এমনিতেই সংসার চালাতে নাজেহাল অবস্থা। এই পরিস্থিতি উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষায় পাশের পর আরও উচ্চশিক্ষা চালিয়ে যাওয়া পড়ুয়াদের পরিবারের কাছে রীতিমতো চাপের বিষয় হয়ে গিয়েছে।

ঋষি বঙ্কিম কলেজ, দিবা বিভাগ

খবর অনলাইন ডেস্ক : নজিরবিহীন সিদ্ধান্ত নিল নৈহাটির ঋষি বঙ্কিম কলেজ। চলতি বছরে কলেজে ভর্তি হতে মাত্র ১টাকা ফি নেবে কলেজ কর্তৃপক্ষ।

করোনা আবহে এমনিতেই সংসার চালাতে নাজেহাল অবস্থা। এই পরিস্থিতি উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষায় পাশের পর আরও উচ্চশিক্ষা চালিয়ে যাওয়া পড়ুয়াদের পরিবারের কাছে রীতিমতো চাপের বিষয় হয়ে গিয়েছে। অনেকই উচ্চশিক্ষার পরিকল্পনা ত্যাগ করতে বাধ্য হচ্ছেন।

তাঁদের কথা ভেবেই উত্তর ২৪ পরগনার ঋষি বঙ্কিম কলেজের দিবা বিভাগ এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

জানা গিয়েছে, ফর্ম ফিলাপের জন্য দিতে হবে ৬০টাকা। আর ভর্তির জন্য লাগবে ১টা। গতবারে ভর্তির জন্য নেওয়া হয়েছিল ৩হাজার ৩০০টাকা।

এর ফলে কলেজের বিভিন্ন বিভাগের সমস্ত আসনে প্রায় দু’হাজার ৪০০ ছাত্র-ছাত্রী উপকৃত হবে।

কলেজের অধ্যক্ষ সঞ্জীব সাহা এদিন এবিপি আনন্দকে জানিয়েছেন, করোনার জন্য অনেক অভিভাবকদের হাতে টাকা নেই। এই অবস্থায় যাতে কোনও ছাত্র-ছাত্রী পড়াশুনোর সুযোগ থেকে বঞ্চিত না হন সে জন্য এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

কলেজ কী এমনটা করতে পারে?

নৈহাটির ঋষি বঙ্কিম কলেজ পশ্চিমবঙ্গ রাষ্ট্রীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীন। নিময় অনুযায়ী ভর্তির ফি নিয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া সম্পূর্ণ কলেজের হাতে।

বিশ্ববিদ্যালয় শুধু রেজিস্ট্রেশন ফি নেয়। অর্থিক অবস্থা অনুযায়ী কলেজগুলি কতটা ভর্তির ফি নেবে তা নিয়ে সিদ্ধান্ত নেয়। তার ফলে এক্ষেত্রে নিয়মগত কোনো বাধা থাকছে না বলে জানা গিয়েছে।

Continue Reading

উঃ ২৪ পরগনা

ডাক্তার দিবসে অশোকনগরে বৈশাখী উৎসব কমিটি তরফে স্বাস্থ্যশিবির

খবরঅনলাইন ডেস্ক: বুধবার ডাক্তার দিবসে অশোকনগর কল্যাণগড় পৌরসভা এলাকার আশরফাবাদে মানবসেবার কর্মসূচি হাতে নিল বৈশাখী উৎসব কমিটি। করোনা পরিস্থিতিতে যে সকল মানুষজন অসুস্থ অথচ অর্থের অভাবে ডাক্তার দেখাতে যেতে পারছেন না, তাঁদের কথা চিন্তা করে এই কাজটি করল। সেই সঙ্গে প্রেসার টেস্ট, সুগার টেস্ট, ওজনও মাপা হয়।

আরও পড়ুন: ডাক্তার দিবসে করোনা যোদ্ধাদের সম্মান জানাল সেনকো গোল্ড অ্যান্ড ডায়মন্ডস, পাশে আইএমএ, এনআরএস

এ দিন প্রতিটি কাজ করা হয় পুরোপুরি সরকারি নির্দেশিকা অনুযায়ী সমস্ত স্বাস্থ্যবিধি মেনে। প্রথমে স্যানিটাইজার দিয়ে হাত ধুয়ে, থার্মাল গান দিয়ে উষ্ণতা মেপে। তার পর একের পর টেস্ট ও ডাক্তার দেখানোর প্রক্রিয়া। প্রায় পঞ্চাশ জন মানুষকে এই পরিষেবা প্রদান করা হল। উপস্থিত ছিলেন ডাক্তার হীরক রায়। এই অনুষ্ঠানটি আশফরাবাদ কমিউনিটি হলে করা হয়। পুরোপুরি নিখরচায় সাধারণ মানুষের জীবনের কথা চিন্তা করে।

বৈশাখী উৎসব কমিটি সংস্থা আহবায়ক দেবাশিস মজুমদারের কথায়, “আমরা সমাজে সকল মানুষের কথা চিন্তা করি। শুধুমাএ করোনা জনিত পরিস্থিতির জেরে লকডাউন ঘোষণার পর থেকেই খাদ্যসামগ্রী ও জীবনদায়ী ওষুধ বিতরণ করেছি। এমনকি স্বেচ্ছায় রক্তদান শিবির করেছি পৌর এলাকার মধ্যে এই প্রথম।”

দেবাশিসবাবু আরও বলেন, আগামী প্রজন্মের কথা চিন্তা করে শিশুদের শিক্ষাসামগ্রী তুলে দেওয়ার কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে। সেই সঙ্গে আশফরাবাদের মানুষদের জীবনের কথা চিন্তা করে নিখরচায় শারীরিক পরীক্ষাশিবিরও আয়োজন করা হল।

দেবাশিসবাবু জানান, তাঁরা মানুষের জন্য সারা বছর ধরে কাজ করেন। কোনো রকম ব্যানার লাগে না তার জন্য। নীরবে নিঃশব্দেব্দে কাজ করতে বেশি পচ্ছন্দ করেন তারা।

Continue Reading

উঃ ২৪ পরগনা

‘পরিবেশ প্রভাব জরিপ ২০২০’ বাতিলের দাবিতে নৈহাটি স্টেশনে ‘ফ্রাইডে ফর ফিউচার’-এর জমায়েত

খবরঅনলাইন ডেস্ক: কোনো বড়ো প্রকল্প স্থাপনের আগে সেখানকার পরিবেশের উপর তার কী প্রভাব পড়বে তা জরিপ করা হয়। একে বলা হয়  এনভায়রনমেন্টাল ইমপ্যাক্ট অ্যাসেসমেন্ট (ইআইএ) (Environmental Impact Assesment, EIA) বা পরিবেশ প্রভাব জরিপ। এটি একটি আইনি বাধ্যবাধকতা।

এই ‘পরিবেশ প্রভাব জরিপ’ এড়িয়ে যাওয়ার জন্য এ সংক্রান্ত পুরোনো আইন সংশোধনের চেষ্টা করছে কেন্দ্রীয় বন ও পরিবেশ মন্ত্রক। এরই বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক পরিবেশ আন্দোলন ‘ফ্রাইডে ফর ফিউচার’-এর (Friday For Future) নৈহাটি শাখার তরফে রবিবার প্রতিবাদ-বিক্ষোভ দেখানো হল নৈহাটি স্টেশন চত্বরে।

যে কোনো বড়ো প্রকল্প স্থাপনের আগে পরিবেশের উপর তার প্রভাব খতিয়ে দেখা বাধ্যতামূলক। এই মূল্যায়ন পদ্ধতির একটা অঙ্গ হল অঞ্চলের অধিবাসীদের নিয়ে গণশুনানি, যা গণতন্ত্রের পক্ষে খুবই স্বাস্থ্যকর। এই পদ্ধতিকে লঘু করার জন্য কেন্দ্রীয় বন ও পরিবেশ মন্ত্রক জোর চেষ্টা চালাচ্ছে বলে পরিবেশবাদীদের অভিযোগ। জনমত সংগ্রহের জন্য ইআইএ ২০২০ নামে একটি প্রস্তাবনা বিভিন্ন গণমাধ্যমে দেওয়া হয়েছে। এ ভাবে কেন্দ্রীয় মন্ত্রক পুরোনো আইনটি সংশোধনের চেষ্টা করছে বলে পরিবেশবাদীরা বলছেন।

তাঁদের বক্তব্য, আইন হিসাবে এই খসড়া কার্যকর হলে পরিবেশ ধ্বংসের কাজ ত্বরান্বিত হবে। তাই এই খসড়া পুরোপুরি বাতিলের দাবি করেছে পরিবেশ সংগঠন ও অন্যান্য সামাজিক সংগঠন। এ নিয়ে লকডাউনের মধ্যেই তারা প্রচার আন্দোলন, গণস্বাক্ষর সংগ্রহ, প্রতিবাদী জমায়েত ইত্যাদি আয়োজন করছে এবং ক্রমশ তা বড়ো প্রতিরোধের রূপ নিচ্ছে।

বড়ো প্রকল্প স্থাপনের আগে এই পরিবেশ প্রভাব জরিপ এড়িয়ে যাওয়ার বিধান প্রস্তাবিত আইনে থাকায় কর্পোরেট সংস্থাগুলি এ দেশেরে জল-জঙ্গল-জমিকে নির্বিচারে লুঠ করবে বলে আশঙ্কা প্রতিবাদীদের।

২৮ জুন রবিবার ফ্রাইডে ফর ফিউচার-এর নৈহাটি শাখার পক্ষ থেকে নৈহাটি স্টেশন চত্বরে প্রতিবাদী জমায়েত করা হয় সকাল ১০টা থেকে ১২টা পর্যন্ত। পোস্টার-ব্যানার নিয়ে যাঁরা সেই জমায়েতে যোগ দিয়েছিলেন তাঁদের বেশির ভাগই বিভিন্ন বিদ্যালয় ও মহাবিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রী। কয়েক জন শিক্ষক-শিক্ষিকাও ওই জমায়েতে যোগ দেন। ‘পরিবেশ প্রভাব জরিপ ২০২০’-এর খসড়াটি সম্পূর্ণ ভাবে অবিলম্বে বাতিলের দাবি ওঠে ওই জমায়েত থেকে।

Continue Reading
Advertisement

বিশেষ প্রতিবেদন

Advertisement
শিল্প-বাণিজ্য10 hours ago

লকডাউনেও ২২ শতাংশ নিট মুনাফা বাড়ল বিপিসিএলের

রাজ্য10 hours ago

আক্রান্তের সংখ্যায় রেকর্ড, তবে দীর্ঘদিন পর রাজ্যে দৈনিক সংক্রমণের হার নামল দশ শতাংশের নীচে

বিজ্ঞান10 hours ago

অক্সফোর্ড করোনা ভ্যাকসিন আপডেট: নভেম্বরের মধ্যে শেষ হবে হিউম্যান ট্রায়াল

গাড়ি ও বাইক11 hours ago

ব্যাটারি ছাড়াই কেনা যাবে ইলেকট্রিক গাড়ি, নির্দেশ কেন্দ্রের

অনুষ্ঠান11 hours ago

রবীন্দ্রনাথের সৃষ্টির হাত ধরে প্রয়াত অমলা শঙ্করের প্রতি অনলাইন অনুষ্ঠানে শ্রদ্ধাঞ্জলি অগ্নিবীণা ডান্স অ্যাকাডেমির

দেশ11 hours ago

ভারত-বাংলাদেশের সম্পর্ক রক্তের, বললেন নৌপ্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী

রাজ্য12 hours ago

পেশাগত রোগ সিলিকোসিসে ঝরছে শ্রমিকের প্রাণ! দায় নেবে কে?

ক্রিকেট12 hours ago

কোহলি-স্মিথ-উইলিয়ামসনরা অভিষেক করার আগে শেষ টেস্ট খেলেছিলেন তিনি, ফের সুযোগ পেলেন বৃহস্পতিবার

কেনাকাটা

care care
কেনাকাটা18 hours ago

চুল ও ত্বকের বিশেষ যত্নের জন্য ১০০০ টাকার মধ্যে এই জিনিসগুলি ঘরে রাখা খুবই ভালো

খবরঅনলাইন ডেস্ক : পার্লার গিয়ে ত্বকের যত্ন নেওয়ার সময় অনেকেরই নেই। সেই ক্ষেত্রে বাড়িতে ঘরোয়া পদ্ধতি অনেকেই অবলম্বন করেন। বাড়িতে...

কেনাকাটা1 week ago

ঘর ও রান্নাঘরের সরঞ্জাম কিনতে চান? অ্যামাজন প্রাইম ডিলে রয়েছে ৫০% পর্যন্ত ছাড়

খবরঅনলাইন ডেস্ক : অ্যামাজন প্রাইম ডিলে রয়েছে ঘর আর রান্না ঘরের একাধিক সামগ্রিতে প্রচুর ছাড়। এই সেলে পাওয়া যাচ্ছে ওয়াটার...

কেনাকাটা1 week ago

এই ১০টির মধ্যে আপনার প্রয়োজনীয় প্রোডাক্টটি প্রাইম ডে সেলে কিনতে পারেন

খবরঅনলাইন ডেস্ক : চলছে অ্যামাজনের প্রাইমডে সেল। প্রচুর সামগ্রীর ওপর রয়েছে অনেক ছাড়। ৬ ও ৭  তারিখ চলবে এই সেল।...

কেনাকাটা1 week ago

শুরু হল অ্যামাজন প্রাইম ডে সেল, জেনে নিন কোন জিনিসে কত ছাড়

খবরঅনলাইন ডেস্: শুরু হল অ্যামাজন প্রাইম ডে সেল। চলবে ২ দিন। চলতি মাসের ৬ ও ৭ তারিখ থাকছে এই অফার।...

things things
কেনাকাটা2 weeks ago

করোনা আতঙ্ক? ঘরে বাইরে এই ১০টি জিনিস আপনাকে সুবিধে দেবেই দেবে

খবরঅনলাইন ডেস্ক : করোনা পরিস্থিতিতে ঘরে এবং বাইরে নানাবিধ সাবধানতা অবলম্বন করতেই হচ্ছে। আগামী বেশ কয়েক মাস এই নিয়মই অব্যাহত...

কেনাকাটা2 weeks ago

মশার জ্বালায় জেরবার? এই ১৪টি যন্ত্র রুখে দিতে পারে মশাকে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: একে করোনা তায় আবার ডেঙ্গুর প্রকোপ শুরু হয়েছে। এই সময় প্রতি বারই মশার উৎপাত খুবই বাড়ে। এই বারেও...

rakhi rakhi
কেনাকাটা3 weeks ago

লকডাউন! রাখির দারুণ এই উপহারগুলি কিন্তু বাড়ি বসেই কিনতে পারেন

সামনেই রাখি। কিন্তু লকডাউনের মধ্যে মনের মতো উপহার কেনা একটা বড়ো ঝক্কি। কিন্তু সেই সমস্যা সমাধান করতে পারে অ্যামাজন। অ্যামাজনের...

কেনাকাটা3 weeks ago

অনলাইনে পড়াশুনা চলছে? ল্যাপটপ কিনবেন? দেখে নিন ৪০ হাজার টাকার নীচে ৬টি ল্যাপটপ

ইনটেল প্রসেসর সহ কোন ল্যাপটপ আপনার অনলাইন পড়াশুনার কাজে লাগবে জেনে নিন।

কেনাকাটা4 weeks ago

করোনা-কালে ঘরে রাখতে পারেন ডিজিটাল অক্সিমিটার, এই ১০টির মধ্যে থেকে একটি বেছে নিতে পারেন

শরীরে অক্সিজেনের মাত্রা বুঝতে সাহায্য করে এই অক্সিমিটার।

কেনাকাটা4 weeks ago

লকডাউনে সামনেই রাখি, কোথা থেকে কিনবেন? অ্যামাজন দিচ্ছে দারুণ গিফট কম্বো অফার

খবরঅনলাইন ডেস্ক : সামনেই রাখি। কিন্তু লকডাউনের মধ্যে দোকানে গিয়ে রাখি, উপহার কেনা খুবই সমস্যার কথা। কিন্তু তা হলে উপায়...

নজরে

Click To Expand