বেলঘরিয়ায় তৃণমূল নেতার হেনস্থাকাণ্ডে ২টি অনলাইন পোর্টালের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ

0

ব্যারাকপুর: বেলঘরিয়ায় বিজয়া সম্মিলনীতে অংশ নিতে গিয়ে হেনস্থার শিকার তৃণমূল নেতা শংকর রাউত দু’টি অনলাইন পোর্টালের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করলেন বরানগর থানায়। রবিবার থানায় দায়ের করা অভিযোগপত্রে তৃণমূল নেতা লেখেন, তাঁর নামকে কলুষিত করার উদ্দেশেই ওই অনলাইন পোর্টাল দু’টি ভিত্তিহীন খবর সম্প্রচার করেছে।

ঘটনার সূত্রপাত গত ২১ অক্টোবর। ওই দিন বেলঘরিয়া প্রসাদনগর আবাসন এলাকায় এক পরিচিতের বাড়িতে বিজয়া সম্মিলনী সারতে গিয়ে আক্রান্ত হন বরানগরের তৃণমূল নেতা শংকর রাউত। কামারহাটির বিধায়ক মদন মিত্রের ঘনিষ্ঠ হিসেবে পরিচিত আরমান মালিক নামে এক যুবকের নেতৃত্বে বেশ কয়েকজন মিলে আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে সেখানে উপস্থিত পাঁচ-ছ’টি পরিবারের মহিলাদের উপর চড়াও হয় বলে অভিযোগ করেন শংকর। বেশ কয়েক ঘণ্টা পরে পুলিশের হস্তক্ষেপে তাঁরা সেখান থেকে বেরিয়ে আসেন।

তবে ওই ঘটনার খবর যে দুই অনলাইন পোর্টাল সম্প্রচার করে, তাদের খবর পরিবেশনের ধরন নিয়েই প্রশ্ন তুলেছেন উত্তর বরানগর যুব তৃণমূলের সাধারণ সম্পাদক শংকর। তাঁর অভিযোগ, “হুগলি এবং বেলঘরিয়ার দু’টি অনলাইন পোর্টাল আমার নামকে কলুষিত করার জন্য সম্পূর্ণ মিথ্যা, ভিত্তিহীন এবং তথ্যহীন একটি সংবাদ প্রকাশ করে। ওই সংবাদটি সম্পূর্ণ উদ্দেশ্য প্রণোদিত ভাবেই পরিবেশন করা হয়েছে”।

তিন দিনের সময়সীমা বেঁধে দিয়ে অনলাইন পোর্টালগুলোকে আইনি নোটিশ পাঠাচ্ছেন তৃণমূল নেতা। নচেত, মানহানির মামলা করবেন তিনি। এ দিকে বরানগর থানা সূত্রে খবর, এ ব্যাপারে একটি অভিযোগ পাওয়া গিয়েছে। যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

পাশাপাশি হেনস্থার ঘটনায় তিনি যাঁর দিকে অভিযোগের আঙুল তুলেছেন, সেই আরমান মালিকের বিরুদ্ধেও আইনানুগ পদক্ষেপ নিতে চলেছেন বলে জানান শংকর। তিনি বলেন, “আরমান মালিকের বিরুদ্ধেও আমি বেলঘরিয়া থানায় অভিযোগ দায়ের করব”।

কী ঘটেছিল সে রাতে? বিস্তারিত পড়ুন এখানে ক্লিক করে: বিজয়া সম্মিলনী সারতে গিয়ে আক্রান্ত তৃণমূল নেতা, আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে মহিলাদের উপর চড়াও হওয়ার অভিযোগ

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন