আকাশ পরিষ্কার হতেই ঢুকল উত্তুরে হাওয়া, আগামী দিনে পারদের বড়োসড়ো পতনের সম্ভাবনা

0

ওয়েবডেস্ক: বৃহস্পতিবার বিকেলেই বৃষ্টির মেঘ কেটে গিয়েছে। শুক্রবার সকালে কুয়াশা ছিল কলকাতা-সহ দক্ষিণবঙ্গের বিভিন্ন প্রান্তে। কিন্তু বেলা বাড়তেই দেখা মিলেছে রোডের। ঢুকে পড়েছে উত্তুরে হাওয়া।

এমনিতে বৃহস্পতিবারের থেকে শুক্রবার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা অনেকটাই কম রেকর্ড করা হয়েছে। এ দিন কলকাতায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১৬.৮ ডিগ্রি। গত ২৪ ঘণ্টায় পারদ প্রায় দু’ডিগ্রি নেমেছে।

শীত ফিরেছে পশ্চিমাঞ্চলেও। আসানসোল, বাঁকুড়া, পুরুলিয়া, পানাগড় সর্বত্র তাপমাত্রা নেমে গিয়েছে ১৩ ডিগ্রির ঘরে। আগামী ৪৮ ঘণ্টায় তা আরও নামার সম্ভাবনা।

উল্লেখ্য, পশ্চিমী ঝঞ্ঝা এবং একটি ঘূর্ণাবর্তের জোড়া ফলায় বুধ আর বৃহস্পতিবার বৃষ্টি হয়েছে সমগ্র দক্ষিণবঙ্গে। এর মধ্যে বৃহস্পতিবার কলকাতা এবং তার পার্শ্ববর্তী অঞ্চলে যে দাপটে ঝড়বৃষ্টি হয়েছে সে ধরনের ঘটনা জানুয়ারিতে আগে কখনও হয়নি বলেই মনে করা হচ্ছে।

আকাশ কালো করে তীব্র ঝড়বৃষ্টি, সাধারণত গরম কালেই দেখা যায়। কিন্তু শীতের মরশুমে এই ধরনের ঝড়বৃষ্টি যথেষ্ট চিন্তার কারণ। জলবায়ু পরিবর্তনের ইঙ্গিত কি না, সেই প্রশ্নও তুলে দিয়েছে।

তবে বৃহস্পতিবারের ওই ঝড়বৃষ্টির পরেই আকাশ পরিষ্কার হতে শুরু করে। উত্তুরে হাওয়া খুব একটা জোরালো না হলেও, এ দিন সকাল থেকে তা বইছে ভালো ভাবেই।

আবহাওয়া বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন আগামী ৪৮ থেকে ৭২ ঘণ্টা আবার শীত থাকবে গোটা দক্ষিণবঙ্গে। কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১২-১৩ ডিগ্রির ঘরে নেমে যেতে পারে। পশ্চিমাঞ্চলের তাপমাত্রা যে দশের নীচে নামবে সেটা এখনই বলে দেওয়া যায়।

ফলে বিদায়ের মুখেও ঘুরে দাঁড়াতে প্রস্তুত শীত। যদিও সামনের সপ্তাহে শেষের দিকে আবারও বৃষ্টির একটা সম্ভাবনা তৈরি হতে শুরু করেছে।

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন