manas bhuniya

কলকাতা: সবং উপনির্বাচনে চতুর্মুখী লড়াই হলেও রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস এবং কেন্দ্রের শাসক দল বিজেপির কাছে রীতিমতো মানরক্ষার যুদ্ধ। অতীতে সবং বিধানসভায় এই দুই দলের কেউই জয়ের স্বাদ পায়নি। কিন্তু সাম্প্রতিক রাজনৈতিক প্রেক্ষাপট মেনে নিয়ে বিজেপি এবং তৃণমূলকে কথার দাম রাখতে হলে সবংয়ে জিতে দেখাতেই হবে। যে কারণে সিপিএম বা কংগ্রেসের আরও দুই প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করলেও ওই দুই শাসকদলের প্রচার অন্য মাত্রা পেয়ে গিয়েছে। এ বার বিজেপির প্রচারে যুক্ত হয়েছে আধুনিক ভিডিও প্রচার। তবে সেই ভিডিও মোট‌েই তৃণমূলের বিরুদ্ধে নয়। বিজেপির নিশানার কেন্দ্রবিন্দুতে রয়েছেন কংগ্রেসত্যাগী বিধায়ক, বর্তমানে তৃণমূল সাংসদ ডা. মানস ভুঁইয়া।

গত ২০১৬ বিধানসভা নির্বাচনে মানসবাবু বাম-কংগ্রেস জোট প্রার্থী হিসাবে জিতেছিলেন ৫৯.৭০ শতাংশ ভো‌‌‌ট পেয়ে। সে বার তৃণমূল পেয়েছিল ৩৬.৬০ শতাংশ। বিজেপির ভাগ্যে জু‌টেছিল মাত্র ২.৬০ শতাংশ ভো‌‌ট। এ বার বামফ্রন্ট এবং কংগ্রেস পৃথক প্রার্থী দেওয়ায় ভো‌ট ভাগাভাগির অঙ্ক তো থাকছেই। তার উপর বিজেপির ক্রমশ ঊর্ধ্বমুখী আস্ফালন। ফলে তৃণমূল এবং বিজেপি – এই দুইয়ের লড়াই-ই মুখ্য আলোচ্য বিষয় হয়ে উঠেছে। এবং এই দুই দলের নির্বাচনী প্রচারের মুখ স্বাভাবিক ভাবেই মানসবাবু। কারণ, গত বার বামেদের সঙ্গে জোট করলেও মাঝের দু’টি নির্বাচন বাদ দিলে ১৯৮২ থেকে তিনি এই আসনে জিতে আসছেন। এবং সেই জয়ের মার্জিনও যথেষ্ট চমকপ্রদ।

আরও পড়ুন: সবংয়ে আট কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী, তৃণমূল তোয়াক্কা না করলেও বাকিরা কী ভাবছে?

বিজেপির প্রচারেও তাই মোক্ষম অস্ত্র মানস-ফ্যাক্টর। তৃণমূলের বিরুদ্ধে আরও স্পষ্ট করে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে একদা কংগ্রেস বিধায়ক মানসবাবু প্রকাশ্য জনসভা বা টেলিভিশন চ্যানেলে ঠিক কী রকম মন্তব্য করেছিলেন, সেগুলিকেই ভোটারদের কাছে বেশি করে তুলে ধরছে তারা। কংগ্রেসে থাকাকালীন তিনি বেশ পরিশীলিত ভাষায়, নিজস্ব ঢংয়ে মমতাকে ‘মিথ্যাবাদী’ আখ্যায় অভিহিত করতেন বার বার। মমতার কাজে ও কথায় কতটা ফারাক, সে সব বিষয় নিয়েও মন্তব্য করতেন। সেই সব ভিডিও ফুটেজকে সিডি-বদ্ধ করে বিজেপি নিজেদের মিটিংয়ে প্রদর্শন করছে।

যদিও এ সব নিয়ে মাথা ঘামাতে চাইছে না তৃমমূল শিবির। মানসবাবু তো নন-ই। তিনি ঘনিষ্ঠ মহলে বলেছেন, তা হলে তো ওদের দলের এখনকার সব থেকে চর্চিত এক প্রাক্তন তৃণমূল নেতার কথাও দেখানো যায়। কিন্তু তৃণমূলের এ সবের প্রয়োজন নেই।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here