স্বাস্থ্য ভবনে ফের ধুন্ধুমার পরিস্থিতি! রাস্তায় বসে পড়লেন আন্দোলনকারীরা, ব্যাপক যানজট

0

কলকাতা: রাজ্যের সরকারি হাসপাতালে নার্স নিয়োগে বেনিয়মের অভিযোগে সোমবার ধুন্ধুমার পরিস্থিতি তৈরি হয় স্বাস্থ্য ভবন চত্বরে। মঙ্গলবারেও বিক্ষোভের আঁচ রয়েছে ব্যাপক। বিক্ষোভের আশংকায় আগে থেকেই মোতায়েন করা হয় র‍্যাফ, রয়েছেন উচ্চপদস্থ পুলিশ আধিকারিকরা। তবে আন্দোলনকারীরা রাস্তায় বসে পড়লে ব্যাপক যানজটের সৃষ্টি হয় এলাকায়।

গতকাল সল্টলেকের স্বাস্থ্য ভবনের বাইরে পুলিশের সঙ্গে ব্যাপক ধস্তাধস্তি বেসরকারি হাসপাতালের নার্সদের। এ দিনেও সেই আশংকা রয়ে যাওয়ায় শুধুমাত্র পরিচয়পত্র দেখিয়ে ভিতরে ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে। দুপুরে নার্সরা ফের বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন। গন্ডগোল ও বিশৃঙ্খলা এড়াতে তাঁদের আটকানো হয়। এরই মধ্যে দেখা যায়, আন্দোলনকারীরা ব্যরিকেড সরানোর চেষ্টা করেন। তা রুখতে গিয়ে হুমড়ি খেয়ে যান পুলিশকর্মীরা। ধাক্কা খেয়ে মাটিতে ছিটকে পড়েন বেশ কয়েক জন আন্দোলনকারী।

আন্দোলনকারীদের দাবি, করোনা পরিস্থিতিতে বিভিন্ন হাসপাতালে তাঁরা নার্সিংয়ের কাজ করেন। তাঁদের সরকারি হাসপাতালে নিয়োগে অগ্রাধিকার দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু গত ২০ মে স্বাস্থ্য দফতর যে নতুন প্যানেল প্রকাশ করে সেখানে ২০১৮, ১৯ এবং ২০ সালের কারও নাম নেই। সবাই ২০২১ সালে নার্সিং ডিগ্রি পাওয়া প্রার্থী। এমনকী রেজিস্ট্রেশন নেই অথচ প্যানেলে নাম রয়েছে, এমন চাকরিপ্রার্থীও রয়েছেন।

আন্দোলনকারীদের নিয়ন্ত্রণে আনতে এ দিনেও ব্যর্থ পুলিশ। তবে আন্দোলনকারীদের বক্তব্য, তাঁরা পুলিশের সঙ্গে কোনো কথা বলতে চান না। স্বাস্থ্যমন্ত্রী তাঁদের সঙ্গে কথা বলুন, দাবি-দাওয়া মেনে নিন, এটাই দাবি তাঁদের।

আরও পড়তে পারেন:

প্রত্যাবর্তনের পরই তৃণমূলে গুরুদায়িত্ব পেলেন অর্জুন সিংহ

সরকারি কর্মচারীদের জন্য সুখবর! পেনশনের নিয়মে বড়ো পরিবর্তন কেন্দ্রের

শিক্ষিকা হওয়ার স্বপ্ন পূরণ হলেও আন্দোলন থেকে সরতে নারাজ সোমা

প্রচুর সংখ্যক মহিলা পুলিশকর্মী নিয়োগ করবে রাজ্য, ছাড়পত্র মিলল মন্ত্রীসভার বৈঠকে

সিবিআই এবং ইডি-র মতো কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থাকে স্বায়ত্বশাসন দিতে হবে, দাবি তুললেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন