কল্যাণী, নদিয়া: বিধানচন্দ্র কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে অবস্থানরত ছাত্রদের ওপর বহিরাগতদের হামলায় আহত অন্তত ২০ জন পড়ুয়া। ছাত্রীদের শ্লীলতাহানি করার অভিযোগ।

ক্যাম্পাসে পুলিশ ঢোকার বিরোধিতা সহ একগুচ্ছ দাবিতে গত ৬ সেপ্টেম্বর থেকে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে অবস্থান করছেন পড়ুয়ারা। এদিন সন্ধ্যায় অবস্থানরত পড়ুয়াদের একাংশ চা খেতে বেরিয়েছিলেন। তখন অবস্থানে বসেছিলেন পাঁচ জন। সেই সময় প্রায় ৬০-৭০ জনের একটি বহিরাগত দল মুখ ঢেকে সেখানে গিয়ে পড়ুয়াদের ব্যাপক মারধর করে, মেয়েদের ফেলে পেটায়। এমনকি লেডিজ হস্টেলে গিয়ে মেয়েদের শ্লীলতাহানিও করে। কয়েকজন পড়ুয়া ঘটনার রেকর্ডিং করছিলেন বলে চারজনের মোবাইল কেড়ে নেওয়া হয়। আন্দোলনরত পড়ুয়াদের অভিযোগ, বহিরাগতদের নেতৃত্বে ছিলেন স্থানীয় তৃণমূল ছাত্র নেতা রাকেশ পাড়ুই।

আরও পড়ুন: বিধানচন্দ্র কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যকে ২৪ ঘণ্টার সময়সীমা বেঁধে দিলেন অবস্থানরত পড়ুয়ারা

ঘটনার পর আন্দোলনরত পড়ুয়াদের সমর্থনে বহু ছাত্রছাত্রী হস্টেল থেকে বেরিয়ে এসে ১৫ মিনিট রাস্তা অবরোধ করে। ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয় বিশাল পুলিশ বাহিনী। পুলিশের সামনেই ওই বহিরাগতরা আন্দোলনকারীদের দিকে ঢিল ছোঁড়ে বলে আন্দোলনকারীদের দাবি। তাতে তিনজন পড়ুয়ার নাক ভেঙে গেছে। সব মিলিয়ে প্রায় ২০ জন পড়ুয়া জখম। কারও হাত ভেঙেছে, কারও পায়ে গুরুতর চোট লেগেছে। কয়েকজন হাসপাতালে ভর্তি।

ক্যাম্পাসে যখন তাণ্ডব চলছে, তখন উপাচার্য, স্টুডেন্ট ওয়েলফেয়ার ডিন- সকলের ফোন বন্ধ ছিল বলে দাবি আন্দোলনকারীদের। ঘটনার প্রতিক্রিয়া জানার জন্য উপাচার্য ধরণীধর পাত্রর সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা করলে দেখা যা, তাঁর ফোন বন্ধই রয়েছে।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন