TMC and BJP
প্রতীকী ছবি

বারাসাত: এ তো পুরোপুরি উলটপুরান। এমন একটা সময়ে যখন তৃণমূল থেকে বিজেপি শিবিরে নাম লেখাচ্ছেন বিধায়ক-কাউন্সিলররা, তখন উলটোটাও ঘটছে। বুধবারই বিজেপি শিবির থেকে তৃণমূলে এলেন ১৩০০ নেতা-কর্মী। ঘটনাস্থল সেই উত্তর ২৪ পরগণাই।

বুধবার বারাসতে তৃণমূল কংগ্রেসের কোর কমিটির বৈঠক হয়। মন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিকের পাশাপাশি ওই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন একাধিক শীর্ষস্থানীয় নেতানেত্রী। উপস্থিত ছিলেন তৃণমূলের কাঁচরাপাড়ার কার্যকরী সভাপতি আলোরানি সরকারও। তাঁর উদ্যোগেই গারুলিয়া থেকে ৫৪৮ জন ও বারাসত থেকে ৭৭৮ জন বিজেপি কর্মী তৃণমূলে যোগ দেন। পোড়খাওয়া নেত্রী হিসেবে আলোরানির খ্যাতি রয়েছে দলে। তাঁর উদ্যোগে এই ঘটনা ঘটায় কিছুটা হাফ ছেড়ে বেঁচেছে তৃণমূল নেতৃত্ব।

আরও পড়ুন কৌশল বদলে ভারত-শ্রীলঙ্কার দিকে নজর দিচ্ছে আইএস জঙ্গিরা, চরম সতর্কতা চার রাজ্যে

উল্লেখ্য, লোকসভা নির্বাচনে পশ্চিমবঙ্গে ১৮টি আসন দখল করে বিজেপি। গেরুয়া শিবিরের এই উত্থানে রীতিমতো মোড় ঘুরে যায় রাজ্য রাজনীতির। শুরু হয় দলবদলের হিড়িক। মুকুল রায়ের ছেলে শুভ্রাংশু-সহ বিজেপিতে যোগ দেন বেশ কয়েক জন। এখনও তৃণমূল থেকে বিজেপিতে যোগদানের পালা চলছে। কিন্তু এরই মধ্যে বিজেপি থেকে তৃণমূলে আশা নেতাকর্মীরা যে মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মুখে হাসি ফোটাবেন, তা বলাই বাহুল্য।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here