পার্থ চট্টোপাধ্যায়

কলকাতা : টেট নিয়ে সমস্যা মেটাতে নতুন করে বিজ্ঞপ্তি জারি করা হবে। এক সাংবাদিক সম্মেলনে বুধবার এ কথা বললেন, শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। ১৫ নভেম্বর এই বিজ্ঞপ্তি জারি করা হবে। এই নতুন বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী টেট পরীক্ষায় বসার সুযোগ পাবেন প্রশিক্ষিতদের সঙ্গে সঙ্গে প্রশিক্ষণরতরাও।  পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের মতে টেট নিয়ে উদ্দেশ্য প্রণোদিত ভাবে বারংবার মামলা করা হচ্ছে। এর ফলে হাজার হাজার প্রার্থীকে সমস্যায় পড়তে হচ্ছে। শিক্ষামন্ত্রী আরও জানান, হাইকোর্টের মামলার দ্রুত নিষ্পত্তির চেষ্টা করবে রাজ্য সরকার।

এ দিন শিক্ষামন্ত্রী কলেজগুলোকে নির্দেশ দেন, ১৫ নভেম্বরের মধ্যে প্রথম বর্ষের প্রশিক্ষণরতদের পরীক্ষার ফল প্রকাশ করতে হবে। প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ নিয়ে কোনো বিলম্ব মেনে নেওয়া হবে না।

শিক্ষা দফতরের এই নতুন বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী প্রশিক্ষণে নাম নথিভুক্ত হলেই পরীক্ষায় বসার সুযোগ মিলবে প্রার্থীদের। উল্লেখ্য ২০১৫ থেকে ২০১৭ সালের মধ্যে রাজ্যের কয়েকশো প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের পড়ুয়ার সংখ্যা লক্ষাধিক। এই নিয়োগ হবে এনসিটিই-এর নিয়ম মেনেই।

টেট পরীক্ষার প্রস্তুতি : একগুচ্ছ সম্ভাব্য প্রশ্নোত্তর

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি ২৩ অক্টোবর প্রকাশিত বিজ্ঞপ্তিতে কেবল প্রশিক্ষণ প্রাপ্তদের সুযোগ দেওয়া হয়েছিল। বলা হয়েছিল উচ্চ মাধ্যমিক ও সমতুল পরীক্ষায় যাঁরা ৫০% নম্বর পেয়েছেন ও প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত শুধু তাঁরাই টেট পরীক্ষায় বসতে পারবেন। তাই নিয়ে শুরু হয় নানান বিতর্ক। এর বিরুদ্ধে ২০০ জন প্রশিক্ষণরত প্রার্থী হাইকোর্টে মামলা করেন। সেই মামলার শুনানিতে শিক্ষা দফতরকে বিচারপতি অরিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায় এই ২০০ জন প্রার্থীকে পরীক্ষায় বসতে দেওয়ার নির্দেশ দেন। বলেন, এঁদের মধ্যে ৫০% এর কম নম্বর পাওয়া স্পেশাল এডুকেটররাও এই পরীক্ষা দিতে পারবেন।

এর পরও আরও শতাধিকপ্রার্থী আদালতে ফের মামলা করেন। তাঁদের দাবি ছিল ২০১৭-র টেট পরীক্ষার বিজ্ঞপ্তিটাই ভুল। তা বাতিল করে নতুন বিজ্ঞপ্তি জারির নির্দেশ দিক উচ্চ আদালত। সেই জটিলতা মুক্ত করতেই এই সিদ্ধান্ত দফতরের।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here