ঝলমলে আকাশে হাসছে কাঞ্চনজঙ্ঘা, দুর্যোগ কাটল উত্তরবঙ্গে

0

দার্জিলিং: বুধবার দুপুর থেকেই আবহাওয়ার উন্নতি হচ্ছিল। বৃহস্পতিবার সকাল থেকে এক্কেবারে অন্য মেজাজ পাহাড়ে। দুর্যোগের মেঘ সরিয়ে দেখা দিল ঝলমলে কাঞ্চনজঙ্ঘা। তুষারাবৃত এই শৃঙ্গকে নিজের মহিমায় দেখেই হাসি ফুটেছে পাহাড়ে।

এখনও পাহাড়ে জায়গায় জায়গায় ধস রয়েছে। প্রচুর রাস্তা এখনও বন্ধ। কিন্তু অনেক রাস্তা আবার ধীরে ধীরে খুলে দেওয়াও হচ্ছে। স্বাভাবিক হচ্ছে যান চলাচলও।

বুধবার দুপুরের পর থেকে পাহাড়ের মূল সড়কগুলো মোটামুটি যান চলাচলের যোগ্য করে দেওয়া হয়েছে। এনজেপি থেকে দার্জিলিং যাওয়া যাচ্ছে। তবে সিকিম এবং কালিম্পং যাওয়ার মূল সড়ক, অর্থাৎ ১০ নম্বর জাতীয় সড়কে এখনও ধস রয়েছে। এর ফলে গোরুবাথান, লাভা দিয়ে কালিম্পং এবং সিকিমগামী গাড়িগুলোকে ঘুরিয়ে দেওয়া হচ্ছে।

বৃষ্টি ধরে আসায় সমতলের নদীগুলোতেই জলস্তর ধীরে ধীরে কমতে শুরু করেছে। সব মিলিয়ে মানুষ এখন স্বস্তিতে।

তবে গত কয়েকদিনের রেকর্ড বর্ষণ পরিকাঠামোর দিক দিয়ে পাহাড়ে অনেক ক্ষতি করে দিয়ে গিয়েছে। প্রচুর রাস্তা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ভেঙে গিয়েছে বেশ কিছু বাড়ি। সেগুলোকে নতুন করে গড়ে তুলতে অনেক কাঠখড় পোড়াতে হবে।

তবে আপাতত আকাশ পরিষ্কার হয়ে যাওয়ায় মানুষ শান্তিতে। যদিও বৃষ্টির সম্ভাবনা এখনও রয়েছে। শনিবার থেকে উত্তর ভারতে একটি পশ্চিমী ঝঞ্ঝা হানা দিতে চলেছে। তার প্রভাবে সোমবার এবং মঙ্গলবার উত্তরবঙ্গ এবং সিকিমে খুব হালকা বিক্ষিপ্ত বৃষ্টি হতে পারে। তবে তার থেকে কোনো দুর্যোগ আর হবে না।

আরও কিছু উল্লেখযোগ্য খবর পড়ুন এখানে:

ধানজমি খুঁড়ে উদ্ধার ১৬ দিনের শিশুকন্যার মৃতদেহ! পর পর দুই মেয়ে জন্মানোয় ‘অখুশি’ বাবাকে গ্রেফতার

কন্যাসন্তান হওয়ায় হাসপাতালের বেডেই সদ্যোজাতকে খুনের অভিযোগ মায়ের বিরুদ্ধে

চিনকে জবাব দিতে অরুণাচলপ্রদেশ সীমান্তে জোরদার প্রস্তুতি, বফর্স তাক ভারতীয় সেনার

বড়ো খবর! পেট্রোল ও ডিজেলের দামে আগুন, তেল সংস্থার কর্তাদের সঙ্গে বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী মোদী

আক্রান্তের সংখ্যা বাড়লেও সংক্রমণের হার আগের বুধবারের থেকে বেশ কিছুটা কম পশ্চিমবঙ্গে

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন